বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘ICC ট্রফি জিততে না পারার জন্য ODI নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে;’ সাবা করিম

‘ICC ট্রফি জিততে না পারার জন্য ODI নেতৃত্ব থেকে কোহলিকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে;’ সাবা করিম

বিরাট কোহলি (ছবি:গেটি ইমেজ)

প্রাক্তন নির্বাচক সাবা করিম মনে করেন, এই দায়িত্ব থেকে কোহলি নিজে থেকে সরে জাননি, তাঁকে ওয়ানডে ক্রিকেটে অধিনায়কের পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

আসন্ন দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের কথা মাথায় রেখে একদিনের ক্রিকেটে ভারতীয় দলের অধিনায়ক করা হয়েছে রোহিত শর্মাকে। দলে অধিনায়কের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বিরাট কোহলিকে। তার জায়গায় আনা হয়েছে রোহিত শর্মাকে। বলা হয়েছে কোহলি আর সীমিত ওভারের ফর্ম্যাটে ভারতীয় দলের অধিনায়ক নন। এই বছরেই বিরাট ঘোষণা করেছিলেন যে তিনি ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পরে টি-টোয়েন্টি ফর্ম্যাটের অধিনায়কের পদ থেকে সরে দাঁড়াবেন। এরপরেই বিরাটের জায়গায় একদিনের ক্রিকেটে ভারতীয় দলের অধিনায়ক করা হয় রোহিতকে। প্রাক্তন নির্বাচক সাবা করিম মনে করেন, এই দায়িত্ব থেকে কোহলি নিজে থেকে সরে জাননি, তাঁকে ওয়ানডে ক্রিকেটে অধিনায়কের পদ থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে।

সাবা করিম ব্যাখ্যা করে বলেছেন কেন ৩৩ বছর বয়সী বিরাট কোহলি নিজেই ঘোষণা করেছিলেন যে তিনি টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের অধিনায়কের পদ থেকে সরে যাচ্ছেন। তবে ওয়ানডে অধিনায়কই থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। করিম বিশ্বাস করেন যে আইসিসি ট্রফি না জেতার জন্যই কোহলিকে একদিনের ক্রিকেটের অধিনায়কত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সাবা করিম বলেন, ‘কোহলিকে বরখাস্ত করা হয়েছে বলাই ঠিক হবে। তিনি টি-টোয়েন্টি অধিনায়কত্ব ছেড়ে দিয়েছিলেন তখনই নিশ্চিত করতে পারেন যে তিনি ওডিআই অধিনায়কত্ব চালিয়ে যেতে চেয়েছিলেন। মানে ওয়ানডে অধিনায়কই থাকতে চেয়েছিলেন তিনি। ওয়ানডে অধিনায়কত্ব হারিয়ে আইসিসি ট্রফি জিততে না পারার খেসারত দিতে হয়েছে কোহলিকে।’

সাবা করিম মনে করেন, টিম ইন্ডিয়ার প্রধান কোচ রাহুল দ্রাবিড় বা বিসিসিআইয়ের কোনো কর্মকর্তা কোহলির সঙ্গে অধিনায়কত্ব নিয়ে অবশ্যই কথা বলেছেন। করিম বলেছিলেন যে দ্রাবিড় এমন একজন যিনি তার খেলোয়াড়দের সাথে খোলামেলা কথোপকথনে বিশ্বাস করেন। করিম বলেন, ‘আমি নিশ্চিত যে রাহুল দ্রাবিড় বা বিসিসিআইয়ের কেউ নিশ্চয়ই কোহলির সঙ্গে আলাদা করে অধিনায়কত্ব নিয়ে কথা বলেছেন। দ্রাবিড় তার খেলোয়াড়দের সাথে অকপট যোগাযোগে বিশ্বাসী। তাই যখন এত বড় সিদ্ধান্তের কথা আসে, আমি নিশ্চিত যে কেউ নিশ্চয়ই কোহলির সঙ্গে কথা বলেছে।’

বন্ধ করুন