বাংলা নিউজ > ময়দান > গাভাসকর, সচিনকে ছাপিয়ে টেস্টের ইতিহাসে নজির গড়ে ফেললেন জো রুট
গাভাসকর, সচিনকে টপকে গেলেন জো রুট। ছবি: রয়টার্স
গাভাসকর, সচিনকে টপকে গেলেন জো রুট। ছবি: রয়টার্স

গাভাসকর, সচিনকে ছাপিয়ে টেস্টের ইতিহাসে নজির গড়ে ফেললেন জো রুট

  • জো রুট ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের মধ্যে টেস্টে এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে সর্বাধিক রানের রেকর্ড করে ফেলেছেন। ২০০২ সালে মাইকেল ভনের করা ১,৪৮১ রানের রেকর্ডটি টপকে গিয়েছিলেন। আর এ বার টপকে গেলেন সচিন তেন্ডুলকর এবং সুনীল গাভাসকরকেও।

এই মরসুমে টেস্টে দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন জো রুট। ব্যাট হাতে একের পর এক নজির গড়ে চলেছেন ইংল্যান্ডের টেস্ট দলের অধিনায়ক। শনিবার তিনি ভারতের কিংবদন্তি দুই ক্রিকেটার সুনীল গাভাসকর এবং সচিন তেন্ডুলকরকেও ছাপিয়ে গেলেন। অ্যাডিলেডে পিঙ্ক বলের টেস্টের তৃতীয় দিনের নজির গড়ে ফেললেন জো রুট।

জো রুট ইতিমধ্যেই ইংল্যান্ডের ক্রিকেটারদের মধ্যে টেস্টে এক ক্যালেন্ডার ইয়ারে সর্বাধিক রানের রেকর্ড করে ফেলেছেন। ২০০২ সালে মাইকেল ভনের করা ১,৪৮১ রানের রেকর্ডটি আগেই টপকে গিয়েছিলেন। আর শনিবার অ্যাডিলেডে নিজেদের প্রথম ইনিংসে ১৯৭৯ সালে সুনীল গাভাসকরের করা ১,৫৫৫রানের রেকর্ডটিও তিনি টপকে গেলেন শনিবার। পাশাপাশি ছাপিয়ে গেলেন সচিন তেন্ডুলকরকেও। ২০১০ সালে ১,৫৬২ রান করেছিলেন সচিন। সেই রেকর্ডও টপকে গেলেন জো রুট।

গাভাসকর এবং সচিনকে টপকে যাওয়ার পর জো রুট বর্তমানে এক বছরে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বাধিক রান করার তালিকায় পঞ্চম স্থানে উঠে এলেন।

জো রুট এই বছরেই ভারতে ভারতের বিরুদ্ধে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজে সর্বোচ্চ রান করেছিলেন। ভারতের বিরুদ্ধে তাঁর একটি ডাবল সেঞ্চুরিও রয়েছে। এ ছাড়াও চারটি সেঞ্চুরি করেছিলেন রুট। আর ২০২১ সালে টেস্টে তাঁর গড় ৬৫.০০।

এই তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন পাকিস্তানের মহম্মদ ইউসুফ। ২০০৬ সালে ১১ ম্যাচ খেলে ১,৭৮৮ রান করেছিলেন তিনি। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছেন ভিভ রিচার্ডস। তিনি আবার ১৯৭৬ সালে ১১টি টেস্টে ১,৭১০ রান করেছিলেন। ভিভ এবং ইউসুফকে কি এই বছর ছাপিয়ে যেতে পারবেন জো রুট? সেটাই এখন দেখার!

বন্ধ করুন