বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > IPL 2022: ‘কেউ GT-কে পাত্তা দেয়নি, সেরা চারে রাখেনি’, চ্যাম্পিয়ন হয়ে কটাক্ষ গিলের
শুভমন গিল।

IPL 2022: ‘কেউ GT-কে পাত্তা দেয়নি, সেরা চারে রাখেনি’, চ্যাম্পিয়ন হয়ে কটাক্ষ গিলের

  • ২২ বছরের হার্দিক পাণ্ডিয়ার নেতৃত্বাধীন দলের জার্সিতে শুভমন সেরা পারফর্মারদের একজন ছিলেন। গিল ৩৪.৫০ গড়ে ৪৮৩ রান করেছেন। এটি ছিল শুভমন গিলের টানা তৃতীয় মরশুম, যেখানে তিনি ৪০০ রানের গণ্ডি টপকেছেন।

গুজরাট টাইটানসের (জিটি) জার্সিতে কেমন কাটল এ বারের আইপিএল মরশুম? তারকা ব্যাটার শুভমান গিল তাঁর শিরোপা জয়ী আইপিএলের অসাধারণ অভিজ্ঞতা নিয়ে মুখ খুলেছেন। প্রসঙ্গত, ২৯ মে ফাইনালে রাজস্থান রয়্যালসকে (আরআর) হারিয়ে নতুন এই ফ্র্যাঞ্চাইজি ইতিহাস লিখে ফেলেছে। আর ফাইনাল ম্যাচে দুরন্ত ব্যাটিং করে টাইটানসকে জেতাতে বড় ভূমিকা নিয়েছেন শুভমন গিল।

২২ বছরের হার্দিক পাণ্ডিয়ার নেতৃত্বাধীন দলের জার্সিতে শুভমন সেরা পারফর্মারদের একজন ছিলেন। গিল ৩৪.৫০ গড়ে ৪৮৩ রান করেছেন। এটি ছিল শুভমন গিলের টানা তৃতীয় মরশুম, যেখানে তিনি ৪০০ রানের গণ্ডি টপকেছেন।

শুভমন গিল টাইটানসের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে বলেছেন, ‘আমি মনে করি, মরশুমটি আমার কাছে বিশেষ ছিল। আমি সত্যিই কিছু ভাল মুহূর্ত কাটিয়েছি, তেমনই আবার কিছু খারাপ পারফরম্যান্সও করেছি। কিন্তু ও ভাবেই ভালো-খারাপ মিলিয়ে একটা মরশুম যায়। আমি মনে করি, ভালো প্লেয়ার এবং কঠিন দলগুলো শেষ পর্যন্ত লড়াই করে, যদি তারা সেটা মনে মনে স্থির করে নেয়।’

আরও পড়ুন: আলাদা গ্ল্যামার রয়েছে- WC-এর চেয়ে কোথায় আলাদা IPL? ব্যাখ্যা দিলেন GT-র অজি তারকা

আরও পড়ুন: ‘ও ধোনির মতো নেতৃত্ব দেয়’, GT অধিনায়ককে নিয়ে উচ্ছ্বসিত মঞ্জরেকর

এটি গিলের সবচেয়ে সফল আইপিএল মরশুম হওয়া ছাড়াও, তিনি এই টুর্নামেন্টে তাঁর সর্বোচ্চ স্কোরও নথিভুক্ত করেছেন। ব্র্যাবোর্ন স্টেডিয়ামে পঞ্জাব কিংসের (পিবিকেএস) বিরুদ্ধে ৯৬ রান করেন। এবং শেষ বলে জয় এনে দিয়েছিলেন।

প্লেয়ার ড্রাফট থেকে তৃতীয় বাছাই হিসাবে নিলামের আগেই টাইটানস শুভমন গিলকে দলে নিয়েছিল। গিল ছাড়াও হার্দিক পাণ্ডিয়া এবং রশিদ খানকেও তারা ড্রাফট থেকেই বেছে নিয়েছিল। তবে ক্রিকেট পণ্ডিতরা বেশির ভাগই টুর্নামেন্ট শুরুর আগে টাইটানসকে গুরুত্বই দেয়নি।

সেই প্রসঙ্গে টেনে গিল বলেন, ‘কেউ দলগুলোর মধ্যে জিটিকে বিশেষ গুরুত্বই দেয়নি। এমন কী সেরা চারটি দল যারা যোগ্যতা অর্জন করবে, তার মধ্যে কেউ আমাদের বিবেচনাতেই আনেনি। যখন লোকেদের মুখে এ সব শুনতাম, তখন অবশ্য আমার কাছে এটা অর্থহীন বলে মনে হত। গুরুত্বপূর্ণ বিষয় ছিল, আমরা একবার ছন্দ পেয়ে যাওয়ার পর, সেটা ধরে রাখা।’

বন্ধ করুন