বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2023 > MI vs LSG: নো-বলে আউট? তৃতীয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে হতবাক টিম ডেভিড, নেটপাড়ায় বিতর্কের ঝড়

MI vs LSG: নো-বলে আউট? তৃতীয় আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে হতবাক টিম ডেভিড, নেটপাড়ায় বিতর্কের ঝড়

নিজের আউটের সিদ্ধান্ত নিয়ে বিরক্ত টিম ডেভিড।

আবারও আইপিএলে তৃতীয় আম্পায়ারের বিতর্কিত সিদ্ধান্ত। এই মরশুমে ব্যাটিং বা বোলিং দল ওয়াইড এবং নো-বলের জন্য ডিআরএস দাবি করতে পারে। টুর্নামেন্টে এই নিয়ম চালু হওয়ার পর আশা করা হচ্ছিল, বিতর্কিত সিদ্ধান্ত কম হবে। কিন্তু কোনও লাভ হয়নি। বুধবার এলিমিনেটরের ম্যাচে টিম ডেভিডের আউট নিয়ে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক।

মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের (এমআই) বিস্ফোরক ব্যাটসম্যান টিম ডেভিড আউট ছিলেন, নাকি নট আউট? তা নিয়ে শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক। আউট হয়ে টিম ডেভিড যে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে রীতিমতো বিরক্ত ছিলেন, তা প্রকাশ করতে কোনও লুকোছাপা করেননি তারকা ক্রিকেটার।

বুধবার এলিমিনেটর ম্যাচে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স এবং লখনউ সুপার জায়ান্টস মুখোমুখি হয়েছিল। সেই ম্যাচেই টিম ডেভিডের বিতর্কিত আউট নিয়ে এখন শুরু হয়েছে তীব্র চর্চা।

মুম্বইয়ের ইনিংসের ১৬.৩ ওভারে যশ ঠাকুরের ফুলটস বল টিম ডেভিডের কোমরের উচ্চতার উপর দিয়ে যায়। সাধারণ এগুলিতে ‘নো-বল’ ডাকা হয়। কিন্তু আম্পায়ার নো ডাকেননি। এবং ডেভিড ঠিক মতো ব্যাটে-বলে লাগাতে পারেননি। এতে লং-অনে ক্যাচ ওঠে, দীপক হুডা সেই ক্যাচ ধরেন। তবে ক্যাচ হওয়ার পর মাঠের আম্পায়াররা নিজেদের মধ্যে কথা বলে বলের উচ্চতা পরীক্ষার জন্য তৃতীয় আম্পায়ারের দ্বারস্থ হন। তিনি টিম ডেভিডকে আউট দেন। আর এতেই হতবাক হন টিম ডেভিড। তিনি এই আউটটা কিছুতেই হজম করতে পারছিলেন না।

আরও পড়ুন: T20 ক্রিকেটে অ্যাঙ্করের কোনও ভূমিকাই নেই- কোহলির একেবারে উল্টো দাবি রোহিতের

আসলে রিপ্লে-তে দেখা যায়, বল ছিল টিম ডেভিডের কোমরের কাছে। থার্ড আম্পায়ারকে বলতে শোনা গিয়েছিল যে, ব্যাটসম্যানের হাঁটু বাঁকানো ছিল এবং এই কারণে তিনি ডেভিডকে আউট ঘোষণা করেন। আউট দেওয়ার পর টিম ডেভিড বিরক্ত হন। দীর্ঘক্ষণ আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক করতে থাকেন। মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কোচ মার্ক বাউটার তখন গিয়ে চতুর্থ আম্পায়ারের সঙ্গেও কথা বলেন। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি এবং ডেভিডকে ফিরে সাজঘরেই ফিরতে হয়।

তবে টিম ডেভিডের আউট নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। নেপাড়ায় চলছে জোর চর্চা। অনেকে আম্পায়ারের পক্ষে, অনেকে আবার বিপক্ষে। কেউ কেউ মনে করছেন, টিম ডেভিড আউট ছিলেন না। ভুল আম্পায়ারিংয়ের শিকার তিনি।

এ দিন টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। শুরু থেকেই নবীন-উল-হক আগুনে মেজাজে ছিলেন। চতুর্থ ওভারেই রোহিত শর্মাকে (১০ বলে ১১ রান) ফিরিয়ে মুম্বইকে প্রথম ধাক্কাটা দেন তিনি। এর পর ১১তম ওভারে সূর্যকুমার যাদব (২০ বলে ৩৩ রান) এবং ক্যামেরন গ্রিনকে (২৩ বলে ৪১ রান) ফিরিয়ে মুম্বইয়ের ব্যাটিং অর্ডারের কোমর ভেঙে দেন নবীন। তৃতীয় উইকেটে সূর্য-গ্রিন জুটি ৩৬ বলে ৬৬ রানের পার্টনারশিপ করেন। গ্রিন আউট হওয়ার পরে মুম্বই আর ৭৭ রান যোগ করতে পারে। নবীন এর পর তিল বর্মাকেও (২২ বলে ২৬ রান) ফেরান।

আরও পড়ুন: ভারতীয়দের মধ্যে IPL-এর ৫০ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি রান, সচিনের রেকর্ড গুঁড়িয়ে দিলেন রুতুরাজ

এ দিন নবীন ৪ ওভার বল করে ৩৮ রান দিয়ে চারটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট তুলে নেন। তবে সাতে ব্যাট করতে নেমে শেষ পাতে নেহাল ওয়াধেরার ১২ বলে ২৩ রানের সুবাদে ৮ উইকেটে ১৮২ রান করে মুম্বই। লখনউয়ের হয়ে নবীনের ৪ উইকেট ছাড়াও ৩ উইকেট নিয়েছেন যশ ঠাকুর। একটি উইকেট নিয়েছেন মহসিন খান।

বন্ধ করুন