বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘টয়লেট থেকে ভাত, খাবার নিচ্ছেন কবাডি খেলোয়াড়রা’, ভাইরাল ভিডিয়োয় হইচই
দেখুন দেশের ক্রীড়াক্ষেত্রের করুণ ছবি (ছবি-টুইটার)

‘টয়লেট থেকে ভাত, খাবার নিচ্ছেন কবাডি খেলোয়াড়রা’, ভাইরাল ভিডিয়োয় হইচই

  • শৌচাগারে থালায় রেখে দেওয়া হয়েছে ভাত। রাখা আছে অন্যান্য পদ। সেখান থেকেই খাবার নিতে হচ্ছে কবাডি খেলোয়াড়দের। এমনই অভিযোগ উঠল উত্তরপ্রদেশে। ভাইরাল হয়ে গিয়েছে সেই সংক্রান্ত একটি ভিডিয়োও (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা)। পুরো বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে হইচই।

উত্তর প্রদেশের সাহারানপুরের ডঃ ভীমরাও আম্বেদকর স্টেডিয়ামের টয়লেটে কাবাডি খেলোয়াড়দের দুপুরের খাবার দেওয়া হয়। এরই একটি ভিডিয়ো (সত্যতা যাচাই করেনি হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা) সামনে এসেছে।

একাধিক রিপোর্ট অনুযায়ী, ভিডিয়োটি তিনদিন আগের। তিন দিন আগে,অনূর্ধ্ব ১৭ রাজ্য স্তরের কাবাডি টুর্নামেন্টে ৩০০ জনেরও বেশি খেলোয়াড় অংশ নিয়েছিলেন। অভিযোগ উঠেছে, খেলোয়াড়দের দেওয়া খাবারটিও ভালো মানের ছিল না। সুইমিং পুলের কাছে বড় হাঁড়িতে রান্নাটি করা হয়েছিল। ডাল, শাক, সবজি,ভাতও নাকি রান্নার পরে অনেকটাই কাঁচা ছিল। বিষয়টি লখনউ পর্যন্ত পৌঁছেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখতে একটি তদন্তকারী দল গঠন করা হয়েছে।

অভিযোগ, ১৬ সেপ্টেম্বর অনেক জেলার মেয়ে খেলোয়াড়রা ডক্টর ভীমরাও আম্বেদকর স্টেডিয়ামে এসেছিলেন। দুপুরের খাবারের জন্য তাদের অর্ধেক রান্না করা ভাত পরিবেশন করা হয়েছিল। অনেক খেলোয়াড় রুটিও পাননি। খেলোয়াড়কে সবজি ও সালাদ দিয়ে পেট ভরতে দেখা গিয়েছে। ভাত ও লুচি তৈরি করে টয়লেটে রাখা হয়েছিল। যেখানে দুর্গন্ধের কারণে দাঁড়ানো কঠিন হয়ে পড়েছিল। 

আরও পড়ুন.. খেলা ছেড়ে দাও, একটা ফেয়ারওয়েল ম্যাচের ব্যবস্থা করছি-ফাঁস হল কিংবদন্তি কপিলের অবসরের কাহিনি

উত্তর প্রদেশের স্পোর্টস ডিরেক্টরেটের তত্ত্বাবধানে,সাহারানপুর ইউপি কাবাডি অ্যাসোসিয়েশন দ্বারা রাজ্য স্তরের সাব জুনিয়র গার্লস প্রতিযোগিতা আয়োজন করার সুযোগ পেয়েছে। এখানে ডঃ ভীমরাও আম্বেদকর স্পোর্টস স্টেডিয়ামে প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। প্রতিযোগিতায় ১৭টি বিভাগ ও একটি স্পোর্টস হোস্টেলের দল অংশগ্রহণ করে। খেলোয়াড়দের থাকা-খাওয়ার ব্যবস্থা ছিল স্টেডিয়ামেই।

আরও পড়ুন.. IND vs AUS: রোহিত শর্মার বোলারদের মোকাবেলা করতে ফিঞ্চরা তৈরি, প্রকাশ্যে স্মিথদের পরিকল্পনা

বিষয়টি নিয়ে সাহারানপুরের জেলাশাসক অখিলেশ সিং মুখ খুলেছেন। জেলাশাসক জানিয়েছেন, জেলা ক্রীড়া আধিকারিককে সাসপেন্ড করা হয়েছে। তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তিনদিনের মধ্যে রিপোর্ট জমা পড়লে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সাহারানপুরের ক্রীড়া আধিকারিক দাবি করেছেন, বৃষ্টি হওয়ায় সুইমিং পুলের ভিতরে খাবার রাখা হচ্ছিল। চেঞ্জরুমে খাবার রাখা হয়েছিল। স্টেডিয়ামে কাজ চলছে। বৃষ্টির জন্য অন্য কোথাও খাবার রাখা যাচ্ছিল না।

বন্ধ করুন