বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2021 > আইপিএল ২০২১-এর জৈব সুরক্ষা বলয় নিয়ে বোমা ফাটালেন ঋদ্ধিমান
সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অনুশীলনে ঋদ্ধিমান সাহা (ছবি: গুগল)
সানরাইজার্স হায়দরাবাদের অনুশীলনে ঋদ্ধিমান সাহা (ছবি: গুগল)

আইপিএল ২০২১-এর জৈব সুরক্ষা বলয় নিয়ে বোমা ফাটালেন ঋদ্ধিমান

  • ঋদ্ধিমান সাহার কথায়, করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ-এর মাঝে দেশের মাটিতে টুর্নামেন্ট না হলেই ভাল হত। তাঁর বিশ্বাস, গতবারের মতো এবারও সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আইপিএল হলে, তা ঝুঁকিহীন হত না।

আইপিএল ২০২১-এর জৈব সুরক্ষা বলয় নিয়ে মুখ খুললেন ঋদ্ধিমান সাহা। তিনি জানালেন টুর্নামেন্ট ভারতে না হলেই ভাল হত। ভারতে আইপিএল ২০২১ পরিচালনার জন্য বিসিসিআইয়ের তৈরি করা জৈব সুরক্ষা বলয়ে যে ফাঁক ছিল, তা স্বীকার করে নিলেন ঋদ্ধিমান সাহা। তাঁর কথায়, করোনা ভাইরাসের তুমুল স্রোতের মধ্যে দেশের মাটিতে টুর্নামেন্ট না হলেই ভাল হত। তাঁর বিশ্বাস, গতবারের মতো এবারও সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আইপিএল হলে, তা ঝুঁকিহীন হত না।

ঋদ্ধিমান সাহা জানান, ‘পর্যবেক্ষণ করাটা হল স্টেক হোল্ডারদের কাজ, একটা কথা আমি বলতে চাই, আমিরশাহিতে কোনও বাইরের লোক আমাদের অনুশীলনে প্রবেশ করতে পারেনি, এমনকি কোনও গ্রাউন্ড স্টাফও নন, এখানে সব সময় লোক থাকত, আশে পাশের দেওয়াল থেকে বাচ্চারা উঁকি মারত।’

করোনা ভাইরাসের কারণেই ২০২০ সালের আইপিএল ভারত থেকে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানকার জৈব সুরক্ষা আরও বেশি আঁটোসাঁটো ছিল বলে কোনও রাখঢাক না করেই দাবি করেছেন ঋদ্ধিমান সাহা। বলেছেন, অনুশীলন করতে গিয়ে কিংবা ম্যাচ চলাকালীন ক্রিকেটার-সাপোর্ট স্টাফরা তো বটেই, মাঠ কর্মীরাও সম্পূর্ণ সুরক্ষিত ছিলেন। সে কারণে টুর্নামেন্ট চলাকালীন কোনও ব্যক্তির কোভিড ১৯ রিপোর্ট পজিটিভ আসেনি।

সানরাইজার্স হায়দরাবাদ শিবিরে অনুশীলন চলাকালীন অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন ঋদ্ধিমান সাহা। দুটি নেগেটিভের পর ভারতীয় ক্রিকেটারের কোভিড ১৯ রিপোর্ট পজিটিভ এসেছিল। তাঁর পাশাপাশি অন্যান্য দলের একাধিক ক্রিকেটার ও সাপোর্ট স্টাফ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ায় আইপিএল অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করে দিতে বাধ্য হয়েছিল বিসিসিআই। সেই দুঃসহ অভিজ্ঞতার কথা আজীবন মনে রাখবেন ঋদ্ধিমান। 

ঋদ্ধিমান সাহা জানান, ‘আমি কোনও মন্তব্য করতে চাইনা কিন্তু আমরা দেখেছি যে ২০২০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে আইপিএল সুষ্টভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছিল এবং এই বছর ভারতে আসার পরেই সংক্রমে’

বন্ধ করুন