বাংলা নিউজ > ময়দান > ‘ওর কোনও কিছুর উপর লোভ নেই’, কোহলি-সৌরভ বিতর্কে হঠাৎ-ই সুর নরম রাজকুমার শর্মার

‘ওর কোনও কিছুর উপর লোভ নেই’, কোহলি-সৌরভ বিতর্কে হঠাৎ-ই সুর নরম রাজকুমার শর্মার

রাজকুমার শর্মা এবং বিরাট কোহলি।

সৌরভ এবং কোহলি দুই বড় মাপের তারকার কথার মধ্যে এই ধরনের অসঙ্গতিকে কেন্দ্র করে ভারতীয় ক্রিকেট এখন উত্তাল। কে সত্যি বলছেন, আর কে মিথ্যে, তাই নিয়ে চলছে কাটাছেঁড়া। তবে কোহলির ছেলেবেলার কোচ রাজকুমার শর্মা দাবি করেছেন, পুরো পরিস্থিতি আরও ভালো ভাবে পরিচালনা করা যেত, যদি উভয় পক্ষ কড়া মনোভাব না রাখত।

দক্ষিণ আফ্রিকা উড়ে যাওয়ার আগে বুধবার ভার্চুয়াল সংবাদিক সম্মেলনে বোমা ফাটিয়েছেন বিরাট কোহলি। যা নিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটে শুরু হয়েছে নতুন বিতর্ক। ওডিআই অধিনায়কত্ব থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার প্রায় এক সপ্তাহ পরে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিস্ফোরণ ঘটান কোহলি। তাঁকে একদিনের নেতৃত্ব থেকে সরানোর কারণ হিসেবে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের যুক্তিকে একেবারে খারিজ করে দেন তিনি। ঘুরিয়ে মিথ্যেবাদী প্রমাণ করেন সৌরভকে। এর পরেই শুরু হয় তীব্র চাপানউতোর।

কোহলি সেই সাংবাদিক সম্মেলনে স্পষ্ট ভাষায় বলে দেন, অক্টোবরে যখন তিনি টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, তখন নেতৃত্ব না ছাড়ার জন্য বোর্ডের কেউ বা নির্বাচকেরা তাঁকে অনুরোধ জানাননি। অথচ সৌরভ বলে আসছিলেন, বোর্ড কোহলিকে টি-টোয়েন্টির নেতৃত্ব না ছাড়ার জন্য বুঝিয়েছে। তাঁকে অনুরোধ করেছে। বিরাট কথা শোনেননি। আর সেই কারণে সংক্ষিপ্ত ওভারের ক্রিকেট একই অধিনায়ক রাখতে টি-টোয়েন্টির পাশাপাশি ওডিআই-এর নেতৃত্ব তুলে দেওয়া হয়েছে রোহিতের হাতে।

দুই বড় মাপের তারকার কথার মধ্যে এই ধরনের অসঙ্গতিকে কেন্দ্র করে ভারতীয় ক্রিকেট এখন উত্তাল। কে সত্যি বলছেন, আর কে মিথ্যে, তাই নিয়ে চলছে কাটাছেঁড়া। তবে কোহলির ছেলেবেলার কোচ রাজকুমার শর্মা দাবি করেছেন, পুরো পরিস্থিতি আরও ভালো ভাবে পরিচালনা করা যেত, যদি উভয় পক্ষ কড়া মনোভাব না রাখত।

একটি সংবাদমাধ্যমে রাজকুমার শর্মা দাবি করেছেন, ‘আমি এই বিষয়ে বেশি কথা বলতে চাই না। কারণ এটি সরাসরি বিরাটের সাথে যুক্ত। তবে আমার মনে হয়, দুই দিক থেকে এ ধরনের জোরালো শব্দ ব্যবহার না করলে ভালো হতো। দল ভালো করছে, আমি মনে করি না যে এ রকম একটি অপ্রয়োজনীয় বিতর্কের প্রয়োজন রয়েছে।।’

তিনি আরও যোগ করেছেন, ২৬ ডিসেম্বর সিরিজের প্রথম টেস্টে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে মাঠে নামার সময় এই ধরনের বিতর্কের জন্য কোহলির পারফরম্যান্সে প্রভাব পড়বে না।

তিনি বলেও দিয়েছেন, ‘এটা ওর মনের মধ্যে থাকলেও, একবার মাঠে পা রাখার পর আমি মনে করি না ওকে এই বিতর্কটি প্রভাবিত করবে। বিরাটের কোনও কিছুর উপর লোভ নেই। ওর নিজের উপর অনেক আত্মবিশ্বাস রয়েছে। এই ধরনের দ্বন্দ্ব বা বিতর্ক ঘটলে যে কোনও খেলোয়াড়ের কাছে তা বিরক্তিকর। তবে আমি আশাবাদী যে, বোর্ড এই পরিস্থিতি দক্ষতার সঙ্গে মোকাবিলা করবে এবং এই প্রসঙ্গ আর টেনে এনে বিতর্ক বাড়াবে না।’

বন্ধ করুন