বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2023 > GT vs MI: IPL-এর প্লে-অফের সর্বোচ্চ রান করলেন কনিষ্ঠতম সেঞ্চুরিয়ন শুভমন

GT vs MI: IPL-এর প্লে-অফের সর্বোচ্চ রান করলেন কনিষ্ঠতম সেঞ্চুরিয়ন শুভমন

সেঞ্চুরির উচ্ছ্বাস শুভমন গিলের।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে কোয়ালিফায়ার-টু-এর মতো বড় ম্যাচে গিলের ব্যাট থেকে এই সেঞ্চুরি এল মাত্র ৪৯ বলে। সেই সঙ্গে আইপিএলের ইতিহাসে নাম লিখিয়ে ফেলেন টাইটান্সের তারকা ব্যাটার।

একেবারে স্বপ্নের ফর্মে রয়েছেন শুভমন গিল। ২০২৩ আইপিএলে তিনি তিন নম্বর শতরান করে ফেললেন। সেই সঙ্গে গড়লেন একাধিক নজির। আইপিএলের ইতিহাসে কনিষ্ঠতম প্লেয়ার হিসেবে প্লে-অফে সেঞ্চুরি হাঁকালেন শুভমন। সেই সঙ্গে প্লে-অফে বীরেন্দ্র সেহওয়াগের রেকর্ডও গুঁড়িয়ে দিলেন তিনি। স্পর্শ করলেন বিরাট কোহলির নজির।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে কোয়ালিফায়ার-টু-এর মতো বড় ম্যাচে গিলের ব্যাট থেকে এই সেঞ্চুরি এল মাত্র ৪৯ বলে। গুজরাট টাইটান্সের প্রথম ইনিংসের ১৫তম ওভারে ক্যামেরন গ্রিনের প্রথম বলেই সিঙ্গেল নেন গিল। সেই সঙ্গে তিনি করে ফেলেন শতরান। শতরান হাঁকাতে তিনি আটটি আকাশচুম্বী ছক্কা এবং চারটি চার মারেন। এর আগে ২৩ বছরের তারকা ব্যাটসম্যান রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর এবং সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধেও সেঞ্চুরি করেছিলেন।

আরও পড়ুন: WTC Final-এর জন্য অনুশীলন শুরু, শার্দুলদের মজার ড্রিলে হাসির জোয়ার নেটপাড়ায়- ভিডিয়ো

আইপিএল প্লে-অফে সেঞ্চুরি করা সপ্তম ব্যাটসম্যান হলেন শুভমন গিল। তা ছাড়া তিনিই সর্বকনিষ্ঠ ব্যাটার হিসেবে প্লে-অফে সেঞ্চুরি করলেন। শুভমনের বয়স এখন ২৩ বছর ২৬০ দিন। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে প্লে-অফে দ্রুততম সেঞ্চুরি করা খেলোয়াড়দের অভিজাত তালিকায় যৌথ ভাবে শীর্ষস্থানে জায়গা করে নিয়েছেন এই তারকা ব্যাটার। ঋদ্ধিমান সাহা, রজত পতিদারের মতো শুভমনও ৪৯ বলে শতরান হাঁকালেন।

আইপিএলের প্লে-অফের ম্যাচে সর্বোচ্চ রান করলেন শুভমন। ভেঙে দিলেন বীরেন্দ্র সেহওয়াগের রেকর্ড। সেহওয়াগ (পিবিকেএস) ২০১৪ সালে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে প্লে-অফের ম্যাচে ১২২ রান করেছিলেন। সেই নজির ভাঙলেন শুভমন। এ দিন তিনি ১২৯ রান করলেন। যা আইপিএলের প্লে-অফের ম্যাচে এই মুহূর্তে সর্বোচ্চ। ২০১৮ সালে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে শেন ওয়াটসন (সিএসকে) আবার অপরাজিত ১১৭ রান করেছিলেন। ২০১৪ সালে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে ঋদ্ধিমান সাহা (পিবিকেএস) অপরাজিত ১১৫ করেছিলেন। ২০১২ সালে মুরলি বিজয় (সিএসকে) দিল্লি ক্যাপিটালসের বিরুদ্ধে ১১৩ রান করেছিলেন। রজত পাতিদার (আরসিবি) ২০২২ সালে লখনউ সুপার জায়ান্টসের বিরুদ্ধে অপরাজিত ১১২ রান করেছিলেন।

আরও পড়ুন: বৈচিত্র্যের আতিশয্য না থাকাই মাধওয়ালের ট্রেন্ড হবে- নতুন তারায় মুগ্ধ মঞ্জরেকর

এ দিন সেঞ্চুরির হাত ধরে শুভমন গিল আইপিএল মরশুমে সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি করা তৃতীয় খেলোয়াড় হয়ে উঠেছেন। বিরাট কোহলি (২০১৬ সালে) এবং জস বাটলার (২০২২ সালে) এক মরশুমে চারটি করে সেঞ্চুরি করে তালিকার শীর্ষে রয়েছেন। শুভমনের এখনও পর্যন্ত এই মরশুমে সেঞ্চুরির সংখ্যা তিনটি।

এ ছাড়াও বিরাট কোহলি এবং জস বাটলারের পর শুভমান গিল আইপিএলের ইতিহাসে তৃতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে এক মরশুমে ৮০০ রান করে ফেললেন। শুভমনের এ দিনের সেঞ্চরির পর মোট সংগ্রহ এখন ৮৫১ রান। অরেঞ্জ ক্যাপ জয়ের প্রধান দাবীদার শুভমনই। তাঁর ধারেপাশে আপাতত কেউ নেই।

এ দিনে শুভমন গিল ৩০ রানে ক্যাচ দিয়েছিলেন। সেটা মিস করার খেসারত হাতেনাতে দিতে হয় মুম্বই ইন্ডিয়ান্সকে। শুভমনের ঝোড়ো ইনিংসের হাত ধরেই ৩ উইকেটে ২৩৩ রানের বড় স্কোর করল গুজরাট টাইটান্স। শুভমন শেষ পর্যন্ত ৬০ বলে ১২৯ করে আউট হলেন। আকাশ মাধওয়ালের বলে টিম ডেভিডকে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি। তাঁর ইনিংসে রয়েছে মোট সাতটি চার এবং ১০টি ছক্কা। এ ছাড়া ৩১ বলে ৪৩ রান করে রিটায়ার্ড আউট হন। ১৩ বলে অপরাজিত ২৮ করেন হার্দিক। মুম্বইয়ের হয়ে ১টি করে উইকেট নিয়েছেন আকাশ মাধওয়াল এবং পিযূষ চাওলা।

বন্ধ করুন