চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর উচ্ছ্বসিত কোনেরু হাম্পি (ছবি সৌজন্য টুইটার @FIDE_chess)
চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর উচ্ছ্বসিত কোনেরু হাম্পি (ছবি সৌজন্য টুইটার @FIDE_chess)

পছন্দের নয়, সেই র‌্যাপিড চেসে বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপ হাম্পি

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর বিশ্ব দাবা সংস্থার অফিসিয়াল সাইটে বলেন, এটা আমার প্রথম বিশ্ব খেতাব। তাই খুব খুশি ও উত্তেজিত।

তেমন পছন্দের নয় র‌্যাপিড চেস। মস্কোয় আসার আগে প্রস্তুতিও তেমন ছিল না। আর বিশ্ব র‌্যাপিড চেস চ্যাম্পিয়নশিপ জিতলেন কোনেরু হাম্পি।

আজ ফাইনালে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হয়। ফাইনাল প্লে-অফে একই বিন্দুতে দাঁড়িয়েছিলেন লেই তিঙ্গজি, একাতেরিনা আতালিক ও হাম্পি। স্কোরবোর্ড দেখায়, দুটি ব্লিত্জ টাইব্রেক গেম হবে তিঙ্গজি ও হাম্পির মধ্যে। প্রথম গেমে অবশ্য হেরে যান ভারতীয় গ্র্যান্ডমাস্টার। কিন্তু তিঙ্গজির ভুলের সুযোগে খেলায় ফেরেন হাম্পি। শেষপর্যন্ত সাডেন ডেথে নার্ভ ধরে রাখেন তিনি।

চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর বিশ্ব দাবা সংস্থার অফিসিয়াল সাইটে বলেন, 'এটা আমার প্রথম বিশ্ব খেতাব। তাই খুব খুশি ও উত্তেজিত।' যদিও চ্যাম্পিয়নের মুকুট যে তাঁর মাথায় উঠতে পারে, তা ভাবতে পারেননি হাম্পি। তাঁর কথায়, 'প্রথম তিনে পৌঁছানোর বিষয়ে আশাবাদী ছিলাম। কিন্তু, প্রথম হওয়ার কোনও আশাই ছিল না।

মেয়ে হওয়ার জন্য মধ্যিখানে দু'বছর দাবা থেকে দূরে ছিলেন হাম্পি। তারপর দাবায় ফিরে আরও ধারালো হয়ে ওঠেন হাম্পি। ডিসেম্বরের শুরুতেই ফিডে গ্রাঁ পি সিরিজ জেতেন তিনি। পান ৩০ এলো পয়েন্ট। ফলে বিশ্ব ক্রমপর্যায়ে তিন নম্বরে থেকে বছর শেষ করছেন হাম্পি।

বন্ধ করুন