বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > সোশ্যাল মিডিয়ায় শামি প্রসঙ্গে পাকিস্তানের সাংবাদিককে একহাত নিলেন ইরফান পাঠান
ইরফান পাঠান ও মহম্মদ শামি (ছবি:ইনস্টাগ্রাম ও আইপিএল)

সোশ্যাল মিডিয়ায় শামি প্রসঙ্গে পাকিস্তানের সাংবাদিককে একহাত নিলেন ইরফান পাঠান

‘সস্তার বিশেষজ্ঞ’ শামির পাশে দাঁড়াতেই ইরফান পাঠানকে অপমান করলেন পাক সাংবাদিক।

চলতি আইপিএলে দু’টি ম্যাচ খেলে এখনও পর্যন্ত পাঁচটি উইকেট নিয়েছেন বাংলার পেসার মহম্মদ শামি। শনিবার দিল্লি ক্যাপিটালসকেও হারিয়ে দিয়েছে গুজরাট টাইটানস। সেই ম্যাচে চার ওভার বল করে ৩০ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন শামি। তার আগের ম্যাচে লখনউ সুপার জায়ান্টসকে উড়িয়ে দিয়ে আইপিএলে নিজেদের যাত্রা শুরু করেছিল গুজরাট টাইটানস। সেই ম্যাচেও মহম্মদ শামির বোলিং নজর কেড়েছিল। পাওয়ার প্লে-তে তিন ওভারে লোকেশ রাহুল, কুইন্টন ডি’কক এবং মনিশ পান্ডেকে পর পর ফিরিয়ে তিনটি উইকেট নিয়েছিলেন মহম্মদ শামি।

এর পরে ক্রিকেট বিশ্ব শামির প্রশংসা করতে থাকেন। মহম্মদ শামিকে নিয়ে ভারতের প্রাক্তন অলরাউন্ডার ইরফান পাঠানও টুইট করেন। ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার লেখেন, ‘বিশ্ব ক্রিকেটে মহম্মদ শামির মতো নতুন বলের ব্যবহার খুব কম বোলারই করতে পারেন।’ পাঠানের সেই টুইটে অনেকেই নিজিদের খারাপ ভালো মন্তব্য করতে থাকেন। পাঠানের এই টুইটের রিপ্লাই দেন পাকিস্তানের এক সাংবাদিক। শামির বোলিং প্রসঙ্গে ইরফান পাঠানের টুইটে ইহতিশাম উল হক লেখেন, ‘ওরা খেলতে পারেনি।’

আসলেগত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তানের কোনও ব্যাটারকে আউট করতে পারেননি ভারতীয় বোলাররা। সেই দলে ছিলেন মহম্মদ শামিও। তিনিও কোনও উইকেট পাননি। সেই ঘটনার কথাই মনে করিয়ে দিতে চেয়েই ইরফান পাঠানকে খোঁচা দিতে চেয়েছিলেন পাক সাংবাদিক। ইরফানপাঠানও চুপ থাকেননি শীঘ্রই সাংবাদিকের কটাক্ষের উত্তর দেন।

ইরফান পাঠান সঙ্গে সঙ্গে লেখেন,‘২০০৩ বিশ্বকাপে ওয়াসিম আক্রম সচিন তেন্ডুলকরের ব্যাটকে পরাজিত করতে পারেনি। এর মানে কি আক্রম বল করতে পারেন না? #সস্তার_বিশেষজ্ঞ।’ সাংবাদিকও এই টুইটের পাল্টা জবাব দেন। ইহতিশাম উল হক লেখেন,‘সস্তার বিশেষজ্ঞ সস্তার ধারাভাষ্যকারের থেকে বেশি জানে। আক্রমের বলে সচিনের ক্যাচ ফেলে দিয়েছিলেন রজ্জাক। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপের মঞ্চে সচিনের সেরা দু’টি ইনিংসের মধ্যে পাঁচ বার ক্যাচ পড়েছিল। এ বার আমাকে হরভজন সিং-এর মতো ব্লক করে দেবেন না।’

বন্ধ করুন