বাংলা নিউজ > ময়দান > নিঃশব্দ নজির: একযোগে পন্টিং ও স্টিভ ওয়াকে টপকে গেলেন অ্যান্ডারসন, সামনে শুধু সচিন
সচিন তেন্ডুলকর ও জেমস অ্যান্ডারসন। ছবি- রয়টার্স/আইসিসি।
সচিন তেন্ডুলকর ও জেমস অ্যান্ডারসন। ছবি- রয়টার্স/আইসিসি।

নিঃশব্দ নজির: একযোগে পন্টিং ও স্টিভ ওয়াকে টপকে গেলেন অ্যান্ডারসন, সামনে শুধু সচিন

  • সিডনি টেস্টে মাঠে নামা মাত্রই নিঃশব্দে ইতিহাস গড়লেন ইংল্যান্ডের তারকা পেসার।

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি হওয়ার নজির বেশ কিছুদিন আগেই গড়ে ফেলেছেন জেমস অ্যান্ডারসন। টেস্ট ক্রিকেটে সব থেকে বেশি উইকেট নেওয়া পেসার তিনি। তবে বুধবার নিঃশব্দেই দুর্দান্ত একটি সর্বকালীন নজির গড়ে ফেললেন জিমি। বলাবাহুল্য, আধুনিক ক্রিকেটে এমন নজির ছুঁতে হলে অবিশ্বাস্য প্রতিভা হিসেবে চিহ্নিত হতে হবে নিশ্চিত। তার থেকেও বড় কথা, একজন পেসারের পক্ষে চোট-আঘাত এড়িয়ে এমন রেকর্ড গড়া কার্যত অসম্ভবের সমান।

আসলে সিডনি টেস্টে মাঠে নামা মাত্রই সব থেকে বেশি টেস্ট ম্যাচ খেলা ক্রিকেটারদের তালিকায় দুই নম্বরে উঠে এলেন অ্যান্ডারসন। তিনি একযোগে টপকে গেলেন স্টিভ ওয়া ও রিকি পন্টিংকে। সামনে শুধু সচিন তেন্ডুলকর।

চলতি অ্যাসেজ সিরিজের চতুর্থ টেস্টটি অ্যান্ডারসনের কেরিয়ারের ১৬৯ নম্বর টেস্ট ম্যাচ। পন্টিং ও স্টিভ উভয়েই বর্ণোজ্জ্বল কেরিয়ারে মোট ১৬৮টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন। যদিও সচিনকে ছুঁতে এখনও দীর্ঘ পথ হাঁটতে হবে জিমিকে। কেননা তেন্ডুলকর ইতিহাসের একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে ২০০টি টেস্ট ম্যাচ খেলার বিশ্বরেকর্ড নিজের দখলে রেখেছেন।

পেসার অল-রাউন্ডার জ্যাক কালিস এই তালিকায় পাঁচ নম্বরে রয়েছেন। তিনি ১৬৬টি টেস্ট খেলেছেন। অ্যান্ডারসনকে অনুসরণ করছেন তাঁর সতীর্থ স্টুয়ার্ট ব্রড। চলতি সিডনি টেস্টটি তাঁর কেরিয়ারের ১৫১ নম্বর টেস্ট ম্যাচ। তিনি রয়েছেন সার্বিক তালিকার দশ নম্বরে।

বন্ধ করুন