বাংলা নিউজ > ময়দান > খেলা ছেড়ে দাও, একটা ফেয়ারওয়েল ম্যাচের ব্যবস্থা করছি-ফাঁস হল কিংবদন্তি কপিলের অবসরের কাহিনি
ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার কপিল দেব (ছবি-গেটি ইমেজ)

খেলা ছেড়ে দাও, একটা ফেয়ারওয়েল ম্যাচের ব্যবস্থা করছি-ফাঁস হল কিংবদন্তি কপিলের অবসরের কাহিনি

  • ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার কপিল দেব নাকি অবসর নিতে চাননি! তাঁকে নাকি বলা হয়েছিল যে এখনই তাঁকে অবসর নিতে হবে। অর্থাৎ এক প্রকার চাপ দিয়েই বা বলেই কপিলকে অবসর নিতে বাধ্য করা হয়েছিল। চমকপ্রদ তথ্য চলে এল প্রকাশ্যে।

ভারতের কিংবদন্তি ক্রিকেটার কপিল দেব নাকি অবসর নিতে চাননি! তাঁকে নাকি বলা হয়েছিল যে এখনই তাঁকে অবসর নিতে হবে। অর্থাৎ এক প্রকার চাপ দিয়েই বা বলেই কপিলকে অবসর নিতে বাধ্য করা হয়েছিল। চমকপ্রদ তথ্য চলে এল প্রকাশ্যে। 

ভারতের অন্যতম সেরা অধিনায়ক কপিল দেবের অবসর নিয়ে চমকপ্রদ তথ্য প্রকাশ্যে এসেছে। প্রাক্তন প্রবীণ খেলোয়াড় আংশুমান গায়কোয়াড় জানিয়েছেন কীভাবে তিনি কপিল দেবকে অবসর নিতে রাজি করিয়েছিলেন। কপিল দেব ১৯৯৪ সালে ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে ছিলেন। তাঁর নেতৃত্বে ভারত প্রথমবার ১৯৮৩ বিশ্বকাপ জিতেছিল। এর পরে, তিনি পরবর্তী ১১ বছর খেলেন এবং তারপর অবসর নেন। তবে তাঁর অবসরের পিছনের গল্পটা একেবারেই আলাদা।

আরও পড়ুন… ২০১১ বিশ্বকাপের আগে সিনিয়ররা কী বলেছিলেন? গম্ভীরের মন্তব্য ঘিরে শুরু নতুন বিতর্ক

আংশুমান গায়কোয়াড়ের দাবি প্রথমে নাকি কপিল দেবকে অবসর নিতে রাজি করানো হয়েছিল। আংশুমান গায়কোয়াডের মতে, কপিল দেব অবসর নিচ্ছেন না কিন্তু তাঁকে তা করতে বলা হয়েছিল। মিড-ডে-র খবর অনুযায়ী, আংশুমান গায়কোয়াড় বলেছেন, ‘এত বড় খেলোয়াড়কে দল থেকে বাদ দেওয়া যায় না। আমরা তাকে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে খেলার সুযোগ দিয়েছিলাম এবং আমদাবাদে অনুষ্ঠিত টেস্ট ম্যাচে তিনি বিশ্ব রেকর্ড করেছিলেন। আমরা ভেবেছিলাম বিশ্ব রেকর্ড গড়ে তিনি অবসরের ঘোষণা করবেন। তবে সংবাদ সম্মেলনে আরও দুই বছর খেলবেন বলে জানিয়েছেন কপিল দেব। পরের দিন, গুন্ডাপ্পা বিশ্বনাথ আমাকে বলেছিলেন যে শিরোনামটি দেখুন, কপিল বলেছেন যে তিনি আরও দুই বছর খেলবেন। একই দিনে জাতীয় নির্বাচন কমিটির বৈঠক ছিল। জগমোহন ডালমিয়া তখন বিসিসিআই-এর সচিব।’

আরও পড়ুন… IND predicted XI vs AUS 1st T20: পন্ত না কার্তিক? বুমরাহ-ভুবির সঙ্গে তৃতীয় পেসার কে? কী হবে ভারতের একাদশ?

এরপরের কথা বলতে গিয়ে আংশুমান গায়কোয়াড় বলেন, ‘আমরা বসে বসে সিদ্ধান্ত নিলাম যে এখন কপিল দেবের অবসরের সময়। গুন্ডপ্পা বিশ্বনাথ বলেছিলেন যে আমাদের কপিল দেবের সঙ্গে কথা বলা উচিত। চায়ের সময় আমরা ড্রেসিংরুমে কপিল দেবের কাছে গেলাম। আমি কপিল দেবকে বলেছিলাম যে ক্যাপ্টেন, আমাদের আপনার সঙ্গে কিছু কথা বলতে হবে। নির্বাচকরা মনে করেন, এখন আপনার অবসর নেওয়া উচিত। আমরা আপনার একটা ফেয়ারওয়েল ম্যাচের ব্যবস্থা করছি খেলা দেব কিন্তু আপনাকে আজ ঘোষণা করতে হবে। কপিল দেব খুব সহজ উত্তর দিলেন। ধন্যবাদ, আপনি যা বলেছেন আমি তার প্রশংসা করি। এই সব কাজ সময়মত করা উচিত।’

বন্ধ করুন