বাংলা নিউজ > ময়দান > IPL-এ উপেক্ষিত হলেও PSL-এ বিশ্বরেকর্ড গড়লেন আফগান তারকা, তাও হারল তাঁর দল
ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের আফগান তারকা গুরবাজ। ছবি- টুইটার (@RGurbaz_21)।

IPL-এ উপেক্ষিত হলেও PSL-এ বিশ্বরেকর্ড গড়লেন আফগান তারকা, তাও হারল তাঁর দল

  • ১৯ বলে ৪৬ রানের একটি ঝোড়ো ইনিংস খেলেন তারকা ক্রিকেটার।

আইপিএল নিলামে কেউ তাঁর জন্য দর হাঁকায়নি, তবে পিএসএলে ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের জার্সিতে ঝড় তুললেন রাহমানুল্লাহ গুরবাদজ। পেশোয়ার জালমির বিরুদ্ধে মাত্র ১৯ বলে ৪৬ রান করেন আফগানিস্তানের তারকা ওপেনার। তাও আফসোস, তাঁর দলকে ১০ রানে ম্যাচ হারতে হল।

ম্যাচে প্রথমে ব্য়াট করে জালমি নির্ধারিত বিশ ওভারে ২০৬ রান করে। জালমির হয়ে ওপেনার মহম্মদ হ্যারিস ৩২ বলে ৭০ রানের এক বিধ্বংসী ইনিংস খেলেন। বর্ষীয়াণ শোয়েব মালিক দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৩৮ রান (২৩ বলে) করেন। ইয়াসির খানও ৩৫ রান (২৪ বলে) করেন। মূলত এই তিন জনের ব্যাটে ভর করেই জালমি ২০০-র গণ্ডি পার করে। বল হাতে ইসালামাবাদের হয়ে ফাহিম আশরফ সর্বাধিক তিন উইকেট নেন।

বড় রান তাড়া করতে নেমে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন রাহমানুল্লাহ গুরবাজ। প্রথম ওভারে পঞ্জাব কিংসের ১১.৫০ কোটি টাকায় কেনা লিয়াম লিভিংস্টোনকে দুই ছক্কা মারার পর উসমান কাদিরকে দ্বিতীয় ওভারে তিন ছক্কা হাঁকান। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে ইনিংসের প্রথম দুই ওভারে পাঁচ ছক্কা হাঁকানোর রেকর্ড আর কারুর নেই। দুই ওভার শেষেই ইসলামাবাদ ৩৭ রান করে ফেলে। 

তবে মাত্র ১৯ বলে ৪৬ রান করে গুরবাজ আউট হওয়ার পর, নির্দিষ্ট অন্তরালে উইকেট হারানোর খেসারত দিতে হয় ইসলামাবাদকে। মিডল অর্ডারে আজম খান ৮৫ রানের (৪৫ বলে) এক অসাধারণ ইনিংস খেললেও বাকিরা কেউই তাঁকে সঙ্গ দেননি। কার্যত একার লড়াইয়ে দলকে জয়ের সুযোগ এনে দিলেও, আজম খান আউট হতেই ম্যাচ শেষ হয়ে যায় ইসালামাবাদের। ১৯৬ রানেই থমকে যায় তাদের ইনিংস। 

বল হাতে জালমির হয়ে সলমন ইর্শাদ সর্বাধিক তিন উইকেট নেন। অধিনায়ক ওয়াহাব রিয়াজ পান দুই উইকেট। এই জয়ের ফলে ইসলামাবাদকে পিছনে ফেলে লিগ তালিকায় তিন নম্বরে উঠে এল পেশোয়ার জালমি। নয় ম্যাচে পাঁচটি জয়ের ফলে ১০ পয়েন্ট রয়েছে তাদের দখলে। এক ম্যাচ কম খেলে আট পয়েন্ট নিয়ে চারে রয়েছে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড।

বন্ধ করুন