বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > খায় নাকি মাথায় মাখে, এমন ‘স্যাম্পেলের’ অভাব নেই KKR-এ, তারকারা ব্যর্থ হলে খামতি ঢাকবেন কে? বিবেচনা করেনি ফ্র্যাঞ্চাইজি
নারিন, রাসেল ও ম্যাকালাম। ছবি- আইপিএল।

খায় নাকি মাথায় মাখে, এমন ‘স্যাম্পেলের’ অভাব নেই KKR-এ, তারকারা ব্যর্থ হলে খামতি ঢাকবেন কে? বিবেচনা করেনি ফ্র্যাঞ্চাইজি

  • IPL 2022-এর প্রথমার্ধের খেলা অতিক্রান্ত সব দলেরই। কলকাতাও অর্ধেকের বেশি লিগ ম্যাচ খেলে ফেলেছে ইতিমধ্যেই। তবে তাদের সার্বিক পারফর্ম্যান্স আহামরি নয় মোটেও। দেখে নেওয়া যাক কোন কোন ভুলের জন্য কেকেআরকে ব্যর্থ হতে হয় চলতি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়র লিগের প্রথমার্ধে।

আইপিএল ২০২২-এর প্রথমার্ধের খেলা অতিক্রান্ত। কলকাতা নাইট রাইডার্স পরপর ম্যাচ হেরে ক্রমাগত পিছিয়ে পড়ছে। এই অবস্থায় লিগের দ্বিতীয়ার্ধে দারুণ কিছু করে না দেখালে কেকেআরের পক্ষে প্লে-অফে যাওয়া মুশকিল। দেখে নেওয়া যাক প্রথমার্ধে কলকাতার ব্যর্থতার কারণ।

১. প্লেয়ার রিটেনের ক্ষেত্রে পরিকল্পনায় গলদ: প্রথমত নিলামের আগে প্লেয়ার রিটেন করার সময়েই পরিকল্পনায় গোলমাল করে ফেলে কলকাতা নাইট রাইডার্স। যথাযথ চারজন ক্রিকেটারকে ধরে রাখতে পারেনি কেকেআর। দু’জন বিদেশি ক্রিকেটারের ক্ষেত্রে আন্দ্রে রাসেলকে রিটেন করা কলকাতার অটোমেটিক চয়েজ ছিল। সুলীন নারিনকে ধরে রাখার ক্ষেত্রে কিছুটা হলেও আবেগ কাজ করেছে ফ্র্যাঞ্চাইজির। তবে দুই ভারতীয় ক্রিকেটারকে বেছে নিতে গিয়েই হিসাবে ভুল হয়ে যায় কলকাতার। সাম্প্রতিক পারফর্ম্যান্সের দিকে নজর দিয়ে বেঙ্কটেশ আইয়ার ও বরুণ চক্রবর্তীকে ধরে রাখে কেকেআর। শুভমন গিলের মতো নির্ভরযোগ্য ও পরীক্ষিত ক্রিকেটারকে উপেক্ষা করে তারা। যার ফল ভুগতে হচ্ছে কেকেআরকে। বেঙ্কটেশ ও বরুণ, দু’জনের কেউই এখনও পর্যন্ত দলকে নির্ভরতা দিতে পারেননি। গিল সেখানে গুজরাট টাইটানসের হয়ে ব্যাট হাতে রং ছড়াচ্ছেন।

২. নিলামে দল গড়ার সময় কলকাতার ব্যর্থতা: মেগা নিলামে দল গড়ে নেওয়ার সময় কলকাতা প্যাট কামিন্স, নীতিশ রানাদের দলে ফেরাতে সক্ষম হয়। তবে রাহুল ত্রিপাঠীকে ফিরিয়ে আনতে পারেনি। অথচ ত্রিপাঠী বরাবর কলকাতাকে নির্ভরতা দিয়েছেন। একসঙ্গে গিল ও ত্রিপাঠী হাতছাড়া হওয়ায় কলকাতার টপ-মিডল অর্ডারে নির্ভরযোগ্য ভারতীয় ক্রিকেটারের অভাব ধরা পড়ছে। কেকেআরে থাকাকালীনই প্রসিধ কৃষ্ণার যথার্থ উত্থান। অথচ সেরা সময়েই তারকা পেসারকে দলে রাখতে পারেনি কলকাতা। অজিঙ্কা রাহানে, উমেশ যাদবদের কম দামে দলে নিয়ে বাজিমাত করতে চেয়েছিল কলকাতা। উমেশের ফাটকা কাজে লেগে গেলেও রাহানেকে দলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত বুমেরাং হয়েছে কলকাতার।

আরও পড়ুন:- IPL 2022: প্লে অফে কি উঠতে পারবে KKR? কলকাতার সামনে ছয় ম্যাচের কঠিন পরীক্ষা

৩. বেশি সংখ্যায় আনকোরা ক্রিকেটারদের দলে নেওয়া: ধারাবাহিকভাবে খেলানো যাবে না জেনেও কলকাতা নাইট রাইডার্স একসঙ্গে বেশ কয়েকজন আনকোরা ক্রিকেটারকে দলে নেয়। প্রথমসারির তারকারা ব্যর্থ হলেও তাঁদের পরিবর্ত হিসেবে মাঠে নামানো যাবে না, এমন ক্রিকেটারে ভরপুর কেকেআর। তাই বিকল্পের অভাব ধরা পড়ছে কেকেআরের স্কোয়াডে। অভিজিৎ তোমর, প্রথম সিং, অশোক শর্মা, হর্ষিত রানা, রমেশ কুমার, কলকাতার স্কোয়াডে এমন একাধিক নাম রয়েছে, খায় না মাথায় মাখে, যার কোনও ঠিক ঠিকানা নেই। অন্তত দল তাঁদের নিজেদের জাত চেনানোর মঞ্চটুকুও উপহার দিতে পারেনি এখনও পর্যন্ত। চোট পেয়ে ছিটকে গিয়েছেন বলে রসিখ দারকে আরও কয়েকটা ম্যাচে কলকাতা সুযোগ দিত কিনা, সে বিষয়ে নিশ্চিতভাবে কিছু বলা সম্ভব নয়। তবে আমন খান কোন দোষে এক ম্যাচ খেলেই বাদ পড়লেন, সেটা শুধুমাত্র টিম ম্যানেজমেন্টই বলতে পারবে। তবে এটা স্পষ্ট যে, নতুনদের উপর আস্থা নেই দলের। আয়ুষ বাদোনিরা যেখানে দলের সমর্থন পেয়ে মাঠ মাতাচ্ছেন, সেখানে কলকাতার বেঞ্চ গরম করে চলেছেন অনামি ক্রিকেটাররা। এখনও পর্যন্ত রিঙ্কু সিংকেই যথাযথ ব্যবহার করতে পারেনি কলকাতা।

৪. পরীক্ষিত উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যানের অভাব: উইকেটকিপার রয়েছেন, তবে কেকেআরের স্কোয়াডে পরীক্ষিত উইকেটকিপার-ব্যাটসম্যান নেই। স্যাম বিলিংসকে বিদেশির কোটায় ব্যবহার করতে হবে। তাই পরপর ব্যর্থ হলে সব ম্যাচে তাঁকে মাঠে নামানো সম্ভব নয়। শেলডন জ্যাকসন ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাবাহিক হলেও আইপিএলে পরীক্ষিত নন। বাবা ইন্দ্রজিৎ ঘরোয়া ক্রিকেটে যে রকম ছন্দে ছিলেন, তাতে অন্য যে কোনও দল তাঁকে ম্যাচে ব্যবহার করতে চাইত। তবে কেকেআর এখনও ইন্দ্রজিৎকে মাঠে নামানোর সাহস পায়নি।

আরও পড়ুন:- IPL 2022: ‘৮ ম্যাচ পরেও টিম কম্বিনেশন তৈরি হয়নি’, KKR-কে নিয়ে বিরক্ত আকাশ চোপড়া

৫. বিদেশি ক্রিকেটার ব্যবহারের সীমাবদ্ধতা: রাসেল কলকাতার প্রথম একাদশে অটোমেটিক চয়েজ। সুনীল নারিনকেও বসানো যাচ্ছে না রিটেন করার সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন উঠতে পারে বলে। প্যাট কামিন্স, টিম সাউদি, অ্যারন ফিঞ্চদের ঘুরিয়ে ফিরিয়ে ব্যবহার করা হচ্ছে। উইকেটকিপিং করবেন বলে স্যাম বিলিংসও সুযোগ পেয়ে যাচ্ছেন। দুর্দান্ত অল-রাউন্ডার হওয়া সত্ত্বেও উপেক্ষিত থেকে যাচ্ছেন আফগান তারকা মহম্মদ নবি। চামিকা করুণারত্নের হাল আরও করুণ। তাঁর আদৌ মাঠে নামা হবে কিনা, সে বিষয়ে সন্দেহ থেকে যায়।

বন্ধ করুন