বাড়ি > ময়দান > উপমহাদেশের বাইরেও টেস্টে স্পিনারদের গুরুত্ব বাড়তে চলেছে, ধারণা কুম্বলের
অনিল কুম্বলে। ছবি- গেটি ইমেজেস।
অনিল কুম্বলে। ছবি- গেটি ইমেজেস।

উপমহাদেশের বাইরেও টেস্টে স্পিনারদের গুরুত্ব বাড়তে চলেছে, ধারণা কুম্বলের

  • ক্রিকেটে পরিস্থিতি অনুযায়ী পিচ তৈরি করা যায়। এই সুবিধা অন্য খেলায় নেই বলে মত প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের।

লকডাউন পরবর্তী আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে বল পালিশের জন্য লালার ব্যবহার বন্ধ হতে চলেছে। স্বাভাবিকভাবেই পেসারদের কাজ অনেক চ্যালেঞ্জিং হয়ে দাঁড়াতে চলেছে। তবে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক অনিল কুম্বলে মনে করছেন, পরিস্থিতি অনুযায়ী এবার ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়ার মতো পরিবেশেও টেস্টে নিয়মিত জোড়া স্পিনার খেলানোর সুযোগ এসেছে।

প্রাক্তন লেগ-স্পিনারের মতে, অন্যান্য খেলার তুলনায় ক্রিকেটে সুবিধা হল, এখানে পরিস্থিতি অনুযায়ী পিচের চরিত্র বদল করা যায়। ব্যাটিং ও বোলিংয়ের ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য প্রয়োজন মতো পিচ তৈরি করা যায়। এই সুযোগ অন্য কোনও খেলায় নেই।

জাম্বো বলেন, 'এবার সময় এসেছে টেস্টে স্পিনারদের ফিরিয়ে আনার। বিশেষ করে উপমহাদেশের বাইরে ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা, নিউজিল্যান্ডের মতো দেশে টেস্ট ক্রিকেটে দু'জন স্পিনার খেলানো যাবে। তা সে পিচে ঘাস রাখা হোক অথবা পিচ শুকনোই হোক না কেন‌। ওয়ান ডে ও টি-২০ ক্রিকেটে বলের পালিশ বজায় রাখার প্রসঙ্গ নিতান্ত গৌণ। তা নিয়ে কারও মাথাব্যথা থাকে না। তবে টেস্টে বল পালিশ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে সবসময়। পেসাররা সাহায্য না পেলেও অমসৃণ বলে সুবিধা পেতে পারে স্পিনাররা।'

উল্লেখ্য, কুম্বলের নেতৃত্বাধীন ক্রিকেট কমিটিই আইসিসিকে প্রস্তাব দিয়েছে বল পালিশের ক্ষেত্রে লালার ব্যবহার বন্ধ করার। এ-প্রসঙ্গে তিনি জানান, মেডিক্যাল কমিটির পরামর্শ মতো তাঁরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। কারণ, ঘামের তুলনায় লালার মাধ্যমে ভাইরাস সংক্রামিত হওয়ার আশঙ্কা সবথেকে বেশি।

বন্ধ করুন