বাংলা নিউজ > ময়দান > ISL 2020-21: নয়া বছরেও লাল-হলুদে একই ছবি, ইনভেস্টরের সঙ্গে ঝামেলায় অনিশ্চিত ব্রাইটের ভবিষ্যৎ
ব্রাইট এনোবাখারে। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
ব্রাইট এনোবাখারে। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

ISL 2020-21: নয়া বছরেও লাল-হলুদে একই ছবি, ইনভেস্টরের সঙ্গে ঝামেলায় অনিশ্চিত ব্রাইটের ভবিষ্যৎ

  • ব্রাইটের সঙ্গে খসড়া চুক্তি অনুযায়ী ভারতে খেললে আগামী তিন বছর এসসি ইস্টবেঙ্গলেই খেলবেন তিনি।

শুভব্রত মুখার্জি

কলকাতা ময়দানের 'পুরনো রোগে' কি ফের আক্রান্ত এসসি ইস্টবেঙ্গল? পরপর দু'মরশুমে লাল-হলুদ শিবিরে এসেছে দুই বিনিয়োগকারী। কোয়েসের সঙ্গে ঝামেলা এতটা বাজে জায়গায় পৌঁছায় যে তাদের সঙ্গে সম্পর্ক বেশিদিন টেকেনি। এরপরে দীর্ঘ টানাপোড়েনের পরে ইনভেস্টর শ্রী সিমেন্টের হাত ধরে এই বছর আইএসএলে অভিষেক ঘটে এসসি ইস্টবেঙ্গলের। ২০২০ সালটা তাদের খারাপ গেলেও ২০২১ সালে তাদের শুরুটা ভাল হয়েছে। তবে সবকিছু ঠিক হয়েই যেন হতে চাইছে না লাল-হলুদ শিবিরে। ইনভেস্টরের সাথে ক্লাব ম্যানেজমেন্টের একটা সম্পর্কের উত্তেজনার চোরাস্রোত বয়ে যাচ্ছে এখনও। তা আর একবার প্রকাশ্যে চলে এল ব্রাইট এনোবাখারেকে এটিকে-মোহনবাগানের ‘প্রস্তাব’ দেওয়ার পরেই।

ভারতে এসে এসসি ইস্টবেঙ্গলের জার্সিতে অভিষেক ম্যাচেই নজর কেড়েছেন ব্রাইট এনোবাখারে। ব্রাইট তাঁর জাত চিনিয়ে দেন প্রথম ম্যাচেই। মাঝমাঠ থেকে একাই চারজন ডিফেন্ডার ও গোলকিপারকে কাটিয়ে এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে বিশ্বমানের গোল করেছিলেন।এসসি ইস্টবেঙ্গল ম্যানেজমেন্ট জানে, ব্রাইটের সঙ্গে খসড়া চুক্তি অনুযায়ী ভারতে খেললে আগামী তিন বছর এসসি ইস্টবেঙ্গলেই খেলবেন তিনি।

সমস্যা বেধেছে অন্য জায়গায়। শ্রী সিমেন্টের সঙ্গে এসসি ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের চূড়ান্ত চুক্তিপত্র সই হয়নি। ফলে কোনও ফুটবলারের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি করার জায়গায় নেই ক্লাব বা কোম্পানি কেউই। কারণ কোয়েসের সঙ্গে ক্লাবের বিচ্ছেদের সময় কোলাদোর মতো একাধিক ফুটবলারের সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি থাকায় সমস্যাতেই পড়েছিল তারা। সেই ভুল থেকে শিক্ষা নিয়েই ধীরে চল নীতি নিয়েছেন শ্রী সিমেন্ট কর্তৃপক্ষ। আইনি জটিলতাকে বাঁচাতে গিয়ে ব্রাইটের সঙ্গে এসসি ইস্টবেঙ্গলের দীর্ঘমেয়াদী চুক্তি হওয়া নিয়ে যে পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তার সুযোগ নিতে চাইছে এটিকে-মোহনবাগান-সহ একাধিক আইএসএল ক্লাব।

বন্ধ করুন