বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > RCB রিটেন করেনি, তবে IPL নিয়ে এখন না ভেবে বিজয় হাজারেতে সেরাটা দিতে মরিয়া চাহাল
যুজবেন্দ্র চাহাল।
যুজবেন্দ্র চাহাল।

RCB রিটেন করেনি, তবে IPL নিয়ে এখন না ভেবে বিজয় হাজারেতে সেরাটা দিতে মরিয়া চাহাল

  • আরসিবি-র হয়ে ১১৩ ম্যাচে ২২.০৩ গড়ে ১৩৯টি উইকেট নিয়েছেন চাহাল। প্রতি ওভারে ৭.৫৮ রান দিয়েছেন। তবু এই বছর আরসিবি চাহালকে রিটেন করেনি। তারা বিরাট কোহলি, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং মহম্মদ সিরাজকে রিটেন করেছেন।

সকলকে কিছুটা অবাক করেই সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দলেই রাখা হয়নি যুজবেন্দ্র চাহালকে। তাঁর জায়গায় অনভিজ্ঞ রাহুল চাহারকে অগ্রাধিকার দেওয়া হয়েছিল। তবে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলে জায়গা করে নিয়েছিলেন চাহাল। এর পরেই আবার আইপিএল মেগা-নিলামের আগে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোর (আরসিবি) তাদের সবচেয়ে সফল বোলার চাহালকে রিটেন না করলে, আরও একটি বড় ধাক্কা খান তিনি।

আরসিবি প্রসঙ্গে চাহাল বলেছেন, ‘আট বছর আরসিবি স্কোয়াডে থাকাটা অসাধারণ অভিজ্ঞতা। আমার অনেক স্মৃতি রয়েছে। আমি সেরাদের পাশে থেকে একজন ক্রিকেটার হিসাবে নিজেকে মেলে ধরতে পেরেছি।’ আরসিবি-র হয়ে ১১৩ ম্যাচে ২২.০৩ গড়ে ১৩৯টি উইকেট নিয়েছেন চাহাল। প্রতি ওভারে ৭.৫৮ রান দিয়েছেন। তবু এই বছর আরসিবি চাহালকে রিটেন করেনি। তারা বিরাট কোহলি, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল এবং মহম্মদ সিরাজকে রিটেন করেছেন।

হরিয়ানার হয়ে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো ফল করার পর, চাহালকে ২০১১ সালে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স দলে নিয়েছিল। এর পর তিনি বিরাট কোহলির নেতৃত্বে ২০১৪ সালে আরসিবি-তে যোগ দেন এবং সেই সঙ্গে সাদা বলের ক্রিকেটে ভারতের প্রধান স্পিনার হয়ে ওঠেন। ৩১ বছরের চাহাল অবশ্য বলেছেন, ‘আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারে আইপিএলের বড় ভূমিকা রয়েছে। আইপিএল ২০২২ চলেও এসেছে। তবে সেটা নিয়ে আমি এখনই বেশি কিছু ভাবছি না। আমি এখন শুধুই বিজয় হাজারে ট্রফির কথা ভাবছি। আর হরিয়ানার হয়ে সেই টুর্নামেন্টে ভালো ফল করতে চাই।’

শেষ আইপিএলে চাহাল ১৫ ম্যাচে ১৮ উইকেট নিয়েছিলেন। তবু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দলে জায়গা পাননি তিনি। চাহাল এই প্রসঙ্গে বলছিলেন, ‘বিশ্বকাপের মতো একটি মেগা-ইভেন্টে ভারতীয় দলে জায়গা না পাওয়াটা হতাশাজনক ছিল। আমি মনে করি, আইপিএল এবং শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে সিরিজে আমি ভালো করেছিলাম। তবে এটা একজন প্লেয়ারের জীবনের অংশ।’

তবে এই মুহূর্তে চাহাল সব ভুলে শুধু বিজয় হাজারে ট্রফিকে পাখির চোখ করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘আমি বিজয় হাজারে ট্রফিতে ভালো ফল করতে এবং হরিয়ানাকে শিরোপা জেতাতে চাই। আমি নেটে ভালো বোলিং করছি এবং নিজের বোলিং উপভোগও করছি। পরিশ্রমের কোন বিকল্প নেই। এক বছর পর এ বার আবার রঞ্জি ট্রফিও হতে চলেছে। আমি ঘরোয়া ক্রিকেটে খেলে নিজেকে তৈরি রাখতে চাই।’ বিজয় হাজারে ট্রফিতে দিল্লি, ঝাড়খণ্ড, সৌরাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ এবং হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে খেলবে হরিয়ানা।

বন্ধ করুন