বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > ক্রিকেটের জন্য প্রতিদিন ৪২ কিলোমিটার সফর করতেন! চিনে নিন KKR-এর হর্ষিত রানাকে
KKR-এর হর্ষিত রানা (ছবি:টুইটার কেকেআর)
KKR-এর হর্ষিত রানা (ছবি:টুইটার কেকেআর)

ক্রিকেটের জন্য প্রতিদিন ৪২ কিলোমিটার সফর করতেন! চিনে নিন KKR-এর হর্ষিত রানাকে

  • কিন্তু কে এই হর্ষিত রানা? দিল্লির হয়ে খেলেন পেসার হর্ষিত রানা। গুজরাট টাইটানসের নেট বোলার ছিলেন তিনি। অর্থাৎ নেটে শুভমন গিলদের বল করতেন। তাঁকে ২০ লাখ টাকায় চুক্তিবদ্ধ করে কেকেআর। আইপিএল-এ অভিষেক হওয়ার আগে পর্যন্ত সিকে নাইডু ট্রফিতে দিল্লির হয়ে খেলছিলেন হর্ষিত।

আগেই চোটের জন্য ছিটকে গিয়েছিলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের পেসার রসিখ সালাম। তাঁর পরিবর্তে দিল্লির পেসার হর্ষিত রানাকে দলে নিয়েছিল শাহরুখ খানের দল। বৃহস্পতিবার দিল্লির বিরুদ্ধে ৪১তম ম্যাচে চূড়ান্ত একাদশে ৩টি পরিবর্তন করেছিলKKR। আইপিএলে অভিষেক হয়েছিল দিল্লির ফাস্ট বোলার হর্ষিত রানার। ২০ বছর বয়সী এই ফাস্ট বোলারের এটাই প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। ফাস্ট বোলার রাসিখ সালামের জায়গায় মাঠে নামলেন তিনি।

কিন্তু কে এই হর্ষিত রানা? দিল্লির হয়ে খেলেন পেসার হর্ষিত রানা। গুজরাট টাইটানসের নেট বোলার ছিলেন তিনি। অর্থাৎ নেটে শুভমন গিলদের বল করতেন। তাঁকে ২০ লাখ টাকায় চুক্তিবদ্ধ করে কেকেআর। আইপিএল-এ অভিষেক হওয়ার আগে পর্যন্ত সিকে নাইডু ট্রফিতে দিল্লির হয়ে খেলছিলেন হর্ষিত। তিনটি ম্যাচেই খেলেছিলেন। কর্ণাটকের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে ২১ ওভারে ৮৩ রানে এক উইকেট নিয়েছিলেন। ইকোনমি রেট ছিল ৩.৯৫। উত্তরাখণ্ডের বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংস ২৩ ওভারে ১০ টি মেডেন-সহ ৪২ রানে তিন উইকেট নিয়েছিলেন। দ্বিতীয় ইনিংসে ৭.২ ওভার বল করেছিলেন। ২৫ রান দিয়েছিলেন। তবে কোনও উইকেট পাননি। হরিয়ানার বিরুদ্ধে প্রথম ইনিংসে আবার ১৩ ওভারে ৪৮ রান দিয়েছিলেন হর্ষিত। কোনও উইকেট পাননি। দ্বিতীয় ইনিংসে বল করেননি।

শেষ চার ম্যাচে হেরেছে KKR-এর দল। এমন অবস্থায় হর্ষিত রানার ক্রিকেট যাত্রা সহজ ছিল না। তাঁকে অনেক সংগ্রাম করতে হয়েছে। ২০১২ সালে তিনি দিল্লির অনূর্ধ্ব-১৪ এবং অনূর্ধ্ব-১৬ দলে জায়গা করে নিতে পারেননি। তার পিঠে চোট ছিল। এমন পরিস্থিতিতে, চোট থেকে সেরে উঠতে, তিনি প্রতিদিন বাড়ি থেকে ৪২ কিলোমিটার দূরে পুনর্বাসনের জন্য গুরুগ্রামে যেতেন। তিনি তার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের জন্য প্রথম কোচ শ্রেবন্ত স্যারের খুব প্রশংসা করেন। ২০২১ সালে তিনি একটি ক্লাব ম্যাচে ৭ উইকেট নিয়েছিলেন। এরপর আরেক ম্যাচে ৮ উইকেট নেন তিনি।

ক্লাব ক্রিকেটে ভাল পারফর্ম করার পর দিল্লির অনূর্ধ্ব-২৫ দলে জায়গা পান। এছাড়া রঞ্জি ট্রফির ক্যাম্পেও তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছিল। এখানে তিনি নীতীশ রানার সঙ্গে দেখা করেন। হর্ষিত রানা তাঁর বোলিংয়ের প্রশংসাও করেছেন। এর পরে তিনি কেকেআর সহকারী কোচ অভিষেক নায়ারের সাথে কথা বলেন এবং তিনিও দলের ট্রায়ালে অংশ নেন। কিন্তু নিলামে তাঁকে নির্বাচিত করা হয়নি। এখন কেকেআরের সব ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। হর্ষিত রানা তার চিহ্ন রেখে যেতে চান।

বন্ধ করুন