বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > অশ্বিনের স্ত্রী জানালেন শেষ এক সপ্তাহে বাড়িতে কী ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছিল, পরিবারের ১০জন ছিলেন করোনা পজিটিভ
স্ত্রী প্রীতির সঙ্গে অশ্বিন (ছবি: টুইটার)
স্ত্রী প্রীতির সঙ্গে অশ্বিন (ছবি: টুইটার)

অশ্বিনের স্ত্রী জানালেন শেষ এক সপ্তাহে বাড়িতে কী ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটেছিল, পরিবারের ১০জন ছিলেন করোনা পজিটিভ

  • রবিচন্দ্রন অশ্বিনের স্ত্রী প্রীতি সেই ভয়াবহ দুঃসময়ের বা বলা ভাল অভিজ্ঞতার কথা ব্যাখ্যা করলেন। তিনি টুইট করে লেখেন  এক সপ্তাহে ৬জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ এবং ৪ জন বাচ্চা করোনা পজিটিভ হয়। আমাদের বাচ্চারাই এই করোনা ভাইরাসের বাহক ছিল। 

শুভব্রত মুখার্জি: ভারতে করোনা পরিস্থিতি বেশ উদ্বেগজনক। মহারাষ্ট্র,  দিল্লি, পশ্চিমবঙ্গ সহ একাধিক রাজ্যের পরিস্থিতি ভয়াবহ। যতদিন যাচ্ছে তত জটিলতা বাড়ছে। বয়স্কদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে কমবয়সী বিশেষ করে বাচ্চাদের আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা। হাসপাতালে বেডের হাহাকার থেকে শুরু করে জীবনদায়ী ঔষুধ সামগ্রীর হাহাকার বড় মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাড়িয়েছে।

 

এই আবহে ভারতের বুকে ৬টি সেন্টারে আয়োজন করা হচ্ছে আইপিএলের ১৪তম সংস্করণের। প্রসঙ্গত এই বছর দিল্লির হয়ে আইপিএলে খেলছিলেন ভারতীয় জাতীয় টেস্ট দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য তথা অফস্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তিনি কয়েকদিন আগেই হঠাৎ করে ম্যাচ শেষে টুইট করে বায়ো বাবল ছাড়ার কথা জানান। তখন জানা গিয়েছিল তার পরিবারের সদস্যরা করোনা আক্রান্ত। সেই কারণেই বাধ্য হয়েই অশ্বিন এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

 

আজ সন্ধ্যায় টুইট করে রবিচন্দ্রন অশ্বিনের স্ত্রী প্রীতি সেই ভয়াবহ দুঃসময়ের বা বলা ভাল অভিজ্ঞতার কথা ব্যাখ্যা করলেন।

তিনি টুইট করে লেখেন 'এখন কিছুটা স্বাভাবিক আছি তাই আপনাদের সকলকে একবার ছোট্ট করে 'হাই' জানাচ্ছি। এক সপ্তাহে ৬জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ এবং ৪ জন বাচ্চা করোনা পজিটিভ হয়। আমাদের বাচ্চারাই এই করোনা ভাইরাসের বাহক ছিল। আমার পুরো পরিবার হয় কোন হাসপাতালে না হয় বাড়িতে ছিল। এই ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার কারণেই সকলে বন্দি রয়েছে। দুঃস্বপ্নের একটা সপ্তাহ কাটিয়েছি। আমার তিন বাবা-মা'র একজন বাড়ি ফিরেছেন।’

বন্ধ করুন