বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > LSG vs KKR: ‘লুইস বোঝেনি বলটা ওর দিকে যাচ্ছে, ওই ম্যান অফ দ্য ম্যাচ’- দেখুন রিঙ্কুকে ফেরানো ক্যাচের ঝলক
এভিন লুইসের বিখ্যাত একহাতে ক্যাচ (ছবি-টুইটার)

LSG vs KKR: ‘লুইস বোঝেনি বলটা ওর দিকে যাচ্ছে, ওই ম্যান অফ দ্য ম্যাচ’- দেখুন রিঙ্কুকে ফেরানো ক্যাচের ঝলক

  • পঞ্চম বলে রিঙ্কু সিং এক্সট্রা কভারের উপর থেকে মারতে চেয়েছিলেন, কিন্তু তিনি বলটি হাওয়ায় মেরে বসেন। ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টের দিকে অবস্থানরত লুইস দ্রুত বলের দিকে দৌড়ে উল্টো হাত দিয়ে ক্যাচ ধরেন। লুইসের এই ক্যাচ দেখে সবাই অবাক হয়ে যায় এবং সেটাই হয়ে যায় ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট।

মার্কাস স্টোইনিস নয়, কলকাতা নাইট রাইডার্স বনাম লখনউ সুপার জায়ান্টসের ম্যাচের‘টার্নিং পয়েন্ট’ ছিল এভিন লুইসের এই ক্যাচ। বুধবার রাতে রোমাঞ্চকর ম্যাচে কলকাতা নাইট রাইডার্সকে ২ রানে হারিয়েছে কেএল রাহুলের নেতৃত্বাধীন লখনউ সুপার জায়ান্টস। এই জয়ের মধ্য দিয়ে লখনউ দ্বিতীয় দল হিসেবে প্লে-অফে খেলার যোগ্যতা অর্জন করল। লখনউয়ের এই জয়ে একটা সময়ে রিঙ্কু সিং বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। কিন্তু এভিন লুইস দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ের মাধ্যমে রিঙ্কুকে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান এবং কলকাতা নাইট রাইডার্সের মুখ থেকে জেতা ম্যাচ ছিনিয়ে আনে। প্রথমে ব্যাট করে লখনউ সুপার জায়ান্টস কেকেআরের সামনে ২১১ রানের লক্ষ্য রেখেছিল। জবাবে কলকাতা নির্ধারিত ২০ ওভারে ২০৮ রান করে। তবে এদিনের ম্যাচের ২০তম ওভারটি ছিল পুরো রোমাঞ্চ দিয়ে ঘেরা।

এদিনের ম্যাচের শেষ ওভারে কলকাতা নাইট রাইডার্সের দরকার ছিল ২১ রান। এই সময় বল ছিল মার্কাস স্টোইনিসের হাতে।স্ট্রাইকে ব্যাট করছিলেন রিঙ্কু সিং।মার্কাস স্টোইনিসের প্রথম বলেই চার হাঁকান রিঙ্কু। এর পরের দুই বলে দুটি ব্যাক টু ব্যাক ছক্কা মারেন নাইট তারকা। রিঙ্কুর এই ঝড়ো ব্যাটিং দেখে কিছুক্ষণের জন্য থমকে গিয়েছিলেন লখনউয়ের ভক্তরা।প্রথম তিন বলে ১৬ রান সংগ্রহ করার পর শেষ ৩ বলে কলকাতার দরকার ছিল ৫ রান। চতুর্থ বলে রিঙ্কু সিং ছুটে যান দুই রানে। এখনKKR-এর ২ বলে ৩ রান প্রয়োজন ছিল। মনে হচ্ছে KKR এই মরশুমের সবচেয়ে বড় রান তাড়া করতে সফল হবে। কিন্তু ভাগ্যের লেখা হয়তো অন্য কিছু ছিল।

পঞ্চম বলে রিঙ্কু সিং এক্সট্রা কভারের উপর থেকে মারতে চেয়েছিলেন, কিন্তু তিনি বলটি হাওয়ায় মেরে বসেন। ব্যাকওয়ার্ড পয়েন্টের দিকে অবস্থানরত লুইস দ্রুত বলের দিকে দৌড়ে উল্টো হাত দিয়ে ক্যাচ ধরেন।

লুইসের এই ক্যাচ দেখে সবাই অবাক হয়ে যায় এবং সেটাই হয়ে যায় ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। লুইসের এই শক্তিশালী ক্যাচের পর শেষ বলে তিন রান দরকার ছিল কলকাতা নাইট রাইডার্সের। একটি চার মারলেই কেকেআর ম্যাচটি জিতে যেত।যেখানে দুটি রান নিলে আইপিএল ২০২২-এর প্রথম সুপার ওভার খেলা হত। কিন্তু স্টোইনিস শেষ বলে উমেশ যাদবকে ইয়র্কারে বোল্ড করে লখনউ সুপার জায়ান্টসকে জয়ী করেন। লুইসের এই ক্যাচ নিয়ে স্টোইনিস জানিয়েছেন, ‘আমি মনে করি না সে জানত যে বলটি তার কাছে যাচ্ছে। তারপর তিনি শুধু একটি হাত এগিয়েছিলেন এবং বলটি তার হাতে চলে আসে। আমি এটা বিশ্বাস করতে পারছি না। আমরা তাকে ম্যান অফ দ্য ম্যাচ দিচ্ছি। তিনি সমস্ত খেলা ঠাণ্ডা করে ফেলেন এবং তিনি ব্যাট করার জন্য উন্মুখ ছিলেন এবং তারপরে তিনি এক হাতের ব্লাইন্ডারটি বের করেন। এটাই খেলা।’

 

বন্ধ করুন