বাড়ি > ময়দান > 'মিথ্যা অভিযোগ ও সাজানো বিচারে' তারকা কুস্তিগিরের ফাঁসি, ইরানকে বয়কটের ডাক ক্রীড়া বিশ্বের
নাভিদ আফকারি। ছবি- সোশ্যাল মিডিয়া।
নাভিদ আফকারি। ছবি- সোশ্যাল মিডিয়া।

'মিথ্যা অভিযোগ ও সাজানো বিচারে' তারকা কুস্তিগিরের ফাঁসি, ইরানকে বয়কটের ডাক ক্রীড়া বিশ্বের

  • সরকার বিরোধী বিক্ষোভে সামিল হওয়ায় মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হল ২৭ বছর বয়সী নাভিদ আফকারিকে, এমনটাই দাবি উঠছে ওদেশের ক্রীড়ামহলে।

রাস্তায় নেমে সরকারের বিরোধীতা করার শাস্তি পেলেন ইরানের জাতীয় চ্যাম্পিয়ন কুস্তিগির নাভিদ আফকারি! শনিবার ২৭ বছর বয়সী ক্রীড়াবিদকে গোপনে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছে ইরান সরকার। নাভিদের বিরুদ্ধে এক নিরাপত্তারক্ষীকে খুনের অভিযোগ আনা হলেও সত্যিটা যে কী, তা এতদিনে স্পষ্ট।

দুর্নীতির বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে ২০১৮ সালে সরকার বিরোধী বিক্ষোভে অংশ নিয়েছিলেন নাভিদ। তাতেই চটে ইরান সরকার। উচিত শিক্ষা দিতে তারকা কুস্তিগীড়কে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসানো হয়। সেবছরই ২ অগস্ট এক সরকারি নিরাপত্তরক্ষীকে নাভিদ ছুরি মেরে খুন করেছেন বলে অভিযোগ আনা হয়। সেই অভিযোগেই ১৭ সেপ্টেম্বর গ্রেফতার করা হয় নাভিদকে।

যদিও তার আগেই তাঁকে আটক করে পুলিশ। জেলে অকথ্য অত্যাচার চালিয়ে খুনের ভুয়ো স্বীকারোক্তি আদায় করে ইরান সরকার। পরে সাজানো বিচারে ফাঁসির সাজা ঘোষণা করা হয় তারকা অ্যাথলিটের। যদিও খুনের স্বপক্ষে কোনও তথ্য প্রমাণ দিতে পারেনি সরকার। রীতিমতো স্বৈরাচারী নীতিতেই রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসে খুন করা হয় নাভিদকে, এমনটাই দাবি উঠছে ইরানের ক্রীড়ামহলে।

২০১৮-র সেপ্টেম্বরেই স্বীকারোক্তি আদায়ের জন্য জেলে নাভিদের উপর অত্যাচারের একটি অডিও টেপ ফাঁস হয়ে যায় সংবাদমাধ্যমে। তার পর থেকেই তারকা কুস্তিগিরের মুক্তির দাবিতে উত্তাল হয় আন্তর্জাতিক ক্রীড়ামহল।

নাভিদের ফাঁসির সাজা রদ করার জন্য ইরান সরকারকে অনুরোধ জানিয়েছিলেন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক সংস্থার প্রধান থমাস বাখ। এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পও নাভিদকে মুক্তি দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছিলেন ইরান সরকারকে। প্রায় এক লক্ষ অ্যাথলিট খোলা চিঠিতে নাভিদের মুক্তির দাবি জানিয়েছিলেন। তবে ইরান সরকার কোনও কিছুতেই কান দেয়নি। শনিবার বিজ্ঞপ্তি জারি করে নাভিদকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়ার কথা জানানো হয় ইরান সরকারের তরফে।

নাভিদের ফাঁসির খবর সামনে আসার পর থেকেই ক্ষোভে ফুঁসছে ওয়ার্ল্ড প্লেয়ার্স ইউনিয়ন। আন্তর্জাতিক অলিম্পিক সংস্থার তরফেও সোশ্যাল মিডিয়ায় ধিক্কার জানানো হয়েছে ঘটনার। সব রকম খেলাধুলোর আসর থেকে ইরানকে বয়কটের দাবি উঠতে শুরু করেছে ইতিমধ্যেই।

উল্লেখ্য, নাভিদের দুই ভাইকেও দেশদ্রোহিতার অভিযোগে শাস্তি দেওয়া হয়েছে। একজনের ৫৬ বছর ৬ মাস ও অন্যজনের ২৪ বছর ৩ মাসের জেল হয়েছে।

বন্ধ করুন