বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > MI vs RR: চাষির ছেলের IPL-এ প্রথম শিকার কুইন্টন ডি'কক
কার্তিক ত্যাগী। ছবি- আইপিএল।
কার্তিক ত্যাগী। ছবি- আইপিএল।

MI vs RR: চাষির ছেলের IPL-এ প্রথম শিকার কুইন্টন ডি'কক

  • চাষের সমস্ত জমি বিক্রি করে ছেলের ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন সত্যি করেন রাজস্থান রয়্যালসের তরুণ পেসারের বাবা।

২০২০ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের সেরা ব্যাটসম্যান যশস্বী জসওয়াল রাজস্থান রয়্যালসের জার্সিতে আগেই আইপিএলে আত্মপ্রকাশ করেছেন। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে রাজস্থানের হয়েই ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগে অভিষেক হল যুব বিশ্বকাপের অন্যতম সেরা বোলার কার্তিক ত্যাগীর।

যশস্বী একটি ম্যাচ খেলেই ছিটকে গিয়েছিলেন প্রথম একাদশ থেকে। কাকতলীয়ভাবে তিনি দলে ফিরলেন অনূর্ধ্ব-১৯ জাতীয় দলের সতীর্থকে সঙ্গে নিয়ে। প্রথম ম্যাচে যশস্বী ব্যাট হাতে সফল হননি। তবে কার্তিক আইপিএলে নিজের প্রথম ওভারেই তুলে নেন কুইন্টন ডি'ককের মূল্যবান উইকেট।

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট ও লাইভ স্কোর জানতে ক্লিক করুন এখানে।)

গত যুব বিশ্বকাপে ভারতের পেস বোলিংকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কার্তিক। ৬ ম্যাচে তিনি তুলে নেন ১১টি উইকেট। রবি বিষ্ণোইয়ের (১৭) পর ভারতের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি ছিলেন ত্যাগী।

যুব বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ২৭ রানে ১টি উইকেট নেন কার্তিক। জাপানের বিরুদ্ধে নেন ১০ রানে ৩ উইকেট। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দখল করেন ২৭ রানে ১ উইকেট। অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধ ২৪ রানে ৪ উইকেট পকেটে পোরেন তিনি। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নেন ৩২ রানে ২ উইকেট। বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ফাইনালে কোনও উইকেট না পেলেও কৃপণ বোলিং করেন ত্যাগী।

উত্তরপ্রদেশের হয়ে এখনও পর্যন্ত ১টি ফার্স্ট ক্লাস ও ৫টি লিস্ট-এ ম্যাচ খেলেছেন কার্তিক। গত আইপিএল নিলামে ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকায় ত্যাগীকে দলে নেয় রাজস্থান রয়্যালস।

উত্তরপ্রদেশের ধানোরা গ্রামের অত্যন্ত দরিদ্র পরিবারের ছেলে কার্তিক পড়াশোনায় কখনই ভালো ছিলেন না। তবে বড় ক্রিকেটার হয়ে ওঠার স্বপ্ন দেখতেন ছেলেবেলা থেকেই। বাবা একজন কৃষক। চাষবাসই ছিল পরিবারের আয়ের একমাত্র উৎস। তা সত্ত্বেও কার্তিকের বাবা চাষের সমস্ত জমি বিক্রি করে ছেলের ক্রিকেটার হয়ে ওঠার স্বপ্ন সত্যি করে তোলেন।

বন্ধ করুন