বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > IPL 2021: KKR-এর অধিনায়কত্ব ছাড়া নিয়ে এ বার মুখ খুললেন কার্তিক, দেখুন ভিডিয়ো
মর্গ্যান এবং কার্তিক।
মর্গ্যান এবং কার্তিক।

IPL 2021: KKR-এর অধিনায়কত্ব ছাড়া নিয়ে এ বার মুখ খুললেন কার্তিক, দেখুন ভিডিয়ো

  • গত বছর আইপিএলে যে সাতটি ম্যাচে কার্তিক নেতৃত্ব দিয়েছেন, তার মধ্যে কেকেআর চারটি ম্যাচ জেতে। হারে তিনটি ম্যাচে। এমন কী যে দিন চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে তারা জিতেছিল, ঠিক সেই দিনই কার্তিক টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে নেতৃত্ব ছাড়ার কথা বলেন।

গত মরশুমে আইপিএলের মাঝপথে নিজে থেকেই নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন দীনেশ কার্তিক। কার্তিক সরে দাঁড়ালে ইয়ন মর্গ্যানের হাতেই অধিনায়কের দায়িত্ব তুলে দেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স। সেই সময়ে কার্তিকের অধিনায়কত্ব ছাড়া নিয়ে বহু জলঘোলা হয়েছিল। সেই বিতর্ক এখনও পুরোপুরি ধামাচাপা পড়েনি। এ বার অধিনায়কত্ব ছাড়া নিয়ে মুখ খুললেন কার্তিক নিজেই।

কেকেআর কার্তিকের সাক্ষাৎকারের একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেছে, সেখানে কলকাতা টিমের প্রাক্তন অধিনায়ক বলেছেন, ‘আমরা তখন সাত ম্যাচ খেলে ফেলেছিলাম। আরও সাত ম্যাচ বাকি ছিল। তখনও প্লে অফে ওঠার জন্য আমাদের সামনে পর্যাপ্ত সুযোগ ছিল। আর সেটাই সঠিক সময় ছিল, মর্গ্যানের হাতে অধিনায়কের দায়িত্ব তুলে দেওয়ার। যদি প্লে অফের দৌড় থেকে ছিটকে যাওয়ার পরে নেতৃত্ব ছাড়তাম, সেটা একেবারেই সঠিক কাজ হত না।’

গত বছর আইপিএলে যে সাতটি ম্যাচে কার্তিক নেতৃত্ব দিয়েছেন, তার মধ্যে কেকেআর চারটি ম্যাচ জিতেছে। হেরেছে তিনটি ম্যাচে। এমন কী যে দিন চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে তারা জিতেছিল, ঠিক সেই দিনই কার্তিক টিম ম্যানেজমেন্টের কাছে নেতৃত্ব ছাড়ার কথা বলেন। তার পরে ১৫ অক্টোবর ঠিক মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ম্যাচের আগে সরকারি ভাবে অধিনায়ক বদলের কথা কেকেআর ঘোষণা করে। সেই সঙ্গে নতুন অধিনায়ক হিসেবে মর্গ্যানের নামও জানিয়ে দেওয়া হয়।

দীনেশ কার্তিক আরও বলেছেন, ‘যে আড়াই বছর দলকে নেতৃত্ব দিয়ছি, সেই সময়ে নিজের কাজটা ঠিক করে করার চেষ্টা করেছি। মনে হয়, সকলের আস্থা অর্জন করতে পেরেছি। একজন নেতার জন্য এটা কিন্তু খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। মর্গ্যানও এই বিষয়ে অনেকটা আমার মতোই। দলের সকলেই জানত, আমরা দু'জন সবার আগে দলকে প্রাধান্য দিয়ে থাকি। সেই কারণেই কিন্তু আমি নেতৃত্ব ছেড়ে দিয়েছি।’

একা কার্তিক নন। বর্তমান অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানও নেতৃত্ব বদল নিয়ে মুখ খুলেছেন। তাঁর দাবি আবার, ‘আমাকে অধিনায়কের দায়িত্ব দেওয়ায় খুবই খুশি। নেতৃত্ব বদলের প্রক্রিয়াটা খুবই মসৃণ ভাবে হয়েছিল। তবে কার্তিক নেতৃত্ব ছাড়ার সিদ্ধান্তটা মোটেই আবেগের বশে নেয়নি। বরং খুব যুক্তিযুক্ত ভাবে নিঃস্বার্থ দৃষ্টিভঙ্গি থেকে নিয়েছিল। টুর্নামেন্টের মাঝ পথে এ ভাবে নেতৃত্ব ছেড়ে দিতে সাহস লাগে।।’

বন্ধ করুন