বাড়ি > ময়দান > অ্যাডামসের শেষ মুহূর্তের গোলে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে লিপজিগ
লিপজিগের উচ্ছ্বাসের নীবর দর্শক ফেলিক্স। ছবি- টুইটার।
লিপজিগের উচ্ছ্বাসের নীবর দর্শক ফেলিক্স। ছবি- টুইটার।

অ্যাডামসের শেষ মুহূর্তের গোলে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে লিপজিগ

  • গোল করেও অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে জেতাতে পারলেন না জোয়াও ফেলিক্স।

টাইলার অ্যাডামসের শেষ মুহূর্তের গোলে ইতিহাস গড়ল লিপজিগ। অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদকে ছিটকে দিয়ে প্রথমবারের মতো উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের সেমিফাইনালে জায়গা করে নিল জার্মান ফুটবল ক্লাবটি।

কোয়ার্টারে স্প্যানিশ জায়ান্টদের ২-১ গোলে পরাজিত করে আরবি লিপজিগ। ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধেই তারা দু'টি গোল করে। অ্যাডামসের জয়সূচক গোল ছাড়া লিপজিগের হয়ে আরও একবার অ্যাটলেটিকোর জালে বল জড়ান ড্যানিয়েল ওলমো। তরুণ জোয়াও ফেলিক্স পেনাল্টি থেকে গোল করে একবার লা লিগা ক্লাবকে সমতায় ফিরিয়েছিলেন বটে। তবে ম্যাচের শেষ বাঁশি বাজার আগে গোল খেয়ে বসায় শেষ রক্ষা করা সম্ভব হয়নি অ্যাটলেটিকোর পক্ষে।

লিসবনে ম্যাচের প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকে। দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই লিড নিয়ে নেয় লিপজিগ। ৫০ মিনিটের মাথায়া মার্সেল সাবিৎজারের পাস থেকে গোল করেন ড্যানিয়েল। লিপজিগ ১-০ গোলে এগিয়ে যায়। ম্যাচের ৭০ মিনিটের মাথায় লিপজিগের কাছ থেকে পেনাল্টি আদায় করে নেয় অ্যাটলেটিকো। ৭১ মিনিটে স্পট কিক থেকে গোল করে দলকে ১-১ সমতায় ফেরান ফেলিক্স।  রোনাল্ডোর দেশের তরুণ তুর্কি চলতি মরশুমে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ৬টি ম্যাচে মাঠে নেমে তিনটি গোল করে ফেললেন।

৮৮ মিনিটে অ্যাঞ্জেলিনোর পাস থেকে গোল করে লিপজিগকে সেমিফাইনালের টিকিট এনে দেন অ্যাডামস। এই প্রথমবার তারা ইউরোপীয়ান চ্যাম্পিয়নশিপের শেষ চারে জায়গা করে নেয়। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে ৩২ নম্বর দল হিসেবে সেমিফাইনালে ওঠার কৃতিত্ব অর্জন করে বুন্দেশলিগার ক্লাবটি।

লিপজিগ শেষ চারে প্যারিস সাঁ-জা'র মুখোমুখি হবে। নেইমার-এমবাপেরা কোয়ার্টার ফাইনালে আটালান্টাকে হারিয়ে সেমিফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করেছে। এটা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ইতিহাসে পিএসজির দ্বিতীয় সেমিফাইনাল।

বন্ধ করুন