বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > আগামী প্রজন্ম এটা নিয়ে কথা বলবে, চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরে হার্দিক পান্ডিয়ার বড় দাবি

আগামী প্রজন্ম এটা নিয়ে কথা বলবে, চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরে হার্দিক পান্ডিয়ার বড় দাবি

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরে হার্দিক পান্ডিয়ার বড় দাবি (ছবি:পিটিআই) (PTI)

হার্দিক পান্ডিয়া বলেন, ‘ট্রফি জয়ের জন্য কোচ আশিস নেহরা, গ্যারি কার্স্টেন থেকে শুরু করে লজিস্টিক স্টাফ সবাই এতে অবদান রেখেছেন। এই শিরোপা জয়টা বিশেষ হতে চলেছে কারণ আমরা একটি উত্তরাধিকার তৈরি করেছি৷ আগামী প্রজন্ম এটা নিয়ে কথা বলবে।’

২০২২ আইপিএল-এ গুজরাট টাইটানস একটি আশ্চর্যজনক খেলা দেখিয়েছে। ফাইনাল ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসকে ৭ উইকেটে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে হার্দিক পান্ডিয়ার গুজরাট টাইটানস। ম্যাচের পর দলের অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া বড়সড় বিবৃতি দিয়েছেন। গুজরাট টাইটানস কীভাবে এই শিরোপা জিতেছে তা জানিয়েছেন তিনি।

ফাইনাল ম্যাচের পরে অধিনায়ক হার্দিক পান্ডিয়া বলেন যে আমি সঠিক সময়ে তা দেখাতে চেয়েছিলাম যার জন্য আমি কঠোর পরিশ্রম করেছি। আজ ছিল সেই দিন। আমি আমার ভালো পারফরম্যান্স সংরক্ষণ করে রেখেছিলাম। সঞ্জুকে আউট করার পর যখন আমি দ্বিতীয় বলটি করি, তখন আমি বুঝতে পেরেছিলাম যে বোলিং করার সময় আপনাকে লাইন লেন্থ ঠিক রাখতে হবে। আরও বলতে গিয়ে হার্দিক বলেন যে ব্যাটিং তার হৃদয়ের খুব কাছাকাছি। মেগা নিলামের পর এটা পরিষ্কার যে আমাকে টপ অর্ডারে ব্যাট করতে হবে।

হার্দিক পান্ডিয়া বলেন, ‘আমি এবং 'আশু পা' (কোচ আশিস নেহরা) চিন্তাভাবনার দিক থেকে একই রকম। আমরা এমন বোলার পছন্দ করি যারা নিজেরা ম্যাচ জেতাতে পারে। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ব্যাটসম্যানদের খেলা হতে পারে, কিন্তু বোলাররা আপনাকে ম্যাচ জিতিয়ে দেয়।’ তিনি বলেন, ‘ট্রফি জয়ের জন্য কোচ আশিস নেহরা, গ্যারি কার্স্টেন থেকে শুরু করে লজিস্টিক স্টাফ সবাই এতে অবদান রেখেছেন। এই শিরোপা জয়টা বিশেষ হতে চলেছে কারণ আমরা একটি উত্তরাধিকার তৈরি করেছি৷ আগামী প্রজন্ম এটা নিয়ে কথা বলবে।’

হার্দিক পান্ডিয়ার নেতৃত্বে গুজরাট টাইটানস লিগ পর্বে এবং প্লে-অফ ম্যাচে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছিল। তার অধিনায়কত্বে দল ১৬টি ম্যাচের মধ্যে ১২টিতে জিতেছে। হার্দিক পান্ডিয়া এগিয়ে গিয়ে তার দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ২০২২ সালের আইপিএলে দারুণ খেলা দেখিয়ে সবার মন জয় করেছেন হার্দিক। হার্দিক শুধুমাত্র তার অধিনায়কত্ব দিয়ে নয়, নিজের অলরাউন্ড পারফরম্যান্স দিয়েও বিরোধী দলে ভয় তৈরি করেছিলেন। রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে ফাইনাল ম্যাচে তিনি চার ওভারে ১৭ রান দিয়ে তিন উইকেট নিয়েছিলেন। একই সঙ্গে ৩৪ রানের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলেছেন। এ কারণে তিনি পেয়েছেন 'ম্যান অব দ্য ম্যাচ' পুরস্কার।

বন্ধ করুন