মোহনবাগানকে শুভেচ্ছা ঘরের ছেলের (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
মোহনবাগানকে শুভেচ্ছা ঘরের ছেলের (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

ডার্বির আগে মোহনবাগানকে শুভেচ্ছা ব্যারেটোর

  • নিজের বুটজোড়া তুলে রাখার পরও সবুজ তোতার হৃদয়ে এখনও মোহনবাগান। তাই ডার্বির আগে নিজের প্রাণপ্রিয় দলকে শুভেচ্ছা জানান সবুজ তোতা।

ডার্বিতে জয়ের জন্য একটা সময় তাঁর দিকেই তাকিয়ে থাকতেন মোহনবাগান সমর্থকরা। তিনিই ছিলেন বাগানের প্রাণভোমরা। সারা বাংলার মতো তাঁর নজর রয়েছে ডার্বির দিকে। কোন দলের হয়ে তিনি গলা ফাটাবেন, তা বললে অবশ্যই কোনও পুরস্কার পাবেন না। কারণ তিনি সবুজ-মেরুনের ঘরের ছেলে। আর ঘরের ছেলে বাগানকে শুভেচ্ছা জানাবেন না, এমনটা হতে পারে।

আরও পড়ুন : মোহন-এটিকে চুক্তি : জার্সিতে কি থাকবে পালতোলা নৌকা, কে হবেন কোচ?

ডার্বির আগে সবুজ-মেরুনকে শুভেচ্ছা জানালেন বাগানের শীত-গ্রীষ্ম-বর্ষা ভরসা হোসে রামিরেজ ব্যারেটো। নিজের বুটজোড়া তুলে রাখার পরও সবুজ তোতার হৃদয়ে এখনও মোহনবাগান। তাই ডার্বির আগে নিজের প্রাণপ্রিয় দলকে শুভেচ্ছা জানাতে ভোলেননি সবুজ তোতা। সমর্থকদের মাঠ ভরিয়ে দেওয়ার জন্য উদ্বুদ্ধ করেন।

আরও পড়ুন : সমীহ ইস্টবেঙ্গলকে, আক্রমণাত্মক ঘুঁটি সাজাচ্ছেন কিবু

ফেসবুকে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করে ব্যারেটো বলেন, 'আমার ভালো বন্ধু কিবু ভিকুনা, সাপোর্ট স্টাফ ও সকল খেলোয়াড়দের ডার্বির জন্য শুভেচ্ছা রইল। এটা কঠিন ম্যাচ। খেলার ফল কী হবে, তা শেষ বাঁশির পরেই জানা যায়। তবে আমার মনে হয়, জেতা ইচ্ছাটাই জয়ের ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা পালন করে। তাই খেলোয়াড়দের নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে হবে।'

আরও পড়ুন : রক্ষণে বাড়তি জোর, চাপে আলেসান্দ্রো

ভরা যুবভারতীতে অসংখ্য ডার্বি খেলার অভিজ্ঞতা থেকে ব্যারেটো ভালোমতোই জানেন, সমর্থকদের উপস্থিতির ফলে খেলোয়াড়দের বাড়তি অ্যাড্রিনালিন ক্ষরণ হবে। তাঁরা আরও উদ্বুদ্ধ হবেন। তাই বাগান সমর্থকদের মাঠ ভরিয়ে তোলারও আর্জি জানিয়েছেন সবুজ তোতা। তিনি বলেন, 'দলের হয়ে গলা ফাটানোর জন্য, দলের পাশে থাকার জন্য সব সমর্থকদের মাঠে যাওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। কারণ তোমরাই দলের শক্তি। আমার আশা, আমরা তিন পয়েন্ট পাব।'


বন্ধ করুন