বাংলা নিউজ > ময়দান > ৪০ হয়ে গেল, আর কত দিন? অবসর নিয়ে আপডেট অ্যান্ডারসনের

৪০ হয়ে গেল, আর কত দিন? অবসর নিয়ে আপডেট অ্যান্ডারসনের

জেমস অ্যান্ডারসন।

বুধবার লর্ডসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তাদের তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে ইংল্যান্ড। আর এটি জেমস অ্যান্ডারসনের ১৭৩তম আন্তর্জাতিক লাল-বল ম্যাচও হবে। সেই ম্যাচের আগে ৪০ বছরের তারকা তাঁর অবসর সম্পর্কে একটি বড় আপডেট দেন।

৪০ বছর হয়ে গেল। এখনও চুটিয়ে টেস্ট ক্রিকেট খেলে চলেছেন জেমস অ্যান্ডারসন। কবে তিনি অবসর নেবেন? এই নিয়ে ক্রিকেট মহলে জোর চর্চা। তবে হেলদোল নেই জেমস অ্যান্ডারসনের।

বুধবার লর্ডসে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তাদের তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নামবে ইংল্যান্ড। আর এটি জেমস অ্যান্ডারসনের ১৭৩তম আন্তর্জাতিক লাল-বল ম্যাচও হবে। সেই ম্যাচের আগে ৪০ বছরের তারকা তাঁর অবসর সম্পর্কে একটি বড় আপডেট দেন। সকলে অবশ্য তাঁর অবসর নিয়ে জল্পনা আগে থেকেই করছেন। কিন্তু আইসিসির সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে অ্যান্ডারসন বলেছেন, ‘আমার বয়স হয়েছে, বা গতি হারিয়ে ফেলছি বা অন্য কিছু অনুভবই করি না।’

আরও পড়ুন: ‘কোহলিকে বল করতে পছন্দ করি, তাই পরের সফরে ভারতে যাব’,কীসের ইঙ্গিত অ্যান্ডারসনের?

তিনি যোগ করেছেন, ‘গত কয়েক সপ্তাহ আমি অনুশীলনে কঠোর পরিশ্রম করেছি। আবার আমার বোলিং নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করছি এবং সেটা করে চলার চেষ্টা করেছি। তার পরে গত কয়েক দিন আমি দুর্দান্ত ছন্দ অনুভব করেছি এবং আশা করছি, মাঠে তা দেখাতে পারব।’ মোদ্দা কথা ৪০ বছর বয়সেও বল হাতে চমক দেখাতে তৈরি তিনি।

বেন স্টোকসের নেতৃত্বে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে তিনটি এবং ভারতের বিরুদ্ধে একটি টেস্টে জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড। ঘরের মাঠে এ বার প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা। ৪-০ রেকর্ড আরও উন্নত করার সুযোগ রয়েছে আয়োজকদের সামনে। অ্যান্ডারসন চান প্রোটিয়াদের বিরুদ্ধে দলের হয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে।

আরও পড়ুন: কোহলিকে ছামিয়া বলার পরে এবার জিমিকে অসম্মান, সেহওয়াগকে প্যানেল থেকে সরানোর দাবি

কী ভাবে ভূমিকা পালন করবেন? তা-ও জানিয়েছেন অ্যান্ডারসন। অভিজ্ঞ জোরে বোলার বলেছেন, ‘এখনও নিজের বোলিং নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করি। আমার তো মনে হচ্ছে ক্রমশ উন্নতি করছি। অভিজ্ঞতা বাড়লে সকলেরই আরও উন্নতি হয়। বয়সটা কোনও বিষয় নয়। নির্দিষ্ট লক্ষ্যে প্রতি দিন পরিশ্রম করি। এখনও নতুন ধরনের বল করার চেষ্টা করি। সিমটা একটু আড়ালে রাখার চেষ্টা করছি। যাতে ব্যাটার বলের সুইং ঠিক মতো বুঝতে না পারে।’

দীর্ঘ দিন খেলার ধকল সামলানো শরীরে চোট-আঘাত কম নেই। তা নিয়েই ছন্দ ধরে রাখতে চান অ্যান্ডারসন। কী করে সম্ভব এটা? অ্যান্ডারসন বলেছেন, ‘২০ বা ২১ বছর বয়সের থেকেও এখন আমার শরীর বেশি তৈরি। সারা দিন মাঠে কাটানোর পর শরীরে ব্যথা অনুভব করি। সকলেরই তাই হয়। ২১ বছর বয়সেও ব্যথা হত। এখনও হয়। কিন্তু এখন আমার শরীর এগুলো সামলানোর জন্য অনেক বেশি তৈরি। অনেক ভালো ভাবে মোকাবিলা করতে পারি।’

বন্ধ করুন