লিয়েন্ডার পেজ (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
লিয়েন্ডার পেজ (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

দেশের মাটিতে শেষ ATP ম্যাচে হার, আবেগতাড়িত লিয়েন্ডার

  • ম্যাচ শেষে আবেগতাড়িত হয়ে পড়েন লিয়েন্ডার। তাঁর চোখের কোণা চিকচিক করছিল। বসে যাচ্ছিল গলা।

দেশের মাটিতে কেরিয়ারের শেষ এটিপি টুরের ম্যাচটা ট্র্যাজিক হয়ে রইল লিয়েন্ডার পেজের কাছে। বেঙ্গালুরু ওপেনের ফাইনালের ডাবলসে হেরে গেলেন তিনি।

পেশাদার টেনিসে এটাই লিয়েন্ডারের শেষ বছর। আর বেঙ্গালুরু ওপেন ছিল ঘরের মাঠে শেষ এটিপি ম্যাচ। ম্যাথু এবেডনের সঙ্গে জুটি বেঁধে দেশের মাটিতে সেই ম্যাচ জিতেই কোর্ট ছাড়তে চেয়েছিলেন লিয়েন্ডার। কিন্তু ফাইনালে মাত্র ৫৬ মিনিটে হেরে যায় ইন্দো-অস্ট্রেলিয়ান জুটি। লিয়েন্ডারের স্বপ্নভঙ্গ করেন এক ভারতীয় জুটি। ৬-০,৬-৩ গেমে জেতেন পূরব রাজা ও রামকুমার রামানাথন।

ম্যাচ শেষে আবেগতাড়িত লিয়েন্ডার জানান, দেশবাসীর সমর্থন মিস করবেন তিনি। তাঁর কথায়, 'দেশের মাটিতে শেষ ম্যাচ খেলার ব্যাপারটা আরও মনে হয় আমি সই দেওয়ার সময়। পাঁচ-ছ'বছরের একটি মেয়ে তার থেকে দ্বিগুণ বড় সাইজের ওয়ান লাস্ট রোর লেখা টি-শার্ট আমায় দেয়। বলে, আপনি সই দিতে পারবেন? ও আমার থেকে ৪০ বছরের মতো ছোটো। ও আমার অটোগ্রাফ চাইছিল। এটার গুরুত্ব আমার কাছে অপরিসীম। কারণ কেরিয়ারজুড়ে আমি যে চেষ্টা, পরিশ্রম করেছি, তার স্বীকৃতি দিয়েছে ও।'

কথাগুলি বলার সময় ১৮ টি গ্র্যান্ডস্লাম ও অলিম্পিকে ব্রোঞ্জ জয়ীর চোখের কোণা চিকচিক করছিল। বসে যাচ্ছিল গলা। নিজেকে কিছুটা সামলে নিয়ে আবার বলেন, আমি সই করে দেওয়ার পর (মেয়েটি) ও পিছন ঘুরে বাই বলল। ও বাই বলল। এটা যাওয়ার দুর্দান্ত উপায়।

বন্ধ করুন