বাংলা নিউজ > ময়দান > আইপিএল-2022 > IPL-এর নিলামে নাম ডাকছে না, হতাশায় ঘুমিয়েই পড়েছিলেন কোটি টাকার গুজরাটের পেসার
যশ দয়াল।

IPL-এর নিলামে নাম ডাকছে না, হতাশায় ঘুমিয়েই পড়েছিলেন কোটি টাকার গুজরাটের পেসার

  • ২০ লক্ষ টাকা বেস প্রাইসের যশ দয়ালের দিকে নজর ছিল গুজরাট টাইটানসের। ১৬ গুণ বেশি দাম দিয়ে ৩.২০ কোটি টাকায় তাঁকে কেনে আমদাবাদের টিম। যশ নিজেও স্বপ্নে ভাবেননি আইপিএল নিলাম থেকে তাঁকে এত বেশি টাকায় কেনা হবে।

২০২২ আইপিএলের মেগা নিলামের পর একাধিক অনামী ক্রিকেটার মুহূর্তে কোটিপতি হয়ে গিয়েছেন। সেই দলেই রয়েছেন উত্তরপ্রদেশের বাঁহাতি জোরে বোলার যশ দয়াল। তিনিও এখন কোটিপতি। ২০ লক্ষ টাকা বেস প্রাইসের এই ক্রিকেটারের দিকে নজর ছিল গুজরাট টাইটানসের। ১৬ গুণ বেশি দাম দিয়ে ৩.২০ কোটি টাকায় তাঁকে কেনে আমদাবাদের টিম। যশ নিজেও স্বপ্নে ভাবেননি আইপিএল নিলাম থেকে তাঁকে এত বেশি টাকায় কেনা হবে।

এই মুহূর্তে যশ গুরুগ্রামে রঞ্জি ট্রফি নিয়ে ব্যস্ত। উত্তরপ্রদেশ টিমের সঙ্গে হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন তিনি। যে কারণে যশ নিজের হোটেলের রুমে বসে আইপিএলের নিলাম দেখছিলেন। তাঁর নাম আর কিছুতেই আসছে না দেখে তিনি টিভি বন্ধ করে ঘুমিয়ে পড়েন। পাশাপাশি নিজের মোবাইল ফোনও সাইলেন্ট করে দেন। যখন ঘুম ভাঙে, তখন দেখেন ফোনে বন্ধু ও পরিবারের সদস্যদের অসংখ্য মিসড কল। মেসেজও ঢুকেছে প্রচুর। তাঁর ফোনে বাবা চন্দ্রপাল সিং-এর ২০ টা মিসড কল ছিল। বাবার অতগুলো মিসড কল দেখে সবার আগে বাবাকেই কলব্যাক করেন যশ দয়াল। তখন তাঁর বাবা সুখবরটা দেন। বড় অঙ্কের বিনিময়ে গুজরাট টাইটানস তাঁকে যে কিনে নিয়েছে, সে কথা জানতে পারেন তরুণ ক্রিকেটার।

উল্টোদিকে যশের বাবা চন্দ্রপাল ফোন করে করে ছেলেকে না পেয়ে চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলেন। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন, ‘ছেলে ফোন না ধরায় আমরা চিন্তায় পড়ে গিয়েছিলাম। আমি যখন ওকে নিলামের বিষয়ে বলি, তখন ও ভেবেছিল আমি বোধহয় ওর সঙ্গে মজা করছি। দলের কোনও ক্রিকেটার ওঁর ঘরে যেতে পারেনি। কারণ করোনা প্রটোকলে হোটেলের এক ঘর থেকে অন্য ঘরে যাওয়ায় মানা ৷’

বন্ধ করুন