বাংলা নিউজ > ময়দান > মাত্র ২০০ টাকার জন্য ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ছাড়তে হয়েছিল ইরফানকে
একদা ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ত্যাগ করতে হয়েছিল ইরফানকে।
একদা ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ত্যাগ করতে হয়েছিল ইরফানকে।

মাত্র ২০০ টাকার জন্য ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ছাড়তে হয়েছিল ইরফানকে

  • জয়পুর থেকে আজমেড়ে যাওয়ার পয়সা ছিল না। BCCI টুর্নামেন্টে নির্বাচিত হয়েও মাঠে নামা হয়নি প্রয়াত অভিনেতার।

ক্রিকেট তার মুকুট থেকে যে বহুমূল্য রত্ন খুলে দিয়েছিল অভিনয় জগতকে, তাই তারকা হয়ে নিজের স্বতন্ত্র উপস্থিতি জানান দিচ্ছিল বলিউডে। ক্রিকেট ইরফানকে, বরং বলা ভালো ইরফান খান ক্রিকেটকে আলবিদা না জানালে হয়ত হিন্দি থেকে আংরেজি মিডিয়ামে লাইফ অফ পাই-এ উঁকি দেওয়া হতো না কোটি কোটি ভারতবাসীর।

অনেকেরই জানা নেই, অভিনয় জগতে পা দেওয়ার আগে ইরফান খান স্বপ্ন দেখতেন ক্রিকেটার হওয়ার। নেহাৎ ছেলেবেলার গলি ক্রিকেটে নয়, বরং বিসিসিআইয়ের ঐতিহ্যশালী ঘরোয়া টুর্নামেন্ট কর্ণেল সিকে নাইডু ট্রফিতে রাজস্থানের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করার সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। তবে ভাগ্য সঙ্গ দেয়নি। নিতান্ত টাকার অভাবেই ক্রিকেটার হয়ে ওঠা হয়নি ইরফানের।

দেশের জার্সি গায়ে ব্যাট হাতে মাঠে নামতে না পারলেও আন্তর্জাতিক মঞ্চে ভারতের পতাকা তুলে ধরার স্বপ্ন ইরফান পূরণ করেছিলেন একাধিক হলিউড ছবিতে সাফল্যের সঙ্গে অভিনয় করে।

২০১৭ সালে জনপ্রিয় চ্যাট শো 'সন অফ আবিশ'-এর মঞ্চে ইরফান সঞ্চালক তথা কৌতুক শিল্পী আবিশ ম্যাথিউকে জানান, মাত্র ২০০-২৫০ টাকার জন্য তাঁকে ক্রিকেটার হওয়ার স্বপ্ন ছাড়তে হয়েছিল। তিনি এও জানিয়েছিলেন যে, ক্রিকেটটা নেহাৎ খারাপ খেলতেন না। খারাপ যে খেলতেন না, তা সর্বভারতীয় টুর্নামেন্টের জন্য নির্বাচিত হওয়াই প্রমাণ করে।

ইরফান জানিয়েছিলেন তিনি অল-রাউন্ডার হলেও ব্যাটিংটাই বেশি পছন্দ করতেন। আবার ক্যাপ্টেনের পছন্দ ছিল তাঁর বোলিং। তাঁর কথায়, 'ক্যাপ্টেনের আমার বোলিং পছন্দ ছিল। তাই ও আমাকে বোলার বানিয়ে দিয়েছিল। আমি জানি না কেন, ক্যাপ্টেন আমাকে বলত আমার জন্য কয়েকটা বল ছুঁড়ে দে। সেই মতো হাত ঘোরাতে অভ্যস্থ ছিলাম। তবে তাতেই মাঝে মাঝে গোটা দু'য়েক উইকেট চলে আসত।'

ইরফান আরও বলেছিলেন, 'আমি সিকে নাইডুর জন্য নির্বাচিত হয়েছিলাম। আমার পরিবার খেলাধুলো নিয়ে কখনই উৎসাহিত করত না আমাকে। সুতরাং মিথ্যা বলে খেলে চলে আসাও সম্ভব হতো না। যখন নির্বাচিত হই, দলের সঙ্গে জয়পুর থেকে আজমেড়ে যেতে হতো আমাকে। আমার ২০০-২৫০ টাকা দরকার ছিল। আমি সেটা জোগাড় করতে পারিনি। সেদিনই আমি বুঝতে পারি ক্রিকেটটা আমার জন্য নয়।'

বন্ধ করুন