বাংলা নিউজ > ময়দান > স্কুলে মেসির ছবি ঘিরে বিতর্ক দিল্লিতে
এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক।
এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক।

স্কুলে মেসির ছবি ঘিরে বিতর্ক দিল্লিতে

  • স্কুলের দেওয়ালে মদ প্রস্তুতকারী সংস্থার বিজ্ঞাপনে ভুরু কুঁচকেছে অনেকেরই।

বার্সেলোনা ও আর্জেন্তাইন তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসির ছবি ঘিরে বির্তকের সৃষ্টি হয়েছে দিল্লি ও মুম্বইতে। বিখ্যাত স্ট্রিট আর্টকে সরিয়ে তার ওপর মেসির ছবি বসানোর জন্য বিপাকে পড়েছে মদ প্রস্তুতকারী সংস্থা।

মেসির সঙ্গে সংস্থাটির চুক্তির বিষয়ে অনেকেই অবগত। বার্সার হয়ে ৬৪৪ গোল করে কিছুদিন আগেই এক ক্লাবের হয়ে সর্বোচ্চ গোল করার রেকর্ডটি নিজের দখলে করেন ফুটবল জাদুকর। তারপরেই ৬৪৪ গোল হজম করা প্রত্যেক গোলরক্ষকেই গোলের পরিমান সংখ্যক মদের বোতল উপহার দেওয়া হয় সংস্থার তরফ থেকে। এবার ভারতে সংস্থার প্রচারের জন্য মুম্বইয়ের চ্যাপেল রোড ও দক্ষিণ দিল্লির হজ খাস রোডে মিউনিসিপাস কর্পারেশনের স্কুলের পিছনের দেওয়ালে তাঁর ছবি আঁকা হয়েছে।

অভিযোগ ওই জায়গাগুলিতে আগে থেকেই ওকুদা স্যান মিগুয়েল ও মারিউজ ওয়ারাসের আঁকা ছবি ছিল যার ওপরে মেসির ছবি চাপানো হয়েছে। স্কুলের দেওয়ালে মদ প্রস্তুতকারী সংস্থার বিজ্ঞাপনে ভুরু কুঁচকেছে অনেকেরই। এই ঘটনার প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন ভারতে স্ট্রিট আর্ট প্রচারককারী সংস্থা স্টার্ট ইন্ডিয়ার অর্ন্তগত বহু শিল্পী। তাঁরা এই কাজকে এক সাধারন বিজ্ঞাপন প্রচার বলে ব্যাখা করেছন। স্টার্ট ইন্ডিয়া নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টেও এর প্রতিবাদ জানায়।

সংস্থাটির আর্টিস্টক ডিরেক্টর হানিফ খুরেশি বলেন, ‘আমরা স্পেনের বিখ্যাত শিল্পী আকুদার সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে ২০১৪ সালে এই স্কুলটি রং করাই। কিন্তু এখানে শিল্প ও ফুটবলের নামে ইচ্ছাকৃতভাবে মদের বিজ্ঞাপন করা হচ্ছে। আমরা কোনও নির্দিষ্ট সংস্থার বিরোধী নই। আমাদের মতে এমন জায়গায় কোওন ধরনের বিজ্ঞাপনই করা অনুচিত।’

বিতর্কের চাপে মদ প্রস্তুতকারক সংস্থাটি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, ‘আমরা সবসময় শিল্পের ক্ষমতা সম্পর্কে অবগত ছিলাম এবং বিভিন্ন সময়ে নানান শিল্পীদের সাথে জোট বেঁধে কাজ করেছি, যার মধ্যে স্টার্ট ইন্ডিয়াও রয়েছে। আমাদের একমাত্র লক্ষ্য ছবির মধ্য দিয়ে গোট (G.O.A.T)- এর জীবনকাহিনী তুলে ধরা। শিল্পীদের পাশে আমরা সর্বদা আছি।’

অবশ্য এই ছবি বানানোর দায়িত্বে থাকা আর্ন্তজাতিক সংস্থা কড়া ভাষায় স্টার্ট ইন্ডিয়াকে আক্রমণ করেছে। তারা এই ছবি প্রস্তুতের জন্যে স্টার্ট ইন্ডিয়ার সঙ্গে হওয়া চুক্তির অঙ্ক প্রকাশ করেছেন। তবে নেটিজেনরা তাদের এই দাবি খারিজ করে দিয়েছে। তাদের মতে এটি স্টার্ট ইন্ডিয়ার ভাবমূর্তি নষ্টের প্রচেষ্টামাত্র।

বন্ধ করুন