বাংলা নিউজ > ময়দান > Ranji-র ফাইনালে শতরানের পর সরফরাজের জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া নিয়ে সরব প্রাক্তনীরা
সরফরাজ খান।

Ranji-র ফাইনালে শতরানের পর সরফরাজের জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়া নিয়ে সরব প্রাক্তনীরা

  • রঞ্জিতে পরপর দু' মরশুমে ৯০০-র উপর রান করে ফেলেছেন। প্রসঙ্গত, ২০২০-২১ করোনার কারণে রঞ্জি হয়নি। আর বৃহস্পতিবার মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে সেঞ্চুরি করার পর সরফরাজকে ভারতীয় দলে সুযোগ দেওয়া নিয়ে সরব হয়েছেন ভারতের প্রাক্তনীরা।

কোচ রাহুল দ্রাবিড় স্পষ্ট বলে দিয়েছেন, ভারতীয় দলে একটি জায়গার জন্য এত বেশি প্রতিযোগী রয়েছে যে, সেরা পারফরম্যান্স করেই দলে ঢুকত হবে। মুম্বইয়ের ব্যাটসম্যান সরফরাজ খান অবশ্যই সেটা করে চলেছেন। ঘরোয়া ক্রিকেটে দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন তিনি। রঞ্জির পরপর দু' মরশুমে ৯০০-র উপর রান করে ফেলেছেন। প্রসঙ্গত, ২০২০-২১ করোনার কারণে রঞ্জি হয়নি। বৃহস্পতিবার রঞ্জি ট্রফির ফাইনালে সেঞ্চুরি করার পর সরফরাজকে ভারতীয় দলে সুযোগ দেওয়া নিয়ে সরব হয়েছেন ভারতের প্রাক্তনীরা।

দিলীপ বেঙ্গসরকার:

আমি বিশ্বাস করি যে ও ওর কেরিয়ারের শীর্ষে রয়েছে এবং ও দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছে। বছরের পর বছর রান করে চলেছে। বিশেষ করে রঞ্জি ফাইনালে সেঞ্চুরি পাওয়া, ওর ইনিংসের প্রথম পর্বে ও যে ভাবে দায়িত্ব নিয়ে খেলেছে, তা দুর্দান্ত ছিল। ও অসাধারণ ভাবে মধ্যপ্রদেশের বোলারদের খেলেছে। এবং ঠাণ্ডা মাথায় একটি খুব গুরুত্বপূর্ণ সেঞ্চুরি করেছে। রঞ্জি বা দলীপ ট্রফির ফাইনালে সেঞ্চুরি করা, এটা ভালো লক্ষণ। এটা একজন ভালো খেলোয়াড়ের বৈশিষ্ট্য। মনে হয়, ভারতের ‘এ’ দল থেকে শুরু করে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি দলে ওকে অন্তর্ভুক্ত করা যেতে পারে। এবং অবশ্যই টেস্ট দলের সংক্ষিপ্ত তালিকায় ওর নাম থাকা উচিত।

মদন লাল:

এটি একটি দুর্দান্ত ইনিংস ছিল। অনেক বড় খেলোয়াড় আছেন, যারা ফাইনালে সেঞ্চুরি পাননি। আপনি সারা বছর দুরন্ত খেলেন এবং যদি আপনি ফাইনালেও সেঞ্চুরি পান, তবে তা দুর্দান্ত। আমি জানি না কোন জায়গায় (সরাসরি টেস্টে) ওরা ওকে সুযোগ দেবে। নিশ্চয়ই এমন লোকদের বাদ দেওয়া যাবে না, যারা ইতিমধ্যেই ভালো করছে। জায়গা হলে নির্বাচকরা কিন্তু সরফরাজের কথা ভেবে দেখতে পারেন। ইন্ডিয়া ‘এ’ দলের আসন্ন সফরগুলোতে অবশ্যই ওকে সুযোগ দিয়ে প্রস্তুত করা উচিত। যখনই সিনিয়র দলে ও জায়গা পাবে, তখন প্রস্তুত থাকবে। এটাই হল প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে খেলোয়াড়দের আত্মবিশ্বাস দেওয়া যে, ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো করলে, জাতীয় দলে নির্বাচিত হওয়া যায়।

আরও পড়ুন: জাতীয় দলে ডাক পাননি, শতরানের পর কেঁদে ভাসালেন সরফরাজ- ভিডিয়ো

আরও পড়ুন: বাংলার ব্যাটারদের ভুলটা করেননি সরফরাজ, তাঁর শতরানে স্বস্তিতে মুম্বই

কিরণ মোর

চাপের মধ্যে এবং ফাইনালে... কেউ যদি ফাইনালে সেঞ্চুরি করে, তার মানে সেই প্লেয়ার আমার কাছে একজন চ্যাম্পিয়ন খেলোয়াড়। এটা খুব পরিষ্কার যে, ও ওর মনের কথা পুরোপুরি জানে। কারণ ও ওর ইনিংসকে সুপার ইনিংস তৈরি করেছে। টেস্ট ক্রিকেট খেলতে হলে ইনিংস কী ভাবে গড়তে হয়, তা জানা উচিতয আর ও দেখিয়ে দিয়েছে ওর ক্লাস। টেস্ট দলে সুযোগ পাওয়ার দিক থেকে ও অন্যান্য খেলোয়াড়দের চেয়ে এগিয়েই রয়েছে। আমার কাছে এটা ভারতীয় ক্রিকেটের জন্য দুর্দান্ত লক্ষণ।

ভারতের ‘এ’ দলও একটি খুব শক্তশালি প্ল্যাটফর্ম। এই মুহূর্তে যে দলটি পরের টেস্ট খেলতে যাচ্ছে, সেটা পরিপূর্ণ। ভারতীয় ‘এ’ দল সত্যিই টেস্ট ক্রিকেটের জন্য প্রস্তুত হতে সাহায্য করে। আগে, আমরা দলের অংশ ছিলাম এবং সফরে সাইড গেম খেলতাম। আমি ১৯৮৩ সালে সুযোগ পাই, ১৯৮৬ সালে আমার অভিষেক হয়। তাই যখন আমার অভিষেক হয়, তখন এটি বেশ সাহায্য করেছিল। আমার অভিজ্ঞতা ছিল দুই-তিন ট্যুরের।

বন্ধ করুন