বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2023 > Rinku and Russell: 'অন্য কেউ হলে হয়ত শেষ বলে স্ট্রাইক দিতাম না', রিঙ্কুকে বিশাল সার্টিফিকেট রাসেলের

Rinku and Russell: 'অন্য কেউ হলে হয়ত শেষ বলে স্ট্রাইক দিতাম না', রিঙ্কুকে বিশাল সার্টিফিকেট রাসেলের

পঞ্জাব কিংসের ‘কিং’ রিঙ্কু সিং এবং আন্দ্রে রাসেল। (ছবি সৌজন্যে এএফপি এবং আইপিএল)

পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে জয়ের জন্য কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) দু'বলে দু'রান বাকি ছিল। সেই অবস্থায় রান নিতে গিয়ে নন-স্ট্রাইকার এন্ডের দিকে রান-আউট হয়ে যান আন্দ্রে রাসেল। তারপর শেষ বলে চার মেরে কেকেআরকে জেতান রিঙ্কু সিং।

অন্য কেউ হলে সম্ভবত শেষ বলে তাঁকে স্ট্রাইক দিতেন না। ম্যাচ জেতানোর জন্য স্রেফ নিজের উপর আস্থা রাখতেন। কিন্তু রিঙ্কু সিংয়ের উপর তাঁর এতটাই আস্থা তৈরি হয়ে গিয়েছে যে শেষ বলে সেই অভাবনীয় কাজটা করতে একবারও বুক কাঁপেনি আন্দ্রে রাসেলের। নিজে যে অফ-স্ট্রাইকে চলে যাচ্ছেন, সেই বিষয়টির ছিঁটেফোটা পরোয়া করেননি। যে কথা ম্যাচের শেষে নিজে মুখেই স্বীকার করলেন কলকাতা নাইট রাইডার্সের (কেকেআর) তারকা। তবে ব্যাটে না লাগা সত্ত্বেও ২০ তম ওভারের পঞ্চম বলে রান নেওয়ার সেই পরিকল্পনা সফল হয়নি। কারণ রান-আউট হয়ে যান রাসেল। তাতে অবশ্য আক্ষেপ করতে হয়নি ক্যারিবিয়ান তারকাকে। শেষ বলে চার মেরে কেকেআরকে জিতিয়ে দেন রিঙ্কু।

কী হয়েছিল বিষয়টা?

সোমবার ইডেন গার্ডেন্সে পঞ্জাব কিংসের বিরুদ্ধে জয়ের জন্য শেষ দুই বলে দুই রান দরকার ছিল কেকেআরের। স্ট্রাইকে ছিলেন রাসেল। কিন্তু পঞ্চম বলে অফস্টাম্পের বাইরে আর্শদীপ সিং যে ওয়াইড ইয়র্কার করেন, তাতে ব্যাট ঠেকাতে পারেননি ক্যারিবিয়ান তারকা। সেই পরিস্থিতিতে বাই হিসেবে এক রান ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন রিঙ্কু। সেক্ষেত্রে দু'দলের স্কোর সমান হয়ে যেত। কিন্তু রিঙ্কুর সেই পরিকল্পনা সফল হয়নি। স্ট্রাইকার এন্ডে তিনি ক্রিজে পৌঁছে গেলেও দেরিতে দৌড় শুরু করায় সময়মতো নন-স্ট্রাইকার এন্ডে পৌঁছাতে পারেননি রাসেল। রান-আউট হয়ে যান ক্যারিবিয়ান তারকা। তারপর শেষ বলে চার মেরে কেকেআরকে পাঁচ উইকেটে জিতিয়ে নেন রিঙ্কু। কেকেআরকে আইপিএলে টিকিয়ে রাখেন।

আরও পড়ুন: KKR vs PBKS: ‘আরও বেশি লোক আমায় চিনবেন’, ফের শেষ বলে KKR-কে জিতিয়ে ট্রোলিংয়ের জবাব রিঙ্কুর

ম্যাচের পর সাংবাদিক বৈঠকে রাসেল জানান, অন্য কারও সঙ্গে ব্যাট করলে রান-আউটই হতেন না। কারণ ওই পরিস্থিতিতে স্ট্রাইক হাতছাড়া করতেন না। রিঙ্কুর উপর এতটাই আস্থা আছে যে তাঁকে ম্যাচ জেতানোর সুযোগ করে দিতে কুণ্ঠাবোধ করেননি। রাসেলের কথায়, 'অন্য কোনও ম্যাচে, (ক্রিজের অপরপ্রান্তে) অন্য কোনও ব্যাটার থাকলে, আমি দৌড়াতাম কিনা, সেটা নিয়ে আমি নিশ্চিত নই। আমি ওরকম কাজ আগে কখনও করিনি। শেষ বলটা খেলার জন্য এবং দলকে ম্যাচ জেতানোর জন্য (স্রেফ) নিজের উপর আস্থা রাখতাম। কিন্তু ক্রিজের অপরপ্রান্তে যখন রিঙ্কু সিংয়ের মতো খেলোয়াড় থাকে, (তখন আমি শেষ বলে অফ-স্ট্রাইকে থাকার বিষয়টা দু'বার ভাবি না)।'

আরও পড়ুন: KKR vs PBKS: ‘এবার KKR-র ১ জন ফিনিশার আছে– রিঙ্কু’, নিজে ম্যাচের সেরা হয়েও পার্টনারে মজে রাসেল

বিশ্বের তাবড়-তাবড় তারকাদের সঙ্গে খেলার পরও কেন রিঙ্কুর উপর এতটা আস্থা তৈরি হয়েছে, সেই ব্যাখ্যাও দেন রাসেল। তিনি বলেন, ‘শেষ কয়েকটি ওভারে ও অত্যন্ত সাফল্য পেয়েছে। ও ভয়ডরহীন খেলোয়াড়। যেখানেই বল আসুক না কেন, ওর হাতে সেই বলটা খেলার মতো শট আছে। আমি একেবারে নিশ্চিত ছিলাম যে (ও জিতিয়ে দেবে)। আমি ওকে জড়িয়ে ধরেছিলাম এবং বলেছিলাম যে জিতে আস। কারণ দিনের শেষ ঠিক আছে তুমি থাকাটা দরকারি। ও বলেছিল যে বিগ ম্যান, কোনও চিন্তা কর না।’

(IPL 2023: আইপিএল সংক্রান্ত যাবতীয় টাটকা খবর ও আপডেটের জন্য হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার স্পেশাল পেজে - ক্লিক করুন এখানে, তাহলেই প্রবেশ করবেন আইপিএলের দুনিয়ায়)

(এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup)

বন্ধ করুন