বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল ২০২০ > SRH vs RR: ব্যর্থ তারকারা, তেওটিয়ার সঙ্গে জুটিতে রাজস্থানকে জয়ের মুখ দেখালেন ১৯-এর রিয়ান
রাহুল তেওটিয়া ও রিয়ান পরাগ (ছবি সৌজন্য টুইটার @IPL)
রাহুল তেওটিয়া ও রিয়ান পরাগ (ছবি সৌজন্য টুইটার @IPL)

SRH vs RR: ব্যর্থ তারকারা, তেওটিয়ার সঙ্গে জুটিতে রাজস্থানকে জয়ের মুখ দেখালেন ১৯-এর রিয়ান

  • চার ম্যাচ পর অবশেষে জিতল রাজস্থান রয়্যালস।

এখনও ১৯ বছর পূর্ণ হয়নি। আর ঠিক ৩০ দিন পরেই জন্মদিন। তার আগে নিজের অসামান্য প্রতিভার পরিচয় দিলেন রিয়ান পরাগ। তারকা ব্যাটিং লাইন-আপ যখন ব্যর্থ, তখন রাহুল তেওটিয়ার সঙ্গে জুটি বেঁধে রাজস্থান রয়্যালসকে জয়ের মুখ দেখালেন অসমের ছেলে।

দেখুন আইপিএলের যাবতীয় আপডেট, লাইভ স্কোর

রবিবার দুবাইয়ে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমেছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। পিচ খুব একটা সহজ ছিল না। একেবারে খেটেখুটে রান করতে হচ্ছিল। পিচ কামড়ে পড়ে থাকেন ডেভিড ওয়ার্নার। তবে ওপেনিংয়ে তাঁর সঙ্গী জনি বেয়ারস্টো ১৯ বলে মাত্র ১৬ রান করে আউট হয়ে যান। পরে মণীশ পান্ডের সঙ্গে জুটি বেঁধে দলকে এগিয়ে নিয়ে যেতে থাকেন ওয়ার্নার। কিন্তু রানরেট খুব একটা বেশি ছিল না। সেই অবস্থায় ১৪.৪ ওভারে জোফ্রা আর্চারের বলে বোল্ড হন ওয়ার্নার। যে অজি তারকাকে পুরো অ্যাসেজে আর্চারের বিরুদ্ধে অসহায় লাগছিল। তবে রবিবার আর্চারকে সামলে ৩৮ বলে ৪৮ রান করেন তিনি। তাঁর আউট হওয়ার পর কেন উইলিয়ামসনের ১২ বলে ২২ রান এবং প্রিয়ম গর্গের আট বলে ১৫ রানের সৌজন্যে ২০ ওভারে চার উইকেটে ১৫৮ রান তোলে সানরাইজার্স। ৪৪ বলে ৫৪ রান করেন মণীশ। মূলত উইলিয়ামসন এবং প্রিয়মের জন্য ১৫০ রানের গণ্ডি টপকায় হায়দরাবাদ।

রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই কিছুটা চমক দেওয়ার চেষ্টা করে রাজস্থান। জস বাটলারের সঙ্গে ওপেনিংয়ে পাঠানো হয় বেন স্টোককে। কিন্তু সেই পরিকল্পনা সফল হয়নি। ছ'বলে মাত্র পাঁচ রান করে প্য়াভিলিযনে ফেরেন তিনি। আর সেই ধাক্কায় যেন রাজস্থানে কাঁপুনি ধরে যায়। ৪.১ ওভারে ২৬ রান তুলতে না তুলতেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন স্টিভ স্মিথ ও বাটলার। সঞ্জু স্যামসন ও রবিন উথাপ্পা কিছুটা চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু তাতে কোনও কাজ হয়নি। ১২ ওভারে রাজস্থানের স্কোর দাঁড়ায় পাঁচ উইকেটে ৭৮ রান। 

সেখান থেকে ম্যাচের হাল ধরেন রিয়ান ও রাহুল। ধীরে ধীরে দলকে জয়ের সরণির দিকে নিয়ে যেতে থাকেন তাঁরা। ১৯ তম ওভারে ওঠে ১৮ রান। আর শেষ ওভারে দরকার ছিল আট রান। সেখান থেকে টানটান উত্তেজনা হয়। বচসায় জড়িয়ে পড়েন তেওটিয়া ও খলিল আহমেদ। শেষপর্যন্ত পঞ্চম বলে ছক্কা মেরে চার ম্যাচ হারের ধাক্কা কাটিয়ে দলকে জয় এনে দেন রিয়ান। ২৮ বলে তেওটিয়ার অপরাজিত ৪৫ রান এবং ২৬ বলে রিয়ানের অপরাজিত ৪২ রানের সৌজন্যে পাঁচ উইকেটে ম্যাচ জিতে কিছুটা অক্সিজেন পেল রাজস্থান।

বন্ধ করুন