বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > IPL 2022: ২০১০-তে পাঠান, ২০১৬-তে অক্ষরের পর জয়দেব - শেষ ওভারে ১৫-র বেশি তুলে রেকর্ড ধোনির
২০১০ সাল, ২০২২ সাল এবং ২০১৬ সালে মহেন্দ্র সিং ধোনি। (বাঁ দিক থেকে ডানদিকে, সৌজন্যে টুইটার এবং আইপিএল)

IPL 2022: ২০১০-তে পাঠান, ২০১৬-তে অক্ষরের পর জয়দেব - শেষ ওভারে ১৫-র বেশি তুলে রেকর্ড ধোনির

  • IPL 2022: শেষ ওভারে ১৫ রানের বেশি চাই? তাহলে এখনই ডেকে ফেলুন মহেন্দ্র সিং ধোনিকে। কারণ সেই কাজটা একবার নয়, তিনবার করে ফেলেছেন মাহি। ২০১০ সালে প্রথমবার সেই কাজটা করেছিলেন। ২০১৬ সালের ধোনির আগুনে ছারখার হয়েছিলেন অক্ষর প্যাটেল। এবার ধোনি ধামাকায় আরব সাগরে কার্যত বিসর্জন হয়ে গেল মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের।

বারো বছর আগে ইরফান পাঠান। ২০১৬ সালে অক্ষর প্যাটেল। আর এবার জয়দেব উনাদকাট। ১২ বছরের ব্যবধানে এভাবেই আইপিএলের শেষ ওভারে তিন বোলারকে ছারখার করে দিয়েছেন ‘ফিনিশার’ মহেন্দ্র সিং ধোনি। সেইসঙ্গে এমন রেকর্ড গড়েছেন, যে রেকর্ডের ধারেকাছেও কেউ নেই।

আরও পড়ুন: MI vs CSK: টুপি খুলে ধোনির সামনে মাথা নত জাদেজার, ভাইরাল ভিডিয়ো, স্যালুটও করা হল ফিনিশারকে

বৃহস্পতিবার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে শেষ চার বলে ১৬ রান তুলে চেন্নাই সুপার কিংসকে জিতিয়েছেন ধোনি। তবে সেটাই প্রথম নয়, বরং শেষ ওভারে ১৫ রানের বেশি তুলে দলকে জয়ের সরণিতে পৌঁছে দেওয়া যেন ধোনির বাঁ হাতের কাজ। সে ধোনির বয়স ২৮ হোক, ৩৪ হোক বা ৪০ হোক না কেন। সেজন্যই এতটা স্পেশাল ধোনি। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, আইপিএলের শেষ ওভারে ১৫ রানের বেশি তুলে দলকে সবথেকে বেশিবার জিতিয়েছেন ধোনি।

কবে কবে জিতিয়েছেন ধোনি?

১) বনাম পঞ্জাব কিংস (তৎকালীন কিংস ইলেভন পঞ্জাব): ২০১০ সালের আইপিএলে 'ডু অর ডাই' ম্যাচে জয়ের জন্য শেষ ওভারে চেন্নাইয়ের প্রয়োজন ছিল ১৬ রান। পাঠানের প্রথম বলে চার মেরেছিলেন ধোনি। পরের পরে দু'রান নিয়েছিলেন। পরের দুটি বলে ছক্কা মেরে চেন্নাইকে জিতিয়েছিলেন। মাত্র ২৯ বলে ৫৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। সেই জয়সূচক ছক্কার পর তো নিজের হেলমেটে ঘুষি মেরেছিলেন ধোনি। যিনি বরাবর মাঠে আবেগ দেখান না।

২) বনাম পঞ্জাব কিংস (তৎকালীন কিংস ইলেভন পঞ্জাব): ২০১৬ সালটা একেবারেই ভালো যায়নি ধোনির দল রাইজিং পুণে সুপারজায়েন্টসের। শেষ ওভারে জয়ের জন্য ২৩ রান দরকার ছিল ধোনিদের। নিজের উপর ধোনির এতটাই আস্থা ছিল যে অক্ষরের প্রথম বলে একরানও নেননি। সেখান থেকে তিন ছক্কা এবং একটি রাউন্ডারি মেরে পুণেকে জিতিয়েছিলেন। ৩২ বলে ৬৪ রানে অপরাজিত ছিলেন।

(সেই ম্যাচের শেষ ওভার দেখুন)

৩) বনাম মুম্বই ইন্ডিয়ান্স: বৃহস্পতিবার আইপিএলে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের বিরুদ্ধে জয়ের জন্য শেষ ওভারে চেন্নাই সুপার কিংসের প্রয়োজন ছিল ১৭ রান। প্রথম বলে আউট হয়ে যান ডোয়েন প্রিটোরিয়াস। দ্বিতীয় বলে এক রান নেন ডোয়েন ব্র্যাভো। তার ফলে চার ফলে দরকার ছিল ১৬ রান।

উনাদকাটের প্রথম বলে মারাত্মক জোরে ছক্কা মারেন ধোনি। পরের বলটি ফাইন লেগের বাউন্ডারিতে চলে যায়। পঞ্চম বলে দু'রান নেন ধোনি। শেষ বলে চার রান দরকার ছিল চেন্নাইয়ের। লেগ স্টাম্পে ভালো ইয়র্কার করেন জয়দেব উনাদকাট। কিন্তু ধোনি তো ধোনিই হন। কবজির মোচড়ে শর্ট ফাইন লেগ দিয়ে বাউন্ডারিতে বল পাঠিয়ে দেন মাহি। শেষপর্যন্ত ১৩ বলে ২৮ রান অপরাজিত থাকেন।

বন্ধ করুন