বাংলা নিউজ > ময়দান > ২০২৪ পর্যন্ত এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রধান পদে থাকবেন জয় শাহ

২০২৪ পর্যন্ত এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রধান পদে থাকবেন জয় শাহ

এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রধান হলেন জয় শাহ (ছবি:টুইটার)

গত বছরের জানুয়ারিতে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন জয় শাহ। তিনি এই পদে পৌঁছানো সর্বকনিষ্ঠ প্রশাসক হয়েছিলেন। বিসিসিআই-এর সচিব জয় শাহ।

গত বছরের জানুয়ারিতে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিয়োগ পেয়েছিলেন জয় শাহ। তিনি এসিসি-র সভাপতি পদে পৌঁছানো সর্বকনিষ্ঠ প্রশাসক হয়েছিলেন। বিসিসিআই-এর সচিব জয় শাহ। শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোতে অনুষ্ঠিত এশিয়ান কাউন্সিলের এজিএমে সর্বসম্মতিক্রমে জয় শাহের মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিসিসিআই সচিব জয় শাহ ২০২১ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসানের কাছ থেকে এসিসির দায়িত্বভার গ্রহণ করেছিলেন। তিনি এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের সভাপতি হওয়া এসিসির সর্বকনিষ্ঠ প্রশাসক। এশিয়া কাপের মতো গুরুত্বপূর্ণ টুর্নামেন্ট আয়োজন করা হয় এসিসির অধীনে। শাহের মেয়াদ বৃদ্ধির প্রস্তাব করেছিলেন শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট (এসএলসি) সভাপতি সাম্মি সিলভা। তার সেই সিদ্ধান্তকে সকল সদস্যরা সমর্থন করেছিলেন।

তার মেয়াদ এক বছর বাড়ানোর পর এজিএমে ভাষণ দিতে গিয়ে শাহ বলেন,‘কাউন্সিলের মূল ফোকাস হবে এই অঞ্চলে খেলাধুলার উন্নয়ন করা।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা এই অঞ্চলে ক্রিকেটের সার্বিক উন্নয়ন নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বিশেষ করে মহিলা ক্রিকেটের অগ্রগতির সাথে, আমাদের ফোকাস থাকবে এই অঞ্চলে সারা বছর ধরে এসিসি আয়োজিত অনেক তৃণমূল টুর্নামেন্ট আয়োজন করা।’

এর সাথে শাহ করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সময়কালের কথা স্মরণ করিয়ে বলেন, ‘আশা করি আমরা অতিমারীকে পিছনে ফেলে এসেছি এবং আমি আগ্রহী যে আমরা এখান থেকে শক্তিশালীভাবে এগিয়ে যেতে পারব।’এই সাধারণ সভায় শাহের মেয়াদ বাড়ানোর পাশাপাশি এশিয়া কাপ ২০২২ টুর্নামেন্টের আয়োজনেরও আনুষ্ঠানিক অনুমোদন দেওয়া হয়। দীর্ঘ চার বছর অপেক্ষার পর এ বছরই শ্রীলঙ্কায় এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হবে। এবারের এশিয়া কাপ টি-টোয়েন্টি ফর্ম্যাটে অনুষ্ঠিত হবে এবং ম্যাচগুলো হবে ২৭ অগস্ট থেকে ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। একই সময়ে, ২০অগস্ট থেকে কোয়ালিফায়ার ম্যাচ আয়োজিত হবে।

বন্ধ করুন