বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > এক মরশুমে IPL Playoff-এ ওয়ার্নারকে টপকে সর্বোচ্চ রানের মালিক বাটলার, তিনে পতিদার
জোস বাটলার। ছবি: পিটিআই

এক মরশুমে IPL Playoff-এ ওয়ার্নারকে টপকে সর্বোচ্চ রানের মালিক বাটলার, তিনে পতিদার

  • তৃতীয় প্লেয়ার হিসেবে আইপিএলে বাটলার মোট ৮০০ রানের গণ্ডি টপকে গেলেন। বাটলারের সংগ্রহ এখন ১৬ ম্যাচে ৮২৪ রান। ফাইনাল এখনও বাকি রয়েছে। বাটলারের আগে এখন রয়েছেন শুধু কোহলি (৯৭৩ রান) এবং ওয়ার্নার (৮৪৮)। ফাইনালে বাটলার নিজের ছন্দে থাকলে, সহজেই টপকে যেতে পারবেন ওয়ার্নারকে। তবে কোহলিকে টপকানো সম্ভব নয়।

আরও একটি সেঞ্চুরি। আরও একটি ম্যাচজয়ী ইনিংস। সঙ্গে অসংখ্য রেকর্ড। জোস বাটলার যেন স্বপ্নের জাদুকর হয়ে গিয়েছেন। পিঙ্ক সিটির রঙে নিজেকে রাঙিয়ে রাজস্থান রয়্যালসকে হাসতে হাসতে ফাইনালে তুলে দিলেন ব্রিটিশ তারকা। সেই সঙ্গে গড়লেন অনন্য এক নজির।

আইপিএলের এক মরশুমের প্লে অফে বাটলার সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়লেন। শুক্রবার রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের বিরুদ্ধে কোয়ালিফায়ার টু-র ম্যাচে ৬০ বলে অপরাজিত ১০৬ রান করেন। এর আগে কোয়ালিফায়ার ওয়ানে গুজরাট টাইটানসের বিরুদ্ধে বাটলার ৫৬ বলে ৮৯ করেছিলেন। প্লে-অফে তাঁর মোট রান দাঁড়াল ১৯৫। ফাইনাল এখনও বাকি। তার আগেই কোয়ালিফায়ার-টু-তেই ওয়ার্নারকে ছাপিয়ে নতুন রেকর্ড করে ফেললেন বাটলার।

২০১৬ সালে ডেভিড ওয়ার্নার প্লে-অফে মোট ১৯০ রান করেছিলেন। এই তালিকায় তিনে রয়েছেন রজত পতিদার। তিনি ২০২২ আইপিএলের প্লে-অফে মোট ১৭০ রান করেছেন। তার মধ্যে এলিমেনটরে লখনউ সুপার জায়ান্টসের বিরুদ্ধে ৫৪ বলে ১১২ রানের দুরন্ত এক ইনিংস খেলেছিলেন। আর কোয়ালিফায়ার টু-তেও ৪২ বলে ৫৮ রান করেন আরসিবি-র এই তরুণ।

আরও পড়ুন: তৃতীয় প্লেয়ার হিসেবে IPL-এ ৮০০ বাটলারের, সেঞ্চুরিতে ছুঁলেন কোহলিকে

আরও পড়ুন: ব্যাটে নয়, ফিল্ডিংয়েও হিট বাটলার, রজতের ক্যাচ দেখে চোখ কপালে- ভিডিয়ো

এ দিন রাজস্থান রয়্যালস টসে জিতে ব্যাট করতে পাঠায় রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে। রজিত পতিদার ৪২ বলে ৫৮ করেন। এ ছাড়া ২৫ (২৭ বলে) করেছেন ফ্যাফ ডু'প্লেসি। ১৩ বলে ২৪ করেছেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। শাহবাজ আহমেদের সংগ্রহ ১২ রান। বাকিরা কেউ দুই অঙ্কের ঘরে পৌঁছতে পারেননি। পতিদার হাফ সেঞ্চুরি না করলে ১৫০ টপকানো হত না আরসিবি-র।

নির্দিষ্ট ২০ ওভারে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর ৮ উইকেট হারিয়ে ১৫৭ রান করেছে। ওবেড ম্যাকয়ে এবং প্রসিধ কৃষ্ণ ৩টি করে উইকেট নিয়েছেন। ট্রেন্ট বোল্ট এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন ১টি করে উইকেট নিয়েছেন।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১১ বল বাকি থাকতে ৭ উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় রাজস্থান। ৬০ বলে বাটলার ১০৬ রান করেছেন। এ ছাড়া সঞ্জু স্যামসন ২৩ (২১ বলে) এবং যশস্বী জয়সওয়াল ২১ (১৩) রান করেছেন। মোদ্দা কথা, বাটলার একাই দায়িত্ব নিয়ে ম্যাচ জিতিয়ে দিয়েছেন। শেষ বলে ছক্কা হাঁকিয়ে রাজস্থানকে ফাইনালে তুলেছেন বাটলার। ব্যাঙ্গালোরের জোস হ্যাজেলউড ২টি এবং ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা ১টি উইকেট নিয়েছেন।

বন্ধ করুন