বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2023 > KKR vs RR: ৪১ বল আগেই শেষ খেলা, ১৫০-র বেশি টার্গেটে এরকম নজির শেষ ঘটেছিল ১৫ বছর আগে

KKR vs RR: ৪১ বল আগেই শেষ খেলা, ১৫০-র বেশি টার্গেটে এরকম নজির শেষ ঘটেছিল ১৫ বছর আগে

বড় জয় রাজস্থান রয়্যালসের।

এই তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে ২০০৮ সালের মু্ম্বই ইন্ডিয়ান্স বনাম ডেকান চার্জার্সের ম্যাচ। মুম্বইতে খেলা হওয়া সেই ম্যাচে ৪৮ বল বাকি থাকতেই মু্ম্বইয়ের বিরুদ্ধে বড় জয় পেয়েছিল ডেকান চার্জার্স। এদিন ইডেন গার্ডেনে ৪১ বল বাকি থাকতে কেকেআরের বিরুদ্ধে ১৫০ রান তাড়া করে জিতল‌ রাজস্থান রয়্যালস।

শুভব্রত মুখার্জি: চলতি আইপিএলের ৫৬ তম ম্যাচে ইডেন গার্ডেন্সে রাজস্থান রয়্যালসের আক্রমণাত্মক ক্রিকেটের সামনে খড়কুটোর মতন উড়ে গিয়েছে কলকাতা নাইট রাইডার্স। প্লে-অফে যেতে গেলে নিজেদের বাকি সব ম্যাচেই জিততে হত কেকেআর-কে। এমন আবহে দাঁড়িয়ে ঘরের মাঠে রাজস্থানের কাছে জঘন্য ভাবে হারতে হল তাদের। কেকেআর বোলারদের বেদম পিটুনি পিটিয়ে ম্যাচ একাই বের করে নেন যশস্বী জয়সওয়াল। যে ২২ গজে রাজস্থান রয়্যালসের স্পিনারদের সামলাতে হিমশিম খেতে হল কেকেআর ব্যাটারদের, সেই উইকেটেই কেকেআর বোলারদের পিটিয়ে ছাতু করলেন যশস্বী। আর সঙ্গে সঙ্গে আইপিএলের ইতিহাসে নয়া কৃতিত্বও গড়ে ফেলল রাজস্থান রয়্যালস।

আমার পড়ুন: এক বালতি দুধে এক ফোঁটা চোনা- জরিমানার কবলে পড়তে হল জস বাটলারকে

বেশি বল বাকি থাকার নিরিখে ১৫০ বা তার বেশি রান তাড়া করে দ্রুততম জয়ের তালিকায় জায়গা করে নিল এই ম্যাচ। এক দিকে রাজস্থান যখন নয়া কৃতিত্ব অর্জন করল, তখন লজ্জার অন্ধকারে ডুবে গেল কেকেআর। উল্লেখ্য, এই তালিকায় প্রথম স্থানে রয়েছে ২০০৮ সালের মু্ম্বই ইন্ডিয়ান্স বনাম ডেকান চার্জার্সের ম্যাচ। মুম্বইতে খেলা হওয়া সেই ম্যাচে ৪৮ বল বাকি থাকতেই মু্ম্বইয়ের বিরুদ্ধে বড় জয় পেয়েছিল ডেকান চার্জার্স। এদিন ইডেন গার্ডেনে ৪১ বল বাকি থাকতে কেকেআরের বিরুদ্ধে ১৫০ রান তাড়া করে জিতল‌ রাজস্থান রয়্যালস। অন্যদিকে এই তালিকায় তৃতীয় স্থানে রয়েছে মুম্বই বনাম চেন্নাই ম্যাচ। মুম্বইতে হওয়া সেই ম্যাচ মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দল জিতেছিল ৩৭ বল বাকি থাকতে।

আরও পড়ুন: DC-র মতো প্লে-অফের স্বপ্ন কার্যত শেষ KKR-এর, অক্সিজেন পেল RR

প্রসঙ্গত বৃহস্পতিবার রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে প্রথমে ব্যাট করে আট উইকেটে ১৪৯ রান করতে সমর্থ হয় কেকেআর ব্যাটাররা। এ দিন দুই ওপেনার জেসন রয় (১০) এবং রহমানউল্লাহ গুরবাজকে (১৮) প্যাভিলিয়নে পাঠান ট্রেন্ট বোল্ট। অধিনায়ক নীতীশ রানা ২২ রান করেন। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৭ রান করেন বেঙ্কটেশ আইয়ার। এ দিন মাত্র ২৫ রান দিয়ে চার উইকেট নিয়ে আইপিএলের ইতিহাসে সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক হয়েছেন যুজবেন্দ্র চাহাল। জবাবে ১৩.১ ওভারে মাত্র এক উইকেট হারিয়ে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যায় রাজস্থান। ৪৭ বলে ৯৮ রানের অনবদ্য অপরাজিত ইনিংস খেলেন যশস্বী জয়সওয়াল। তাঁকে যোগ্য সঙ্গত করে ২৯ বলে অপরাজিত ৪৮ রান করে দলের জয় সুনিশ্চিত করেন সঞ্জু স্যামসন।

বন্ধ করুন