বাংলা নিউজ > ময়দান > Lakshya Sen: খাদ্যে বিষক্রিয়া, গুরুতর শরীর খারাপ নিয়ে কোর্টে নেমে থমাস কাপে বাজিমাত লক্ষ্যর

Lakshya Sen: খাদ্যে বিষক্রিয়া, গুরুতর শরীর খারাপ নিয়ে কোর্টে নেমে থমাস কাপে বাজিমাত লক্ষ্যর

লক্ষ্য সেন

জার্মান ওপেন, অল ইংল্যান্ড ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপে রানার্স হয়েছিলেন তিনি। কানাডার বিরুদ্ধে শরীর খারাপের কারণে থমাস কাপে তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল। ফিরে এসে চাইনিজ তাইপে, মালয়েশিয়া এবং ডেনমার্কের কাছে ম্যাচে হারতে হয়েছিল তাকে।

শুভব্রত মুখার্জি: ভারতীয় ব্যাডমিন্টনের ৭৩ বছরের ইতিহাসে প্রথমবার থমাস কাপ জিতে নজির গড়েছেন লক্ষ্য সেনরা। থাইল্যান্ডের ব্যাঙ্ককে ফাইনালে ১৪ বারের চ্যাম্পিয়ন ইন্দোনেশিয়াকে কার্যত উড়িয়ে দিয়েছে ভারতীয় দল। ৩-০ ফলে টাই জিতে তারা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে। তবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পথটা ভারতের কাছে একেবারেই সহজ ছিল না। কোয়ার্টার ফাইনাল, সেমিফাইনালে একেবারে শেষ ম্যাচ জিতে ভারতকে রুদ্ধশ্বাস জয় এনে দিয়েছিলেন এইচ এস প্রণয়। এই দুই টাইয়ে অবশ্য প্রথম ম্যাচে হেরে গিয়েছিলেন বিশ্ব ব্যাডমিন্টনে ভারতের হয়ে ব্রোঞ্জ পদকজয়ী লক্ষ্য সেন। যদিও ফাইনালে ভারতের হয়ে প্রথম ম্যাচ জিতে ভারতকে লিড দিয়েছিলেন তিনি। সেই লক্ষ্য সেনকেই খাদ্যে বিষক্রিয়াতে প্রবল শরীর খারাপ নিয়েই খেলতে হয়েছিল থমাস কাপে। চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পরে জনসমক্ষে এল সেই লড়াইয়ের কাহিনি।

ফাইনালে অ্যান্টনি গিনটিংকে ৮-২১, ২১-১৭, ২১-১৬ ফলে হারান লক্ষ্য। এক গেমে পিছিয়ে পড়েও দুরন্ত কামব্যাক করেন এই তরুণ ভারতীয় শাটলার। ৬৫ মিনিটের তুল্যমূল্য লড়াই শেষে ফাইনালে ভারতকে লিড এনে দেন তিনি। উল্লেখ্য অসাধারণ ফর্মকে সঙ্গী করেই থমাস কাপে পা রেখেছিল লক্ষ্য। জার্মান ওপেন, অল ইংল্যান্ড ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপে রানার্স হয়েছিলেন তিনি। কানাডার বিরুদ্ধে শরীর খারাপের কারণে থমাস কাপে তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল। ফিরে এসে চাইনিজ তাইপে, মালয়েশিয়া এবং ডেনমার্কের কাছে ম্যাচে হারতে হয়েছিল তাকে। তবে সব হতাশা তিনি ঝেড়ে ফেলেন ইন্দোনেশিয়ার বিরুদ্ধে ফাইনালে।

থমাস কাপের ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রে জানা গিয়েছে টুর্নামেন্টের প্রথম থেকেই খাদ্যে বিষক্রিয়াতে প্রবল শরীর খারাপে ভুগছিলেন লক্ষ্য। ফলে স্বাভাবিকভাবেই নিজের চেনা ছন্দে ধরা দিচ্ছিলেন না তিনি। খবরটি নিশ্চিত করেছেন ভারতীয় দলের কোচ বিমল কুমার। তিনি বলেন 'আমরা এই খবরটা (লক্ষ্যর শরীর খারাপ) ভীষণভাবে গোপন রেখেছিলাম। লক্ষ্য খাদ্যে বিষক্রিয়ার ফলে গুরুতর অসুস্থ ছিল। ব্যাঙ্কক থেকে হায়দরাবাদের যে উড়ানে আমরা ফিরি তাতেও ওর শরীর অত্যন্ত খারাপ ছিল। আমরা ওকে মাত্র দুই দিনের বিশ্রাম দিতে পেরেছিলাম। কার্যত জোর করেই ওকে জার্মানির বিরুদ্ধে খেলাতে হয়।'

বন্ধ করুন