বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > টুর্নামেন্ট শুরুর আগে কেন বিরাট ক্যাপ্টেন্সি ছাড়লেন, প্রশ্ন মঞ্জরেকরের
বিরাট কোহলি ও সঞ্জয় মঞ্জরেকর 
বিরাট কোহলি ও সঞ্জয় মঞ্জরেকর 

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে কেন বিরাট ক্যাপ্টেন্সি ছাড়লেন, প্রশ্ন মঞ্জরেকরের

  • টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের নেতৃত্ব থেকে সরে যাওয়ার বিরাট কোহলির সিদ্ধান্তকে মানতে পারছেন না প্রাক্তন ক্রিকেটার সঞ্জয় মঞ্জরেকর। ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকার এ বার ভারতীয় দলের অধিনায়কের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। সঞ্জয় মঞ্জরেকরের মতে বিরাটের সিদ্ধান্ত ঘোষণার সময়টা একেবারেই ঠিক নয়।

টি টোয়েন্টি ক্রিকেটের নেতৃত্ব থেকে সরে যাওয়ার বিরাট কোহলির সিদ্ধান্তকে মানতে পারছেন না প্রাক্তন ক্রিকেটার সঞ্জয় মঞ্জরেকর। ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেটার ও ধারাভাষ্যকার এ বার ভারতীয় দলের অধিনায়কের সিদ্ধান্ত নিয়ে প্রশ্ন তুললেন। সঞ্জয় মঞ্জরেকরের মতে বিরাটের সিদ্ধান্ত ঘোষণার সময়টা একেবারেই ঠিক নয়। সিরিজ চলাকালীন বা টুর্নামেন্টের মাঝপথে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়াটা দলের পক্ষে ক্ষতিকারক হয়ে ওঠে। 

এই বিষয়ে সুনীল গাভাসকর ও মহেন্দ্র সিং ধোনির সঙ্গে তুলনা টানলেন সঞ্জয় মঞ্জরেকর। ক্রিকেটার থেকে ধারাভাষ্যকার হয়ে ওঠা মঞ্জরেকর এই বিষয় নিয়ে ইএসপিএনক্রিকইনফোতে কথা বলেন। তিনি বিরাট কোহলির বিস্ময়কর ঘোষণাকে সুনীল গাভাসকর এবং এমএস ধোনির সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। যখন তারা যথাক্রমে ১৯৮৫ ও ২০১৪ সালে তাদের অবসর নেওয়ার ঘটনার সঙ্গে বিরাটের এই দিনের ঘটনার তুলনা টানলেন মঞ্জরেকর। তিনি বলেন, চলতি সিরিজ শেষ করেই প্রত্যেক অধিনায়কের নেতৃত্ব ছাড়া উচিৎ। 

আসলে কয়েকদিন আগেই ভারতীয় দলের নেতৃত্ব থেকে সরে যেতে চেয়েছেন বিরাট কোহলি। তিনি জানিয়েছিলেন আসন্ন টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ শেষ করেই তিনি ২০ ওভারের আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের নেতৃত্ব ছাড়বেন। তাঁর এই সিদ্ধান্ত ঘোষণার কয়েকদিন পরেই ফের নেতৃত্ব ছাড়ার কথা জানালেন বিরাট। এবার তিনি বলেছেন, চলতি মরশুমের আইপিএল শেষ করে তিনি রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের নেতৃত্ব ছাড়বেন।

এরপরেই সঞ্জয় মঞ্জরেকর জানিয়েছেন, ‘১৯৮৫-৮৬ সালে সুনীল গাভাসকর যখন মিনি বিশ্বকাপ জিতেছিলেন, তখন তিনি টুর্নামেন্টের শেষ দিনে বলেছিলেন যে, 'আমার অধিনায়কত্বের শেষ দিনে আমার সতীর্থরা আমাকে একটি দারুণ উপহার দিয়েছে', তাই এটা বিস্ময়কর এবং সময়টা দারুণ ছিল তিনি পুরো টুর্নামেন্ট খেলেছিলেন এবং ফলাফলের শেষে, তার সিদ্ধান্ত জানিয়েছিলেন। সুতরাং, আমি বিশ্বাস করি যে একজন অধিনায়ক হিসাবে আপনার পুরো সিরিজটি খেলতে হবে, আপনি জয়ী হোন বা হেরে যান, সবকিছু হয়ে যাওয়ার পরে সিদ্ধান্ত নিন ... এমনকি এমএস ধোনি অস্ট্রেলিয়া সফরের সময় অধিনায়কত্ব ছেড়েছিলেন এবং এর পরেই বিরাট কোহলি দায়িত্ব নিয়েছিলেন। অধিনায়কত্বের জন্য, আমি মনে করি না এটি করার সঠিক পদ্ধতি।’

বন্ধ করুন