বাংলা নিউজ > ময়দান > আর সুপার লিগ করা সম্ভব নয়, মেনে নিলেন জুভেন্তাসের চেয়ারম্যান
চেলসি সমর্থকদের প্রতিবাদ। ছবি: গেটি ইমেজেস
চেলসি সমর্থকদের প্রতিবাদ। ছবি: গেটি ইমেজেস

আর সুপার লিগ করা সম্ভব নয়, মেনে নিলেন জুভেন্তাসের চেয়ারম্যান

  • বুধবার সকালে ইপিএলের ছয় ক্লাব সুপার লিগ থেকে বেরিয়ে যায়। তার পরে সরে দাঁড়ায় আটলেটিকো মাদ্রিদ এবং ইন্টার মিলানও। এর পরে সুপার লিগকে ঘিরে আর কোনও আশাই বেঁচে থাকল না।

একে একে ৮টি ক্লাব সুপার লিগ থেকে বেরিয়ে গিয়েছি। এখন পড়ে রয়েছে শুধু বার্সেলোনা, রিয়েল মাদ্রিদ, এসি মিলান এবং জুভেন্তাস। এই পরিস্থিতি আর সুপার লিগ করা সম্ভব নয়। মেনে নিলেন জুভেন্তাসের চেয়ারম্যান আন্দ্রেয়া আগনেলি।

আন্দ্রেয়া বলেন, ‘সত্যি কথা বলতে, এই প্রজেক্টের বিষয়টি এতটাই ভাল ছিল যে, আমি সেটা শুনে সন্তুষ্ট হয়েছিলাম। বিশ্বের সেরা টুর্নামেন্টগুলির অন্যতম লিগ হতে পারত এটা। কিন্তু এখন আর মনে হয় না, প্রজেক্টটি করা সম্ভব হবে।’

মূলত বুধবার সকালে ইপিএলের ছয় ক্লাব সুপার লিগ থেকে বেরিয়ে যায়। তার পরে সরে দাঁড়ায় আটলেটিকো মাদ্রিদ এবং ইন্টার মিলানও। এর পরে সুপার লিগকে ঘিরে আর কোনও আশাই বেঁচে থাকল না।

সুপার লিগের বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরই উয়েফা হুমকি দিয়েছিল, বিদ্রোহী ক্লাবেদের নিষিদ্ধ করা হবে। এমন কী তারা আইনের পথে হাঁটারও সিদ্ধান্ত নেয়। উয়েফাকে পূর্ণ সমর্থন করে বিদ্রোহী ক্লাবগুলিকে মঙ্গলবার রাতেই চরম বার্তা দেন ফিফা প্রেসিডেন্ট জিয়ান্নি ইনফান্তিনো। তিনি পরিষ্কার বলে দেন, ‘হয় তুমি থাক, না হলে থেকো না। মাঝামাঝি কোনও পথ নেওয়া যাবে না। আমি পরিষ্কার ভাবে বলে দিতে চাই।’

বিদ্রোহী ক্লাবের সমর্থকেরা সুপার লিগের বিরুদ্ধে রাস্তায় নামে। তাঁদের দাবি ছিল, সুপার লিগের নাম করে ক্লাবের ভবিষ্যৎ নষ্ট করা চলবে না। সমর্থকদের জোরালো প্রতিবাদের জেরে একে একে ক্লাবগুলি সুপার লিগ থেকে বেরিয়ে আসতে শুরু করে।

বন্ধ করুন