বাংলা নিউজ > ময়দান > ছেলের খেলরত্ন প্রাপ্তির ঠিক আগেই মারা গেলেন প্যারালিম্পিক্স সোনাজয়ী কৃষ্ণ নাগারের মা
প্যারালিম্পিক্সে সোনাজয়ী শাটলার কৃষ্ণ নাগার। ছবি- টুইটার।
প্যারালিম্পিক্সে সোনাজয়ী শাটলার কৃষ্ণ নাগার। ছবি- টুইটার।

ছেলের খেলরত্ন প্রাপ্তির ঠিক আগেই মারা গেলেন প্যারালিম্পিক্স সোনাজয়ী কৃষ্ণ নাগারের মা

  • মৃত্যুকালে নাগারের মায়ের বয়স ছিল মাত্র ৪৯ বছর।

একজন ভারতীয় ক্রীড়াবিদের জন্য খেলরত্ন পুরস্কারপ্রাপ্তির থেকে বড় হয়তোই আর কিছু হতে পারে। তবে নিজের জীবনের অন্যতম সেরা দিনের আগেই মাথায় বাজ ভেঙে পড়ল টোকিও প্যারালিম্পিক্সে সোনাজয়ী শাটলার কৃষ্ণ নাগারের। মেজর ধ্যানচাঁদ খেলরেত্ন প্রাপ্তির কিছুক্ষণ আগেই গত হলেন তাঁর মা।

২২ বছর বয়সী ব্যাডমিন্টন তারকা  বিভাগে টোকিও প্যারালিম্পিক্সে সোনা জেতেন। শনিবার (১৩ নভেম্বর) রাষ্ট্রপতি ভবনে ১১ জন বাকি ক্রীড়াবিদের সঙ্গে তাঁকেও খেলরত্ন পুরস্কার দেওয়া হয়। সেই পুরস্কার প্রাপ্তির আগেই তাঁর মা গত হলেও তাঁকে তাঁর বাবা ফোনে কিছু জানাননি। পুরস্কার নিয়ে জয়পুরে নিজের বাড়ি পৌঁছেই তিনি তাঁর মায়ের মৃত্যুর বিষয়ে জানতে পারেন। তাঁর দিল্লি আসার আগেই বুধবার তাঁর মাকে বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে যাওয়ার পর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল বলে জানান কৃষ্ণ।

Times of India-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কৃষ্ণ বলেন, ‘১০ নভেম্বর আমি পুরস্কার নিতে দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেবার প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম। তখন দুপুর ১২-১২.৩০ হবে, আমি মাকে খাবার তৈরি করতে বলি। বাবাও সেই সময় বাড়ি চলে এসেছিল। এরপর স্নান করে বেরিয়ে আমি তোয়ালে শুকাচ্ছিলাম এবং তখনই একটা বিকট আওয়াজ পাই। আমি দেখতে পাই মা আমাদের ছাদ থেকে একতলায় পড়ে গিয়েছেন। মাকে আমরা সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে আইসিইউতে ভর্তি করি।’

ডাক্তাররা তাঁর মা মোটামুটি সুস্থ আছে জানানোর পরেই তিনি দিল্লির উদ্দেশ্যে রওনা দেন। ‘ডাক্তাররা আমায় ভরসা জোগান যে মা চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন এবং তাঁর স্বাস্থ্যের উন্নতি হচ্ছে। এরপরেই আমি দিল্লির উদ্দেশ্যে বৃহস্পতিবার রওনা দিই। তবে তিনি গতকাল (শনিবার) রাতে মারা যান। ছাদ থেকে পড়ার পর আর তিনি হুশ ফিরে পাননি।’ জানান আবেগপ্রবণ কৃষ্ণ। মৃত্যুকালে কৃষ্ণ মায়ের বয়স ছিল ৪৯ বছর।

বন্ধ করুন