বাড়ি > ময়দান > ISL: আয়োজক সংস্থার কাছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি কমানোর আর্জি আইএসএল দলগুলির
আইএসএল ট্রফি। ছবি- আইএসএল।
আইএসএল ট্রফি। ছবি- আইএসএল।

ISL: আয়োজক সংস্থার কাছে ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি কমানোর আর্জি আইএসএল দলগুলির

  • করোনা মহামারির জন্য বিপুল ক্ষতির মুখে পড়ার আশঙ্কা ফ্র্যাঞ্চাইজিদের।

করোনা মহামারির কথা মাথায় রেখে আইএসএলের আয়োজক সংস্থা ফুটবল স্পোর্টস ডেভেলপমেন্ট লিমিটেড বা এফএসডিএল-এর কাছে যুক্তিযুক্ত দাবি জানাল ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলি। আসন্ন মরশুমের জন্য তাদের ফ্র্যাঞ্চইজি ফি কমানোর আর্জি পেশ করা হয় দলগুলির তরফে। এফএসডিএল যদি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের প্রস্তাব মেনে নেয়, তবে নতুন মরশুমে ক্ষতির বোঝা কমতে পারে দলগুলির।

দু-একটা দল ছাড়া ইন্ডিয়ান সুপার লিগের বেশিরভাগ ফ্র্যাঞ্চাইজিরই প্রতি মরশুমে প্রায় ৩০ কোটি টাকার মতো ক্ষতি হয়ে থাকে। তার উপর আসন্ন মরশুমে খেলা হবে রুদ্ধদ্বার স্টেডিয়ামে যে কোনও একটি রাজ্যে। যার অর্থ, টিকিট বিক্রি বাবদ কোনও টাকা হাতে আসবে না ফ্র্যাঞ্চইজিদের। তাছাড়া হোম ম্যাচ বলে কিছু থাকবে না অন্য শহরে খেলতে হলে। তাই স্টেডিয়ামে বিজ্ঞাপন বা অন্যান্য ব্র্যান্ডিং থেকেও টাকা পাবে না দলগুলি।

গোয়ায় যদি আইএসএল অনুষ্ঠিত হয়, এক শহর থেকে অন্য শহরে যাতায়াতের খরচ কমতে পারে বটে। তবে একই হোটেলে প্রায় ৬ মাস থাকার খরচও নেহাৎ কম নয়।

ফ্র্যাঞ্চাইজিদের মূল আয় টুর্নামেন্টের লভ্যাংশ থেকে তাদের জন্য বরাদ্দ অর্থ, যা প্রায় ১৩ কোটি টাকার মতো। তবে কার্যত সমপরিমাণ বা তারও বেশি অর্থ তাদের এফএসডিএলকে দিতে হয় ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি বাবদ।

এই অবস্থায় দলগুলির টুর্নামেন্টে অংশ গ্রহণের জন্য মাশুল কমানোর দাবি নেহাৎ অমূলক নয়। বিশেষ করে মহামারির জন্য মন্দায় স্পনসরদের উপরেও আর্থিক চাপ রয়েছে বিস্তর। এফএসডিএল এই নিয়ে অগস্টেই নিজেদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিতে পারে।

বন্ধ করুন