বাংলা নিউজ > ময়দান > ছক্কার হেরফেরেই কি CSK-র ভাগ্য বদল? পরিসংখ্যান দিয়ে তাই বোঝালেন চোপড়া
চেন্নাই সুপার কিংস। ছবি- আইপিএল।
চেন্নাই সুপার কিংস। ছবি- আইপিএল।

ছক্কার হেরফেরেই কি CSK-র ভাগ্য বদল? পরিসংখ্যান দিয়ে তাই বোঝালেন চোপড়া

  • ৬ মাসের মধ্যে ভোলবদল, চেন্নাই সুপার কিংসের পালটে যাওয়া দেখে অবাক টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন তারকা।

কিংস হঠাৎ করেই সুপার কিংস হয়ে যায়। মাত্র ৬ মাসের ব্যবধানে দু'টি আইপিএলে মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বাধীন সিএসকে দলের পরিবর্তন দেখে এমনটাই উপলব্ধি আকাশ চোপড়ার। টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন তারকা স্পষ্ট জানালেন যে, তিনি এবং তাঁর বন্ধুরা অবাক চেন্নাইয়ের এমন ভোলবদলে। কেননা ২০২০-র ‘ড্যাডিজ আর্মি’ এবছর বিশেষ কিছু করে দেখাবে বলে মনে হয়নি তাঁর।

আকাশ চোপড়া অবশ্য পরিসংখ্যান দিয়ে বুঝিয়ে দিয়েছেন যে, দু'টি মরশুমে চেন্নাইয়ের পারফর্ম্যান্সে ফারাক কোথায় চোখে পড়েছে।

শুধু বিশেষজ্ঞদেরই নয়, বরং সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীদেরও অবাক হওয়াই স্বাভাবিক চেন্নাইয়ের রাতারাতি বদলে যাওয়া দেখে। ২০২০ আইপিএলে ৭ নম্বরে থেকে লিগ শেষ করে সিএসকে। ২০২১-এ তারা ৭ ম্যাচর মধ্যে ৫টি জিতেছে। টুর্নামেন্ট স্থগিত হয়ে যাওয়ার আগে পর্যন্ত তারা দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে আকাশ চোপড়া এপ্রসঙ্গে বলেন, ‘আইপিএল ২০২০ ও আইপিএল ২০২১-র মধ্যে বিস্তর ফারাক। গত বছর সিএসকে ড্যাডিজ আর্মির মতো খেলে। ২০২১ আসতেই সবাই সুপার পাওয়ার ফিরে পায়। কিংস হঠাৎ করেই সুপার কিংস হয়ে যায়। মাত্র ৬ মাসে এমন পরিবর্তন দেখে আমি এবং আমার বন্ধুরা বিশ্বাসই করতে পারিনি। তবে এই দলটা সেটা সত্যিই করে দেখিয়েছে।’

চোপড়া আরও বলেন, ‘সবার আগে চেন্নাইয়ের যে পরিবর্তনটা চোখে পড়েছে, সেটা হল ছক্কা মারার ক্ষমতা। যদি আইপিএল ২০২০-র কথা ধরা যায়, তবে ওরা শুধু আবু ধাবি বা দুবাইয়ে খেলেনি, শারজাতেও খেলেছে। তবে সেই অর্থে বেশি ছক্কা হাঁকাতে পারেনি। সেকারণেই আমরা ভেবেছিলাম যে, চেন্নাই হয়ত এবারও প্লে-অফে যেতে পারবে না। গত বছর ওরা মাত্র ৭৫টি ছক্কা মেরেছিল। গড়ে ২২ বল লেগেছিল ১টি করে ছক্কা হাঁকাতে। মুম্বই সেখানে ১৩.২ বলে গড়ে ১টি করে ছক্কা মারে। তারা মোট ১৩৭টি ছক্কা হাঁকিয়েছিল। এবছর চেন্নাই মাত্র ৭টি ম্যাচ খেলেছে। ইতিমধ্যেই ৬২টি ছক্কা মেরেছে তারা। সুতরাং গড়ে ১৩.১ বলে একটি করে ছক্কা মেরেছে চেন্নাই।’

বন্ধ করুন