বাংলা নিউজ > ময়দান > নির্বাচক হওয়ার জন্য আবেদন করতে চলেছেন লক্ষ্মণ, মোঙ্গিয়া, সলিল আঙ্কোলা, সমীর দীঘে

নির্বাচক হওয়ার জন্য আবেদন করতে চলেছেন লক্ষ্মণ, মোঙ্গিয়া, সলিল আঙ্কোলা, সমীর দীঘে

লক্ষ্মণ শিবরামকৃষ্ণন।

হঠাৎ করেই দল নির্বাচন কমিটির সব সদস্যকে বরখাস্ত করে বিসিসিআই। চেতন শর্মার নেতৃত্বাধীন গোটা কমিটিই বাতিল করে দেওয়া হয়। নির্বাচক হিসেবে নতুন করে পাঁচ জনকে নিয়োগ করা হয়। তার জন্য় বিসিসিআই-এর পক্ষ থেকে আবেদনপত্র চাওয়া হয়েছে।

ভারতের প্রাক্তন প্লেয়ার লক্ষ্মণ শিবরামকৃষ্ণন, নয়ন মোঙ্গিয়া, সলিল আঙ্কোলা এবং সমীর দিঘে জাতীয় নির্বাচক পদের জন্য আবেদন করতে চলেছেন বলে খবর। ভারতের প্রাক্তন ফাস্ট বোলার অজিত আগারকারের নামও জল্পনায় উঠে এসেছে, তবে তিনি কোন পদের জন্য আবেদন করবেন, তা নিশ্চিত করা যায়নি। আগরকার ২০২০ সালের ডিসেম্বরে পশ্চিমাঞ্চল থেকে জাতীয় নির্বাচক হিসেবে আবে কুরুভিল্লার কাছে অল্পের জন্য হেরে গিয়েছিলেন তিনি।

৫৬ বছরের শিবরামকৃষ্ণন, ‘সিভা’ বা ‘এলএস’ নামে পরিচিত, ন'টি টেস্ট এবং ১৬টি ওয়ানডে খেলে ফেলেছেন। পাশাপাশি লেগ-স্পিনার হিসেবে ৪১টি উইকেটও নিয়েছেন। দক্ষিণাঞ্চল থেকে জাতীয় নির্বাচক হিসেবে শেষ বার বাদ সুনীল জোশির কাছে হেরে গিয়েছিলেন তিনি।

আরও পড়ুন: শুধু বিশ্বকাপ হার নয়, চেতন শর্মাদের ছেঁটে ফেলার নেপথ্যে পাঁচটি বড় কারণ

বোর্ডের একটি সূত্র টাইমস অফ ইন্ডিয়াকে বলেছে, ‘বিসিসিআই সংবিধানে স্পষ্ট ভাবে বলা রয়েছে, কমিটির সদস্যদের মধ্যে সবচেয়ে সিনিয়র টেস্ট ক্যাপকে চেয়ারম্যান হিসেবে নিয়োগ করা হবে, শিবরামকৃষ্ণন স্বয়ংক্রিয় ভাবে প্রধান নির্বাচক হয়ে যাবেন যদি তাঁকে কমিটির দক্ষিণাঞ্চলের প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত করা হয়।’

আরও পড়ুন: T20 অধিনায়কের পদ থেকে সরানো হতে চলেছে রোহিতকে, হার্দিক নতুন ক্যাপ্টেন- রিপোর্ট

সেই সূত্র যোগ করেছে, ‘তিনি গত ৪০ বছর ধরে খেলার সঙ্গে যুক্ত আছেন। তিনি নিয়মিত ঘরোয়া ক্রিকেটে ধারাভাষ্য দেন, যা ঘরোয়া ক্রিকেটে প্রতিভা সম্পর্কে একটি ন্যায্য ধারণা দেয়। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, তিনি আমাদের স্পিনারদের ভালো ভাবে গাইড করতে পারেন।’

মোঙ্গিয়া নব্বইয়ের দশকে ভারতের হয়ে ৪০টি টেস্ট এবং ১৪০টি ওডিআই খেলেছিলেন, অন্যদিকে ৮০ এবং ৯০-এর দশকে একটি টেস্ট এবং ২০টি ওয়ানডে খেলা আঙ্কোলা গত তিন বছর মুম্বইয়ের প্রধান নির্বাচক ছিলেন। তাঁর সময়কালে মুম্বই এই মাসের শুরুতে প্রথম বারের মতো সৈয়দ মুস্তাক আলি টি-টোয়েন্টি ট্রফি জিতেছিল। দীঘে আবার ছ'টি টেস্ট এবং ২৩টি ওয়ানডে খেলেছেন। তিনি মুম্বই ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের ক্রিকেট ইমপ্রুভমেন্ট কমিটির একজন সদস্য ছিলেন, তিনি একজন প্রাক্তন মুম্বই নির্বাচকও।

বন্ধ করুন