বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > RCB vs KXIP: কামব্যাক ম্যাচেই হাফ-সেঞ্চুরি গেইলের, শেষ বলে উত্তেজক জয় পঞ্জাবের
হাফ-সেঞ্চুরির পর গেইল। ছবি- আইপিএল।
হাফ-সেঞ্চুরির পর গেইল। ছবি- আইপিএল।

RCB vs KXIP: কামব্যাক ম্যাচেই হাফ-সেঞ্চুরি গেইলের, শেষ বলে উত্তেজক জয় পঞ্জাবের

  • শেষ বলে ছক্কা মেরে আরসিবির কাছ থেকে ম্যাচ ছিনিয়ে নেন নিকোলাস পুরান।

মাঠে নেমেই পরিচিত মেজাজে ক্রিস গেইল। তাও পছন্দের ওপেনিংয়ে নয়, তিন নম্বরে ব্যাট করতে নেমে প্রথম ম্যাচেই কিংস ইলেভেন পঞ্জাবকে জয়ের মঞ্চে বসিয়ে দেন দ্য ইউনিভার্স বস। যা দেখে পঞ্জাব টিম ম্যানেজমেন্ট হাত কামড়াতে পারে, চলতি আইপিএলে কেন তাকে শুরু থেকে খেলায়নি এই ভেবে।

শারজায় টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বিরাট কোহলির রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ২০ ওভারে ৬ উইকেটের বিনিময়ে ১৭১ রান তোলে। জবাবে কিংস ইলেভেন পঞ্জাব ২০ ওভারে ২ উইকেটের বিনিময়ে ১৭৭ রান তুলে ম্যাচ জিতে যায়। হাফ-সেঞ্চুরি করেন গেইল ও রাহুল। অর্ধশতরানের দোরগোড়া থেকে ফেরেন মায়াঙ্ক আগরওয়াল।

(আইপিএলের যাবতীয় আপডেট ও লাইভ স্কোর জানতে ক্লিক করুন এখানে।)

পঞ্জাব এদিন অতি সহজেই জয় তুলে নিতে পারত। যদিও তারা ধীরে সুস্থে লক্ষ্যের দিকে পৌঁছতে গিয়ে লড়াই কঠিন করে বসে। শেষ ওভারে জয়ের জন্য মাত্র ২ রান প্রয়োজন ছিল কিংস ইলেভেনের। ক্রিজে ছিলেন দুই হাফ-সেঞ্চুরিকারী গেইল ও রাহুল। তা সত্ত্বেও ম্যাচ গড়ায় শেষ বল পর্যন্ত। গেইল ১টি চার ও ৫টি ছক্কার সাহায্যে ৪৫ বলে ৫৩ রান করে শেষ ওভারে রান-আউট হন।

শেষ বলে জয়ের জন্য ১ রান দরকার ছিল রাহুলদের। ক্রিজে এসেই ছক্কা হাঁকিয়ে কোহলিদের থেকে ম্যাচ ছিনিয়ে নেন নিকোলাস পুরান। রাহুল অপরাজিত থাকেন ৪৯ বলে ৬১ রান করে। তিনিও ১টি চার ও ৫টি ছক্কা মারেন। লোকেশের সঙ্গে ওপেন করতে নেমে মায়াঙ্ক আগরওয়াল ৪টি চার ও ৩টি ছক্কার সাহায্যে ২৫ বলে ৪৫ রান করে আউট হন।

আরসিবির হয়ে বিরাট কোহলি ৩৯ বলে সর্বোচ্চ ৪৮ রান করে সাজঘরে ফেরেন। তিনি ৩টি চার মারেন। এছাড়া অ্যারন ফিঞ্চ ২০, শিবম দুবে ২৩ ও ক্রিস মরিস ৮ বলে অপরাজিত ২৫ রান করেন। ম্যাচের সেরা হয়েছেন কেএল রাহুল।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:- ব্যাঙ্গালোর: ১৭১/৬ (২০ ওভার), পঞ্জাব: ১৭৭/২ (২০ ওভার), (পঞ্জাব ৮ উইকেটে জয়ী)।

বন্ধ করুন