বাংলা নিউজ > ময়দান > IPL 2021: কামিন্স-ওয়ার্নাররা কি এবার IPL-এ খেলবেন না? অজি বোর্ডের মন্তব্যে প্রশ্নচিহ্ন
প্যাট কামিন্স এবং ডেভিড ওয়ার্নাররা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য আইপিএল)
প্যাট কামিন্স এবং ডেভিড ওয়ার্নাররা। (ফাইল ছবি, সৌজন্য আইপিএল)

IPL 2021: কামিন্স-ওয়ার্নাররা কি এবার IPL-এ খেলবেন না? অজি বোর্ডের মন্তব্যে প্রশ্নচিহ্ন

  • কেকেআরের বোলিং বিভাগের নেতাই হলেন কামিন্স। তিনি যদি আসতে না পারেন, তাহলে বড় ধাক্কা লাগবে।

আসন্ন আইপিএলে কি খেলার অনুমতি পাবেন প্যাট কামিন্স-সহ অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেটাররা? তা নিয়ে কিছুটা হলেও প্রশ্নচিহ্ন উঠে গেল। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার অন্তর্বর্তীকালীন সিইও নিক হোকলে জানালেন, আইপিএলের জন্য প্রত্যেক খেলোয়াড়কে আলাদাভাবেই ‘নো অবজেকশন সার্টিফিকেট’ (এনওসি) নিতে হবে। যে খেলোয়াড়রা ছাড়পত্র পাবেন, তাঁরা আইপিএলে খেলতে পারবেন।

ত্রয়োদশ আইপিএলে আটটি দলে মোট ১৯ জন অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার ছিলেন। যা গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বর পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে হয়েছিল। তবে এবার ভারতেই আইপিএল আয়োজনের চেষ্টা চালাচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)। সম্ভবত আগামী এপ্রিলের গোড়ার দিকে শুরু হবে আইপিএল।  সেজন্য ফেব্রুয়ারিতে বসছে মিনি নিলামের আসর। আর আইপিএলে খেলার জন্য প্রত্যেক অজি খেলোয়াড়কে বোর্ডের থেকে এনওসি জোগাড় করতে হবে। কয়েকটি মহলের দাবি, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত যদি কোনও দুশ্চিন্তা থাকে, তাহলে খেলোয়াড়দের সেই ছাড়পত্র নাও দেওয়া হতে পারে।

হোকলের বক্তব্যকে উদ্ধৃত করে সিডনি মর্নিং হেরাল্ডের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘গত বছরের আইপিএল থেকে আমরা নিশ্চিতভাবে অভিজ্ঞতা সঞ্চয় করেছি। যদি জৈব-সুরক্ষা বলয়ের নিয়মকানুন সুরক্ষিত হয়, তাহলে অবশ্য আইপিএল হবে। যখন (নো অবজেকশন সার্টিফিকেটের) আবেদন জানানো যাবে, তথন প্রতিটি আবেদন খতিয়ে দেখে অনুমোদন দেওয়া হবে।’

ইতিমধ্যে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির কারণে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর বাতিল করেছে অস্ট্রেলিয়া। তার জেরে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে পৌঁছানোর রাস্তা অনেকটা কঠিন হয়ে গিয়েছে টিম পেইনদের। ‘করোনাভাইরাস’-এর দাপটে অস্ট্রেলিয়া সেই ঐতিহাসিক সুযোগ হাতছাড়া করায় আইপিএলে সব অজি খেলোয়াড়কে সবুজ সংকতে দেওয়া হবে কিনা, তা নিয়ে প্রশ্ন তৈরি হচ্ছে। তবে বিসিসিআই, আইপিএল বা ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার তরফে চূড়ান্ত জানানো হয়নি। সেই সংক্রান্ত ঘোষণার দিকে বিশেষভাবে তাকিয়ে থাকবে কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর) এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। কারণ কেকেআরের বোলিং বিভাগের নেতাই হলেন কামিন্স। আর ওয়ার্নার তো হায়দরাবাদের অধিনায়ক।

বন্ধ করুন