বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > IPL 2021: আইপিএলে খেলা নিয়ে বেন স্টোকসকে খোঁচা ক্রিস রজার্সের
বেন স্টোকস। ছবি: রয়টার্স (REUTERS)
বেন স্টোকস। ছবি: রয়টার্স (REUTERS)

IPL 2021: আইপিএলে খেলা নিয়ে বেন স্টোকসকে খোঁচা ক্রিস রজার্সের

  • আইপিএল খেলে কি ক্রিকেটাররা ক্লান্ত হয়ে পড়েন? আইপিএলে-র পরে দেশের হয়ে কোনও টুর্নামেন্টে খেলতে নামার পর কি সেই ক্লান্তি দলের সাফল্যে অন্তরায় হয়ে ওঠে? এই নিয়ে বহু দিন ধরেই তর্ক-বিতর্ক চলছে। তবে এই বিতর্ককে আরও একটু উস্কে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ক্রিকেটার ক্রিস রজার্স।

আইপিএলের ঢাকে কাঠি পড়ার আগেই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তর্যা, বিতর্ক শুরু হয়ে গিয়েছে। এ বার যেমন ইংল্যান্ডের সহ-অধিনায়ক বেন স্টোকসকে খোঁচা দিলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ক্রিকেটার ক্রিস রজার্স। পাল্টা জবাব দিয়েছেন স্টোকসও। তবে এই নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে বিতর্ক।

বিতর্কের মূল বিষয়, আইপিএল খেলে কি ক্রিকেটাররা ক্লান্ত হয়ে পড়েন? আইপিএলে-র পরে দেশের হয়ে কোনও টুর্নামেন্টে খেলতে নামার পর কি সেই ক্লান্তি দলের সাফল্যে অন্তরায় হয়ে ওঠে? এই প্রশ্ন নিয়ে বহু দিন ধরেই তর্ক-বিতর্ক চলছে। তবে এই বিতর্ককে আরও একটু উস্কে দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন ক্রিকেটার ক্রিস রজার্স। তিনি টুইটারে ব্যাঙ্গ করে বেন স্টোকসের উদ্দেশ্যে লিখেছেন, ‘পাউন্ড নোটের পিছনে আবার ছুটছো, যখন ইংল্যান্ডের জার্সি পরে নামবে তখন তো বল করতে ক্লান্তি বোধ করবে’। এর জবাব দিতে ছাড়েননি ব্রিটিশ ক্রিকেটারও। তিনি পাল্টা লিখেছেন, ‘ইংল্যান্ডের জার্সিতে বল করতে নেমে কখন আমি ক্লান্ত হয়ে পড়েছি???’

স্টোকসের এই উত্তরের পর ইংল্যান্ডের ক্রিকেট ভক্তরা বেশির ভাগই তাঁকেই সমর্থন করেছেন। একজন যেমন হেডিংলে-র অ্যাসেজের দ্বিতীয় ইনিংসের প্রসঙ্গ টেনে বেন স্টোকসকে খোঁচা দিয়েছেন। ব্রিট্রিশ ক্রিকেটারের হয়ে পাল্টা গলা ফাটিয়েছেন অনেক বেশি ইংল্যান্ডের ক্রিকেট ভক্ত। জেমি রেনর বলে একজন যেমন বলেছেন, ‘প্রত্যেকে ২০১৯ সালের হেডিংলের কথা বলছে। কিন্তু তাঁর (স্টোকস) হিরোর মতো বোলিং স্পেলের কথা অনেকেই ভুলে গিয়েছে।’ কেউ আবার হেডিংলে অ্যাসেজের সময়ে বেন স্টোকসকে নিয়ে উচ্ছ্বাসে ভরা সংবাদ শিরোনামের লিঙ্ক শেয়ার করেছেন। কেউ আবার তাঁকে ইংল্যান্ডের ‘সিংহ’ বলে অভিহিত করেছেন। বেন স্টোকস কিন্তু লড়াকু প্লেয়ার। আইপিএলে যেমন নিজের সেরাটা নিংড়ে দেন, তেমনই দেশের জার্সি গায়ে নামলে অন্য মেজাজে পাওয়া যায় তাঁকে। ইংল্যান্ডের সাফল্য ছাড়া বাকি সব কিছু তিনি তখন ভুলে যান।

একটা সময় ছিল যখন ইংল্যান্ড আইপিএলের ঘোরতর বিরোধী ছিল। এমন কী আইপিএলের সময়েই ইংল্যান্ডের ক্রিকেট বোর্ড বিভিন্ন টুর্নামেন্ট রেখে দিত। যাতে ব্রিটিশ ক্রিকেটাররা এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে না পারে। তবে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি বদলেছে। ব্রিটিশ ক্রিকেটারদের আইপিএলে যোগ দেওয়া নিয়ে আর কোনও রকম সমস্যা নেই। স্বভাবতই তাঁরা নিজেদের সেরাটা আইপিএলে দেওয়ার জন্যও মুখিয়ে থাকেন, যাতে পরের মরসুমেও ভাল দামে ভাল দলে খেলতে পারেন।

বন্ধ করুন