বাড়ি > ময়দান > নেইমারদের লড়াই ব্যর্থ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেতাব বায়ার্ন মিউনিখের
ট্রফি হাতে বায়ার্ন মিউনিখ। ছবি- টুইটার।
ট্রফি হাতে বায়ার্ন মিউনিখ। ছবি- টুইটার।

নেইমারদের লড়াই ব্যর্থ করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেতাব বায়ার্ন মিউনিখের

  • ৭ বছর পর ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের খেতাব পুনরুদ্ধার করে বুন্দেশলিগা জায়ান্টরা।

যাবতীয় অঙ্ক ছিল মুলার-লেওয়ানডোস্কি-গ্ন্যাব্রি ত্রয়ীকে নিয়ে। আড়াল থেকে নায়ক হয়ে দেখা দিলেন কিংসলে কোম্যান। নেইমার-এমবাপে-ডি মারিয়ার ত্রিফলা আক্রমণ ব্যর্থ করে শেষমেশ লক্ষ্যে পৌঁছে যায় বায়ার্ন মিউনিখ। আরও একবার ইউরোপ চ্যাম্পিয়নের মুকুট মাথায় পরে জার্মান জায়ান্টরা।

নেইমারদের প্যারিস সাঁ-জা'কে ফাইনাল ১-০ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের খেতাব ঘরে তোলে বায়ার্ন মিউনিখ। লিসবনে ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে জয়সূচক গোলটি করেন কোম্যান। ৫৯ মিনিটে জোশুয়া কিমিখের পাস থেকে গোল করে কিংসলে।

এই নিয়ে মোট ৬ বার ইউরোপ সেরার তমকা আদায় করে নেয় বুন্দেশলিগা চ্যাম্পিয়নরা। শেষবার তারা ২০১৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জিতেছিল। অর্থাৎ, দীর্ঘ ৭ বছর পরে পুরনায় ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের খেতাব পুনরুদ্ধার করে মিউনিখ। তার আগে ১৯৭৫, ৭৬ ও ৭৭ সালে পর পর তিনবার ইউরোপ সেরা হয় বায়ার্ন। নতুন শতকে প্রথমবার তারা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতে ২০০১ সালে।

চলতি মরশুমে ট্রফি জয়ের ত্রিমুকুট মাথায় পরেন লেওয়ানডোস্কিরা। বুন্দেশলিগা ও ডিএফবি-পোকালের পর এবার উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতে মরশুম শেষ করে বায়ার্ন।

এই মরশুমে সব টুর্নামেন্ট মিলিয়ে বায়ার্ন তাদের শেষ ৩০টি ম্যাচে অপরিজিত রইল। শেষ ২১টি ম্যাচে তারা একটানা জয় তুলে নেয়। বায়ার্ন মিউনিখই চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে প্রথম দল, যারা সব ম্যাচ জিতে খেতাবের দখল নেয়। এবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ১১টি ম্যাচেই জয় তুলে নেয় মিউনিখ।

বন্ধ করুন