বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > সর্ষের ভিতরেই ভূত! অচল জৈব বলয়ে থাকা ব্যক্তিদের গতিবিধি নির্ণয়ের GPS যন্ত্র
কলকাতা নাইট রাইডার্স দল। ছবি- কেকেআর।
কলকাতা নাইট রাইডার্স দল। ছবি- কেকেআর।

সর্ষের ভিতরেই ভূত! অচল জৈব বলয়ে থাকা ব্যক্তিদের গতিবিধি নির্ণয়ের GPS যন্ত্র

  • জৈব বলয়ে থাকা প্রত্যেক ব্যক্তিকে একটি ব্যান্ড সর্বক্ষণ কব্জিতে পরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়।

সম্ভাবনা ছিলই, আর তাকেই সত্যি করে অবশেষে স্থগিত হল আইপিএল। ফ্রাঞ্চাইজিদের জন্য তৈরি সুরক্ষিত জৈব বলয়ে করোনার আগমনের প্রথম খবর মেলে কলকাতা নাইট রাইডার্স দলে। বরুণ চক্রবর্তী ও সন্দীপ ওয়ারিয়র করোনার কবলে পড়েন। এরপরেই একে একে একাধিক দলের করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তেই থাকে।

দিল্লি ক্যাপিটালস, কেকেআর সহ একাধিক দলকে নিভৃতবাসে থাকার নির্দেশ জানানো হয়। তবে শেষ রক্ষা হল না। অবশেষে অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হল আইপিএল। খবরটি সর্বপ্রথম প্রকাশ করেন ভারতীয় ক্রিকেট সংস্থা বিসিসিআই-র সহ সভাপতি রাজীব শুক্লা। বোর্ডের তরফেও মেগা টুর্নামেন্ট বন্ধের কথা জানানো হয়েছে।

সুরক্ষিত জৈব বলয়ে করোনা আগমনের কারণ খুঁজতে গিয়ে নতুন এক তথ্য সামনে এসছে। জৈব বলয়ে থাকা প্রত্যেক ব্যক্তিকে একটি ব্যান্ড সর্বক্ষণ কব্জিতে পড়ে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়। এই ব্যান্ড আসলে একটি জিপিএস সিস্টেম যা প্রত্যেকের গতিবিধির ওপর নজর রাখতে ব্যবহার করা হয়। এটি ব্লুটুথের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করে ‘বায়ো বাবেল’ নামক একটি অ্যাপে সব তথ্য জমা করে রাখে। তবে একটি ফ্রাঞ্চাইজির সদস্য এর তথ্য জানতে চাইলেই ঘটে বিপত্তি।

ফ্রাঞ্চাইজি এক শহর থেকে অন্য শহরে চলে গেলেও দেখা যায় যে তথ্য পাওয়া যাচ্ছে তা তাঁদের আগের শহরের। ব্যান্ডটি তাঁদের শহর বদলির কোনরকম তথ্য সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হয়। এই নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ফ্রাঞ্চাইজিদের একাংশ। যন্ত্রটিকে নিম্নমানেরও আক্ষা দেওয়া হয়েছে। এরপর প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক সকলের গতিবিধি ওপর ঠিকঠাক নজর না রাখতে পারার জন্যই কি ঘটল এই বিপর্যয়?

বন্ধ করুন